বিশেষ প্রতিবেদন

রবিবার, ১৯ জুন, ২০১৬ (১৮:১৩)

ক্ষমতাধর ভবন মালিকদের বেপরোয়া থাবায় হারিয়েছে রামপুরার উলন খাল

মানচিত্র

রাজধানীর অনেক জলা-ডোবা-নালা-খালের মতো হারিয়ে গেছে রামপুরার উলন খালটিও—এ খালের নাম-নিশানা মুছে গেছে ক্ষমতাধর শতাধিক বহুতল ভবন মালিকদের বেপরোয়া থাবায়।

গত ৩০ বছরে বেদখল হয়ে গেছে উলন খালের ৯৭ ভাগ জমি। খাল ভরাট হওয়ায় নিচু এলাকার বসতবাড়িগুলোতে রয়েছে সামান্য বৃষ্টি হলেই সেগুলোতে হাঁটু পানি জমে ভোগান্তিতে পড়েন এলাকাবাসী। বেদখল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কাগজে-কলমেও খালের অস্তিত্ব বিলীন হয়েছে।

এজন্য রাজউকের নিয়ন্ত্রণ ও পরিকল্পনার অভাব এবং দেরিতে বেসরকারি হাউজিং নীতিমালা প্রণয়নকেই দায়ী করেছেন পরিবেশবিদ স্থপতি ইকবাল হাবিব।

সরকারি এ খালের দেখভালের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার হলেও উলন খালের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে কোনো তথ্য দিতেই নারাজ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

রাজধানীর ঘনবসতিপূর্ণ অনেক এলাকার মতো রামপুরার উলনেও এখন গা লাগালাগি করে উঠে গেছে বড় বড় দালান-বাড়ি। নগরায়নের এই ধাক্কায় হারিয়ে গেছে খোলা জায়গা, খেলার মাঠ বা পুকুর-ডোবা-খালের অবশেষটুকুও। অপরিকল্পিত নির্মাণের হুজুগে অস্তিত্ব থাকছে না নালা-নর্দমা-ড্রেনেজ ব্যবস্থারও।

এ উলনে নব্বইয়ের দশকেও টিকে ছিল এক কিলোমিটার দীর্ঘ খালটি। এটি ছিল এ এলাকার অতি প্রয়োজনীয় ড্রেনেজ ব্যবস্থার অঙ্গ। এখন সেই উলন খালের অস্তিত্ব নেই কাগজে-কলমেও।

ময়লা-আবর্জনা আর কাঁদা-পানির জলাবদ্ধতায় দুর্ভোগ পোহানো এলাকাবাসীর অভিযোগ পেয়ে দেশ টিভির ক্যামেরা গিয়েছিল উলনে খাল এলাকায়।

উলন খাল দখল করে এরমধ্যেই গড়ে উঠেছে বহুতল বাড়ি, বস্তি, মসজিদসহ কয়েকশ অবৈধ স্থাপনা। মাতব্বর বাড়ি জামে মসজিদের নামেও খালের জমি দখল হয়ে গড়ে উঠছে বহুতল কমপ্লেক্স। বিভিন্ন ডেভলপার কোম্পানিই এসব ভবনের নির্মাতা।

এলাকার ড্রেনগুলোর পানি নেমে যাওয়ার খাল বিলীন হওয়ায় বাসিন্দারা আটকা পড়েছেন নোংরা জল-কাদায়।

এলাকাবাসী নাদিয়া শিকদার/ আলী হোসেনের অভিযোগ, প্রশাসনের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহায়তায় পুরো খালটি দখল হচ্ছে। আর দখল রোধ ও জমি উদ্ধারে ঊর্ধ্বতন মহলে অভিযোগ করেও কোনো কাজ হয়নি।

উলন এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিও এখানে অসহায়।

ডিএনসিসির ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর লিয়াকত আলী বলেন, ওপর মহলের সহযোগিতা ছাড়া এ খাল উদ্ধার করা এখন কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

পরিবেশ আন্দোলনের কর্মীরা বলেন, ওয়াসা ও রাজউকের নিয়ন্ত্রণশক্তি এবং পরিকল্পনার অভাবেই উলন খাল অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। খাল বন্ধ এবং পরিকল্পিত ড্রেনেজ না হওয়ায় তা ভোগাচ্ছে মহানগর প্রকল্পের বাসিন্দাদেরও।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন-ডিএনসিসি জানিয়েছেন, রাজধানীর ৩৫টি খাল উদ্ধারের যে তালিকা সরকার করেছে তাতে উলন খালের নাম রয়েছে।

তবে এটি তাদের আওতায় নয় জানিয়ে ঢাকা ওয়াসার সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়— কিন্তু দিনকয়েক টালবাহানা করেও কোনো তথ্য দেয়নি ওয়াসা কর্তৃপক্ষ। মুখ খোলেনি ওয়াসার ড্রেনেজ বিভাগও। উলন খাল তাদের আওতায় নয় বলে পাশ কাটিয়ে যায় তারা।

আর সিটি জরিপের তথ্য অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিস বলছে, রামপুরার উলন এলাকায় যে খাল ছিল তা হাতিরঝিলের মধ্যে পড়েছে।

এ অবস্থায় উলন খাল বেদখলজনিত দুর্ভোগের পাশাপাশি এর অস্তিত্ব হদিস করা জরুরি। সম্প্রতি দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ রামপুরার উল্টোদিকে বনশ্রী-আফতাবনগরের জলাধারের তালিকা হাজির করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছে।

উলনবাসীর প্রশ্ন, দুর্ভোগমুক্তির জন্য তাদেরও কী আদালতের দারস্থ হতে হবে?

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

শ্রীলংকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নয়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট

অগ্নি-ঝুঁকি: রাজধানী ঘিরে যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পরামর্শ

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় পরিবহন মালিক-চালকদের দায়বদ্ধের তাগিদ

অপরিকল্পিত নগরায়ন, আইন না মানার প্রবণতা সব মিলিয়েই ঝুঁকিতে রাজধানীবাসী

পাট থেকে তৈরি হচ্ছে লেমিনেটেড ব্যাগ-স্লাইবার ক্যানশিট

পাইলটকে ফিরে দেয়া মানেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার শেষ নয়

সৌদির সঙ্গে সামরিক সমঝোতা স্মারক চুক্তি পররাষ্ট্রনীতির পরিপন্থি

শেখ হাসিনা বিকল্পহীন, বললেন বিশ্লেষকরা

সর্বশেষ খবর

নাগরিকত্ব আইনের উত্তাপ এবার ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়ে

এগিয়ে গেল ওয়েস্টইন্ডিজ

মহান বিজয় দিবস আজ

ধর্ষণের পর হত্যায় অভিযুক্ত যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত