খেলা

জোড়া সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের সিরিজ ড্র

জোড়া সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের সিরিজ ড্র
জোড়া সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের সিরিজ ড্র

অধিনায়ক বাবর আজমের ১৯৬ ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের অপরাজিত ১০৪ রানের সুবাদে অবিশ্বাস্যভাবে পরাজয়ের হাত থেকে রেহাই পেলো পাকিস্তান। প্রায় দু’দিনে ১৭১ দশমিক ৪ ওভার ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে করাচি টেস্ট ড্র করলো পাকিস্তান।

চতুর্থ দিন সকালে মাত্র ৩৩ বল ব্যাট করে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষনা করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। অসিদের ইনিংস ঘোষনায় ম্যাচ জয়ের জন্য ৫০৬ রানের টার্গেট পায় পাকিস্তান।

জবাব দিতে নেমে ২১ রানে ২ উইকেট হারায় স্বাগতিক পাকিস্তান। এরপর জুটি বেঁধে দিনের বাকী সময় আর কোন উইকেট পড়তে দেননি ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক ও বাবর। চতুর্থ দিন শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ছিল ২ উইকেটে ১৯২ রান। ১০২ রানে বাবর ও ৭১ রানে অপরাজিত ছিলেন শফিক।

ম্যাচ জিততে পঞ্চম ও শেষ দিন ৮ উইকেট হাতে নিয়ে আরও ৩১৪ রান করতে হতো পাকিস্তানকে।

শেষ দিন হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়েন শফিক। ৯৬ রানে থাকা শফিককে আউট করেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। ৪৬৫ মিনিটে ৩০৫ বল খেলে ৬টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন শফিক। তৃতীয় উইকেটে বাবরের সাথে ৫২৪ বলে ২২৮ রান যোগ করেন শফিক।

শফিককে তুলে ব্রেক-থ্রু এনে দেয়ার পর অস্ট্রেলিয়াকে ম্যাচে ফেরান কামিন্স। পাঁচ নম্বরে নামা ফাওয়াদ আলমকে ৯ রানে বিদায় দেন কামিন্স।

ফাওয়াদের বিদায়ের পর ক্রিজে বাবরের সঙ্গী হন রিজওয়ান। তখন দিনের খেলা প্রায় ৫৫ ওভারের মত বাকী ছিলো। হাতে ছিলো ৬ উইকেট। জয়ের জন্য পাকিস্তানের দরকার ছিলো ২২৯ রান।

জয়ের চিন্তা বাদ দিয়ে উইকেটে টিকে থাকার পণ করেছিলেন বাবর ও রিজওয়ান। চা-বিরতি পর্যন্ত উইকেটে কাটিয়ে দেন বাবর ও রিজওয়ান।

শেষ সেশনের লড়াইটাও দুর্দান্ত করেছেন বাবর ও রিজওয়ান। দেড়শ ছাড়িয়ে দু’শ রানের দিকে এগোচ্ছিলেন বাবর। তবে দুভার্গ্য ডাবল-সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন বাবর। অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার নাথান লায়নের করা ১৬০তম ওভারের চতুর্থ বলে ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে মার্নাস লাবুশেনকে ক্যাচ দেন বাবর। ৬০৩ মিনিট ক্রিজে থেকে ৪২৫ বল মোকাবেলা করে ১৯৬ রানে আউট হন বাবর। তার নান্দনিক ইনিংসে ২১টি চার ও ১টি ছক্কা ছিলো।

একই ওভারের পঞ্চম বলে ফাহিম আশরাফকেও শিকার করে ম্যাচ জমিয়ে তুলেন লায়ন। এরপর ১৬৪তম ওভারের শেষ বলে সাজিদ খানকে থামিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের স্বপ্ন দেখান লায়ন। কারন জয়ের জন্য আর ৩ উইকেট দরকার ছিলো অস্ট্রেলিয়ার।

তবে নোমান আলিকে নিয়ে এরপর অবিচ্ছিন্ন ৪৬ বল খেলে ২৯ রান যোগ করে ম্যাচ ড্র করেন রিজওয়ান। ১৭১তম ওভারে টেস্ট ক্যারিয়াারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরির স্বাদ নেন রিজওয়ান। শেষ পর্যন্ত ১৭৭ বলে অপরাজিত ১০৪ রান করেন তিনি। ১৮ বল খেলে খালি হাতে অপরাজিত থাকেন নোমান। অস্ট্রেলিয়ার লায়ন ১১২ বলে ৪ উইকেট নেন। ২ উইকেট নেন কামিন্স। ম্যাচ সেরা হয়েছেন পাকিস্তানের বাবর।

প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া ৯ উইকেটে ৫৫৬ এবং ২ উইকেটে ৯৭ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষনা করে। প্রথম ইনিংসে ১৪৮ রান করে পাকিস্তান। দ্বিতীয় ইনিংসে ৭ উইকেটে ৪৪৩ রান করে ম্যাচ ড্র করে স্বাগতিকরা।

এ্ই ড্রতে ৬ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে পাকিস্তান। ৭ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে অস্ট্রেলিয়া।

আগামী ২১ মার্চ লাহোরে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : (টস-অস্ট্রেলিয়া)

অস্ট্রেলিয়া : ৫৫৬/৯ ডি ও ৯৭/২ ডি, ২২.৩ ওভার (খাজা ৪৪*, লাবুশেন ৪৪, আফ্রিদি ১/২১)।

পাকিস্তান : ১৪৮ ও ৪৪৩/৭, ১৭১.৪ ওভার (বাবর ১৯৬, রিজওয়ান ১০৪*, লায়ন ৪/১১২)।

ফল : ড্র।

ম্যাচ সেরা : বাবর আজম (পাকিস্তান)।

দেশটিভি/এমএ
দেশ-বিদেশের সকল তাৎক্ষণিক সংবাদ, দেশ টিভির জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখতে, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল:

এছাড়াও রয়েছে

স্ত্রীর করা মামলায় জামিন পেলেন ক্রিকেটার আল আমিন

সিপিএলে ঝড়ো ফিফটিতে দল জিতিয়ে ম্যাচসেরা সাকিব

বাংলাদেশের তিন ম্যাচ আজ

ক্রীড়াঙ্গনে সাফল্যের এক সপ্তাহ

কৃষ্ণাদের চুরি হওয়া অর্থ ফেরত দেবে বাফুফে

শিরোপা নিয়ে দেশে ফিরলেন সাফ চ্যাম্পিয়ন মেয়েরা

ছাদখোলা বাসে রাজধানীজুড়ে হবে বিজয় মিছিল

সাফের ফাইনালে প্রথমার্ধে দুই গোল বাংলাদেশের

সর্বশেষ খবর

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ইউল্যাব’ শিক্ষার্থীদের ফটোওয়াক

ভান্ডারিয়া ও মঠবাড়িয়ায় পৌর প্রশাসক নিয়োগ

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

সিলেটে ভোক্তা অধিদপ্তর ও সিসিএস-এর সচেতনতামূলক সভা