বিশেষ প্রতিবেদন

বুধবার, ০৩ আগস্ট, ২০১৬ (১৭:০৬)

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন আইনকে স্বাগত

উষাতন তালুকদার

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন আইন সংশোধনকে স্বাগত জানিয়েছেন পাহাড়ি নেতারা। সরকারের এ উদ্যোগের ফলে শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নের কাজ আরেক ধাপ এগিয়ে গেল বলে অভিমত তাদের।

সংশোধিত এ আইনের ফলে ১৮ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত পার্বত্য ভূমি কমিশন সক্রিয় হবে, ভূমির ওপর পার্বত্যবাসীর অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে, এমনটিই তাদের প্রত্যাশা। তবে পাহাড়ি নেতারা চান, একইসঙ্গে শান্তিচুক্তির অন্যান্য ধারাগুলোর দ্রুত বাস্তবায়ন।

১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর সরকারের সঙ্গে শান্তিচুক্তির মধ্য দিয়ে পাহাড়ে কয়েক দশকের রক্তাক্ত সংঘাতের অবসান ঘটলেও থেকে যায় ভূমির বিরোধ। দীর্ঘ আঠারো বছরেও অসংখ্য ভূমির বিরোধ নিষ্পত্তি হয়নি।

শান্তিচুক্তির আলোকে ২০০১ সালে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন আইন’ করা হয়। তবে চুক্তির সঙ্গে আইনটি অসঙ্গতিপূর্ণ উল্লেখ করে দীর্ঘ দিন ধরে তা বাতিলের দাবি করে আসছিলেন জনসংহতি সমিতির নেতারা। এ অবস্থায় দীর্ঘ পনেরো বছরেও এ আইন বাস্তবায়ন কর যায়নি।

বছরের পর বছর ভূমি কমিশনের চেয়ারম্যান পরিবর্তনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল এর কার্যক্রম। দুই বছর আগে আইনটিতে জনসংহতি সমিতির ২৯টি সংশোধনী দাবির মধ্যে ১৩টি সংশোধনীর বিষয়ে সরকার একমত হয়।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ১৪টি সংশোধনী এনে সোমবারের মন্ত্রিসভায় আইনের সংশোধনী খসড়া উপস্থাপন করে আইন মন্ত্রণালয়। যাতে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়।

সরকারের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে জনসংহতি সমিতির নেতা উষাতন তালুকদার বলেন, এর মধ্য দিয়ে শান্তিচুক্তির বাস্তবায়ন আরেক ধাপ এগিয়েছে।

ভূমি সমস্যাকে পাহাড়ের অন্যতম সমস্যা হিসেবে উল্লেখ করে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিব দ্রং বলেন, এ সমস্যাকে কেন্দ্র করে অনেক মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা ঘটছে। যথা সময়ে আইনটি পাস হয়ে বাস্তবায়ন শুরু হবে, পার্বত্যবাসীরা নিজেদের ভূমি ফিরে পাবেন, এমন প্রত্যাশা তাদের।

শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ধারা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি উল্লেখ করে শিগগিরই এই চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন দেখতে চান তারা। পাহাড়ে গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার পাশাপাশি প্রথাগত শাসন স্থাপনও চান পাহাড়ি নেতারা।

এছাড়াও রয়েছে

বাংলাদেশ থেকে অস্কারে লড়বে ‘ইতি তোমারই ঢাকা’

টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের ২০ বছর

শ্রীলংকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নয়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট

অগ্নি-ঝুঁকি: রাজধানী ঘিরে যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পরামর্শ

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় পরিবহন মালিক-চালকদের দায়বদ্ধের তাগিদ

অপরিকল্পিত নগরায়ন, আইন না মানার প্রবণতা সব মিলিয়েই ঝুঁকিতে রাজধানীবাসী

পাট থেকে তৈরি হচ্ছে লেমিনেটেড ব্যাগ-স্লাইবার ক্যানশিট

পাইলটকে ফিরে দেয়া মানেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার শেষ নয়

আরও খবর

  • পবিত্র লাইলাতুল কদর আজ

    পবিত্র লাইলাতুল কদর আজ

  • নাইজেরিয়ায় বন্দুকধারীদের হামলায় ৭ পুলিশ নিহত

    নাইজেরিয়ায় বন্দুকধারীদের হামলায় ৭ পুলিশ নিহত

  • ২৭ দিন পর করোনামুক্ত খালেদা জিয়া

    ২৭ দিন পর করোনামুক্ত খালেদা জিয়া

  • আগুয়েরোর পেনাল্টি মিস, চেলসির কাছে হেরে গেল ম্যানসিটি

    আগুয়েরোর পেনাল্টি মিস, চেলসির কাছে হেরে গেল ম্যানসিটি

সর্বশেষ খবর

মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান পৌঁছেছে মোংলা বন্দরে

আসামের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন বিজেপির হিমন্ত বিশ্ব শর্মা

করোনায় এক দিনে আরও ৫৬ জনের মৃত্যু

বাগেরহাটে টিকটক করা নিয়ে দ্বন্দ্বে স্ত্রীকে হত্যা, থানায় স্বামী