খেলা

সোমবার, ২৯ জুলাই, ২০১৯ (২০:২২)

এ্যাশেজ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ : আইসিসি

এ্যাশেজ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ : আইসিসি

দুই চিরপ্রতিদ্বন্দী অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার আসন্ন এ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ আয়োজনের ঘোষণা আগেই দিয়ে রেখেছিলো ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। আজ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ নিয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষনা দিলো আইসিসি। আগামী ১ আগস্ট এজবাস্টনে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম ম্যাচ দিয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ শুরু হবে। আইসিসির পক্ষ থেকে আজ ঘোষনা দেয়া হয়েছে।

৯টি টেস্ট খেলুড়ে দল ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, শ্রীলংকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ নিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ। ১ আগস্ট ২০১৯ থেকে ৩০ এপ্রিল ২০২১ সাল পর্যন্ত চলবে লংগার ভার্সনের আসর। এ দু’বছর ২৭টি সিরিজে ৭১টি টেস্ট খেলবে দলগুলো। ফলে হোম ও অ্যাওয়ে ভিত্তিতে দ্বিপক্ষীয় সিরিজের গুরুত্ব বাড়বে।

প্রতিটি ম্যাচের জন্যই থাকছে পয়েন্টের ব্যবস্থা। প্রতিটি দল তিনটি করে হোম ও তিনটি করে অ্যাওয়ে সিরিজ খেলবে। অর্থাৎ ছয়টি সিরিজ প্রতি সিরিজের মোট পয়েন্ট হবে ১২০। সিরিজে দু’টি ম্যাচ হলে এক একটি ম্যাচের পয়েন্ট হবে ৬০। আবার সিরিজে পাঁচটি ম্যাচ হলে এক একটি ম্যাচের পয়েন্ট হবে ২৪। প্রতিটা দলের মোট ৭২০ পয়েন্ট সংগ্রহ করার সুযোগ থাকবে। তবে টেস্ট ম্যাচ ড্র হলে দুই ম্যাচের সিরিজে দু’টি দল পাবে ২০ পয়েন্ট, তিন ম্যাচের সিরিজ হলে পাবে ১৩ দশমিক ৩ পয়েন্ট, চার ম্যাচের সিরিজ হলে পাবে ১০ পয়েন্ট এবং পাঁচ ম্যাচের সিরিজ হলে পাবে ৮ পয়েন্ট। তবে ম্যাচ যদি টাই হয় তাহলে সেই ম্যাচের মোট পয়েন্ট ভাগ হয়ে যাবে দুই দলের মধ্যে। ৩০ এপ্রিল ২০২১ শেষে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুই দল জুন মাসে ক্রিকেটের তীর্থ ভুমি ইংল্যান্ডের লর্ডসে ফাইনালে মুখামুখি হবে।

সেই লর্ডস। যেখানে দ্বাদশ বিশ্বকাপের ফাইনাল হয়েছিলো। ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা হয়ে গেছে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের ফাইনালটি। লর্ডস এমনিতেই ঐতিহাসিক ভেন্যু। তার মধ্যে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের ফাইনালের পর তা আরও বেশি ঐতিহাসিক মর্যাদা লাভ করেছে। ৫০ ওভার বিশ্বকাপের ফাইনালটি টাই হয়। ফলে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নির্ধারণে ফাইনাল গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও টাই করে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড। অর্থাৎ কোন দল জিতেওনি, হারেনিও। কিন্তু আইসিসির নিয়মনুযায়ী, সবচেয়ে বাউন্ডারির জন্য দ্বাদশ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে নেয় স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাউন্ডারির ওপর ফাইনালের বিজয়ী নির্ধারণ করেছিলো আইসিসি। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনালেও যদি ঐকই চিত্র দাঁড়ায় সেক্ষেত্রে কি নিয়ম করলো আইসিসি! সেদিকে চোখ বুলানো যাক।

আইসিসি জানিয়েছে যদি টেস্ট বিশ্বকাপের ফাইনাল ড্র বা টাই হয়, তাহলে যে দল লিগ টেবিলে এক নম্বরে থাকবে তারাই শিরোপা জিতে নিবে। তবে ফাইনালের আগে পয়েন্ট টেবিলে দু’দলের পয়েন্ট যদি সমান হয়, তবে ফাইনালের ড্র বা টাই’র পর কিভাবে চ্যাম্পিয়ন নির্ধারিত হবে সে বিষয়ে অবশ্য আইসিসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়নি।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

সিরিজ জিতল ইংল্যান্ড

ইতিহাস ছুঁয়েও গড়া হলো না টাইগারদের

ফিক্সিং করে ভারতে গ্রেফতার দুই ক্রিকেটার

বাংলাদেশকে হারিয়ে ভারতের বিশ্বরেকর্ড

গেঙ্ককে হারিয়ে গ্রুপ শীর্ষে লিভারপুল

স্মিথ নৈপুণ্যে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া

ঘরের মাঠে বার্সাকে রুখে দিল স্লাভিয়া

সর্বশেষ খবর

দেশে ‘গ্রহজনিত জরুরি অবস্থা’ ঘোষণার প্রস্তাব গৃহীত

আজ শুরু পিকেএসএফ মেলা, উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

শাহজালালে বিমান থেকে ৯ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নিহত