খেলা

মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২০ (১১:০১)

১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করে বিশ্বকে চমকে দিলেন নতুন 'মালিঙ্গা'

১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করে বিশ্বকে চমকে দিলেন নতুন 'মালিঙ্গা'

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে চলছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের আসর। রোববার শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে এ প্রতিযোগিতায় অভিযান শুরু করেছে ভারত। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে লংকান যুবাদের ৯০ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে তারা।

যুব বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে দাগ কাটতে পারেনি শ্রীলংকা অনূর্ধ্ব-১৯ দল। তবে ভারতের বিপক্ষে বল হাতে নজর কেড়েছেন লাসিথ মালিঙ্গার মতো বোলিং অ্যাকশনের কিশোর পেসার। ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করে ক্রিকেটবিশ্বে হইচই ফেলে দিয়েছেন মাথিস পাতিরানা। তার বোলিং অ্যাকশনে রয়েছে অগ্রজের দারুণ প্রভাব।

অনন্য বোলিং নৈপুণ্যে শ্রীলংকাকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতিয়েছিলেন মালিঙ্গা। ঠিক তার মতো বোলিং স্টাইলে বল করে ইতিমধ্যে নজরে এসেছেন পাতিরানা। বিশ্বকাপে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ব্যাটিং ইনিংসের চতুর্থ ওভারে ওপেনার যশশ্বী জয়সওয়ালের বিরুদ্ধে ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করেন তিনি। স্বভাবতই খবরের শিরোনামে উঠে এসেছেন এ টিনএজার।

স্পিডোমিটারে ধরা পড়ে, পাতিরানার ওই ওভারের পঞ্চম ডেলিভারিটি ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে ছিল। বলটি অবশ্য যশশ্বীর মাথার অনেকটা ওপর দিয়ে বেরিয়ে গেছে। যে কারণে সেটি ওয়াইড ডাকেন আম্পায়ার।

শেষ পর্যন্ত ৮ ওভার বল করে ৪৯ রান খরচ করেন পাতিরানা। তবে কোনো উইকেটের দেখা পাননি। কিন্তু গতির ঝড় তুলে শোরগোল ফেলে দিয়েছেন তিনি। অবশ্য বিশ্বকাপের আলোচিত ডেলিভারি নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেছে। স্পিডোমিটারে কোনো ত্রুটি রয়েছে কিনা, সেই কথা উঠছে। যদিও আইসিসি এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৯৭ রান তোলে ভারত। জবাবে এ রান তাড়া করতে নেমে ২০৭ রানে অলআউট হয় শ্রীলংকা। ফলে ৯০ রানে জেতে কিশোর টিম ইন্ডিয়া।

এর আগে গেল বছর স্টেপ্টেম্বরে ক্যান্ডিতে ত্রিনিটি কলেজের হয়ে এক ম্যাচে ৭ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট শিকার করেন পাতিরানা। স্বাভাবিকভাবেই সংবাদ শিরোনামে উঠে আসেন তিনি। একের পর এক ভয়ঙ্কর ইয়র্কারে উইকেট তুলে নেন উদীয়মান ও প্রতিশ্রুতিশীল পেসার। ওই সময় তার দুরন্ত বোলিং সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সর্বোচ্চ গতির ডেলিভারি পাকিস্তানের সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতারের। ২০০৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার গতিতে বল করেন তিনি।

এর পর ২০১০ সালে অস্ট্রেলিয়ার শন টেইট সেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘণ্টায় ১৬১.১ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করেন। এর আগে ২০০৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘণ্টায় ১৬১.১ কিলোমিটার গতিতে বল করেন অজি পেস কিংবদন্তি ব্রেট লি। সূত্র/ইত্তেফাক

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

জিতল ইন্টার মিলান

একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে বিরল রেকর্ডটা গড়ে ফেললেন টেলর

নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জমজমাট লড়াই শুরু আজ

পাকিস্তানকে হারাল বাংলাদেশ

টেস্টের চেয়ে টি-টোয়েন্টিই বেশি কঠিন: স্মিথ

সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ আকমল

অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফির শেষ সিরিজ

প্রতিপক্ষের গোপনাঙ্গ কামড়ে ৫ বছর নিষিদ্ধ ফ্রান্সের ফুটবলার

সর্বশেষ খবর

জিতল ইন্টার মিলান

১২০০ দিনের জেল ট্রাম্পের উপদেষ্টা স্টোনের

ভাষার দিনে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার শপথ বিএনপির

একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে বিরল রেকর্ডটা গড়ে ফেললেন টেলর