খেলা

বল পছন্দের সময় টেনিস খেলোয়াড়রা কী দেখেন?

বলের দিকে রজার ফেদেরারের প্রখর দৃষ্টি
বলের দিকে রজার ফেদেরারের প্রখর দৃষ্টি

অমৃত মলঙ্গী: নোভাক জোকোভিচ থেকে রাফায়েল নাদাল, নাদাল থেকে রজার ফেদেরার-সার্ভ করার আগে সবাইকে টেনিস বল পরখ করতে দেখা যায়। কেউ তিনটি, কেউ চারটি বল হাতে নিয়ে কিছু একটা দেখে পছন্দের বলটি নিয়ে কোর্টে ঢুকে পড়েন।

অনেকের ধারণা এটি অভ্যাসবশত করা হয়। নাহ! এর পেছনে রয়েছে নিখাদ বিজ্ঞানের রহস্য।

সংবাদ এবং মতামত ভিত্তিক মার্কিন গণমাধ্যম ভক্সের একটি প্রতিবেদনে এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিবেদনটিতে টেনিস খেলোয়াড়, কোচ এবং মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার একজন বিজ্ঞানীকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, বল পছন্দ করার সময় খেলোয়াড়েরা মূলত বলের পশম এবং দৃঢ়তা পরীক্ষা করে দেখেন। প্রথম সার্ভ করার সময় অধিকাংশ খেলোয়াড় শক্ত বল নির্ধারণ করেন। এই বলের গায়ে পশমের তুলতুলে ভাব কম। দ্বিতীয় সার্ভ কিংবা তার পরের দিকে আবার একটু তুলতুলে বল নিয়ে থাকেন তারা।

পেশাদার টেনিস ম্যাচে সাধারণত ছয়টি বল ব্যবহার করা হয়। ম্যাচের সময় একটু বাড়লেই, ‘হার্ডিহিটিংয়ের’ ফলে বলের পশম নমনীয় এবং তুলতুলে হতে থাকে। তখন বাতাসে বলের গতি একটু কমে যায়।

বাতাসে টেনিস বলের গতি। ছবি: নাসা

বাতাসে টেনিস বলের গতি। ছবি: নাসা

এ বিষয়ে রজার ফেদেরারের কাছে প্রশ্ন করা হলে ২০০৯ সালের দিকে নিউইয়র্ক টাইমসকে বলেন, ‘প্রথম সার্ভের জন্য আমি তুলনামূলক শক্ত বল নিয়ে থাকি। যাতে সার্ভে গতি থাকে।’

ইউএস ওপেনে নারী-পুরুষদের ম্যাচে ভিন্ন ভিন্ন বল ব্যবহার করা হয়। পুরুষদের ম্যাচে বলগুলোতে উইলসনের ‘এক্সট্রা ডিউটি ভার্সন’ বল ব্যবহার করা হয়। সঙ্গে কালো লোগো। মেয়েদের ম্যাচে নিয়মিত ভার্সনের বল থাকে। এই বলে লাল লোগো ব্যবহার করা হয়।

মেয়েদের ম্যাচের বলগুলো তুলনামূলক শক্ত এবং কম পশমের হয়। মেয়েদের খেলা যেন গতিময় থাকে, এ জন্য এই বল ব্যবহার করা হয়। অন্যদিকে এক্সট্রা-ডিউটি ভার্সনের বলে পশমগুলো একটু লম্বা থাকে।

বল পছন্দের বিষয়ে রাশিয়ার তারকা খেলোয়াড় ড্যানিয়েল মেদভেদেভ ভক্সকে বলেন, ‘প্রথম সার্ভে আমি কম পশমের বল খুঁজে থাকি। কারণ বাতাসে এটি দ্রুত যায়। নিশ্চয়ই আপনি এমন বড় বল ধরবেন না, যার গতি কম।’

এখন প্রশ্ন হলো প্রথম সার্ভে কেন শক্ত এবং কম পশমের বল নিয়ে থাকেন খেলোয়াড়রা। এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এক দশক ধরে সেরেনা উইলিয়ামসকে কোচিং করানো প্যাট্রিক মুরাতোগ্লো, ‘প্রথম সার্ভে কেউ ভুল করতে চায় না। গতিতে প্রতিপক্ষকে ভড়কে দিতে চায়। এখানে মানসিক লড়াইটা মুখ্য।’

টেনিস বল

টেনিস বল

দ্বিতীয় সার্ভের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয় সার্ভে গতির চেয়ে তারা নিয়ন্ত্রণের ওপর বেশি নজর দেয়। কারণ দ্বিতীয় সার্ভে কেউ ডাবল হিটের কবলে পড়তে চায় না।’

পয়েন্টে পিছিয়ে থাকার সময় খেলোয়াড়েরা দ্বিতীয় সার্ভ করলে সাধারণত তুলতুলে বলই পছন্দ করেন। এই সময় গতিময় শক্ত বলে সার্ভ করে আবার পয়েন্ট হারাতে চান না তারা। কারণ তুলতুলে বল নিজের কাছে আসার মুহূর্তে শট খেলা তুলনামূলক সহজ হয়।

বিজ্ঞানের বিষয়টি বর্ণনা করে নাসার গবেষক ড. রবীন্দ্র মেহতা বলেন, ‘‘তুলতুলে ভাবটাই সব। টেনিসে ‘Extra Drag’ বলে একটা শব্দ ব্যবহার করা হয়। বাতাসে বল যখন স্লো হয়ে যায়, তখন এটি বলা হয়। আমরা যখন বাতাসে যাই, তখন হাতের পশম যেমন খাঁড়া হয়, এক্ষেত্রেও তেমনটি হয়। ঠিক এই কারণে পেশাদার সাঁতারুরা পুলে নামার আগে হাতের পশম ছেঁটে ফেলেন।’

ড. রবীন্দ্র মেহতা

ড. রবীন্দ্র মেহতা

বল পছন্দের ক্ষেত্রে প্রচলিত রীতি, অভ্যাস আর বিজ্ঞানের এই ব্যাখ্যা থাকলেও জয়ের ক্ষেত্রে এটি মূল কথা নয়। সেরেনা উইলিয়ামসই তার উদাহরণ।

তার কোচ প্যাট্রিক মুরাতোগ্লো ভক্সকে জানিয়েছেন, সেরেনাই একমাত্র খেলোয়াড় যিনি বেশি পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করে একটা বল দিয়েই সার্ভ করতে থাকেন!

দেশটিভি/এএম
দেশ-বিদেশের সকল তাৎক্ষণিক সংবাদ, দেশ টিভির জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখতে, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল:

এছাড়াও রয়েছে

স্ত্রীর করা মামলায় জামিন পেলেন ক্রিকেটার আল আমিন

সিপিএলে ঝড়ো ফিফটিতে দল জিতিয়ে ম্যাচসেরা সাকিব

বাংলাদেশের তিন ম্যাচ আজ

ক্রীড়াঙ্গনে সাফল্যের এক সপ্তাহ

কৃষ্ণাদের চুরি হওয়া অর্থ ফেরত দেবে বাফুফে

শিরোপা নিয়ে দেশে ফিরলেন সাফ চ্যাম্পিয়ন মেয়েরা

ছাদখোলা বাসে রাজধানীজুড়ে হবে বিজয় মিছিল

সাফের ফাইনালে প্রথমার্ধে দুই গোল বাংলাদেশের

সর্বশেষ খবর

শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন মোস্তাফিজুর রহমান

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ইউল্যাব’ শিক্ষার্থীদের ফটোওয়াক

ভান্ডারিয়া ও মঠবাড়িয়ায় পৌর প্রশাসক নিয়োগ

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত