বিশেষ প্রতিবেদন

সোমবার, ২২ আগস্ট, ২০১৬ (১৯:০৬)

রামপাল নিয়ে রাজনৈতিক ইস্যু তৈরি করছে বামপন্থিরা

রামপাল নিয়ে আন্দোলন

নিছক রাজনৈতিক ইস্যু তৈরির জন্যই রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে আন্দোলন করছে বামপন্থিরা- এ মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টি ও আওয়ামী লীগের নেতারা।

তাদের এই আন্দোলনের সঙ্গে জনগণের কোনো সম্পৃক্ততা নেই উল্লেখ করে সরকার দলীয় নেতারা দেশ টিভিকে বলেন, দেশের স্বার্থ ও পরিবেশ রক্ষা করেই রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে সরকার। আর বিষয়টি নিয়ে কোনো ধরনের রাজনীতি না করতে আন্দোলনকারীদের পরামর্শ দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতারা।

সুন্দরবনের কাছে রামপালে নির্মীয়মাণ কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প বাতিলের দাবিতে তিন মাসের সময় বেধে দিয়েছে তেল-গ্যাস, বিদ্যুৎ-বন্দর, খনিজ সম্পদ রক্ষা জাতীয় কমিটি।

গত শনিবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়। এ সময় প্রকল্পের কাজ বন্ধ না করলে রাজনীতির গতি পাল্টে যেতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি দেন প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেয়া বাম নেতারা।

এদিকে, তাদের এসব বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতারা।

দলটির সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য নূহ-উল আলম লেলিন বলেন, সরকার পরিবেশগত এবং দেশের স্বার্থ সমুন্নত রেখেই এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে— এ নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, কয়েকজন বামপন্থি নেতা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে জনগণের সম্পৃক্ততা ছাড়া আন্দোলন করছে।

নূহ-উল আলম লেলিন বলেন, ‘সরকার দৃঢ়ভাবে এ কর্মসূচি বোঝে এবং তারা বাস্তবায়নের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। আর আন্দোলনকারী সামাজিক রাজনৈতিক শক্তি আমাদের জানা আছে। গুটি কয়েক মানুষ তারা এটা করছে, এটা জনগণের আন্দোলন না এটা বামপন্থিদের দল- অ্যাক্টিভিস্টদের আন্দোলন। বরং তারা এখানে বিশেজ্ঞদের দিয়ে পরামর্শ দিতে পারত কোন কোন ক্ষেত্রে উন্নয়ন করা যায় বা কোনো জায়গায় ফাঁক-ফোকর আছে কিনা সেটা তারা বলছেন না। তারা এটা নিয়ে রাজনৈতিক ইস্যু করতে চাইছে।’

আর জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমীন হাওলাদার, দেশে বিদ্যুতের প্রয়োজনিয়তা তুলে ধরে রামপাল ইস্যুতে কোনো রকম রাজনীতি না করার আহ্বান জানিয়েছেন।

রুহুল আমীন হাওয়ালাদার বলেন, ‘দেশের বৃহত্তর স্বার্থে কোনো কোনো একসময় একই পথে থাকা উচিৎ। রাজনীতিতে অনেক সুযোগ আছে এবং রাজনীতি করার জন্য অনেক প্রেক্ষিত থাকে কিন্তু রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে আমি মনে করি এটা নিয়ে রাজনীতি না করাই ভালো।’

পরিবেশগত দিক থেকে বাংলাদেশ এখন অনেক বেশি সচেতন উল্লেখ করে দুজনেই বলেন, সরকার রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে কোনো ধরনের বিদেশি স্বার্থ দেখছে না। দেশের উন্নয়ন এবং জনগণের উন্নয়নের স্বার্থেই সরকার এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

শ্রীলংকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নয়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট

অগ্নি-ঝুঁকি: রাজধানী ঘিরে যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পরামর্শ

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় পরিবহন মালিক-চালকদের দায়বদ্ধের তাগিদ

অপরিকল্পিত নগরায়ন, আইন না মানার প্রবণতা সব মিলিয়েই ঝুঁকিতে রাজধানীবাসী

পাট থেকে তৈরি হচ্ছে লেমিনেটেড ব্যাগ-স্লাইবার ক্যানশিট

পাইলটকে ফিরে দেয়া মানেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার শেষ নয়

সৌদির সঙ্গে সামরিক সমঝোতা স্মারক চুক্তি পররাষ্ট্রনীতির পরিপন্থি

শেখ হাসিনা বিকল্পহীন, বললেন বিশ্লেষকরা

সর্বশেষ খবর

বিদেশগামী জনগণের সাথে প্রতারণা ঠেকাতে নজরদারি জোরদারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আমিরাতের সর্বোচ্চ সম্মাননায় ভূষিত হলেন নরেন্দ্র মোদি

আসছে Matrix এর নতুন পর্ব

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে ও দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী