বিশেষ প্রতিবেদন

রবিবার, ০৮ মে, ২০১৬ (১৪:০৪)

বাংলা-বাঙালির কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

পঁচিশে বৈশাখ, রবীন্দ্রজয়ন্তী। ১৫৫ বছর আগে এ দিনেই জন্মেছিলেন বিশ্বকবি বাংলা-বাঙালির কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

বাংলাদেশে রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টি ও কর্মকাণ্ডকে ঘিরেই গড়ে ওঠে ভিন্ন এক মানসজগত। যে রবীন্দ্রমানসের রূপ সর্বজনীন, ব্যাপকতা বিশ্বজুড়ে আর যার শিখরস্পর্শী প্রতিভায় উদ্ভাসিত বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি। এভাবেই বাঙালির সাংস্কৃতিক স্বকীয়তায় ছড়িয়েছে রবির আলো। তাই এতো বছর পরেও প্রতিমুহূর্তে প্রাসঙ্গিক রবীন্দ্রনাথ; শাণিত করে চলেছেন চেতনাকে, আলোকিত করছেন মননকে।

রিপোর্ট: আরিফুল ইসলাম।

ভালোবেসে সখী নিভৃত যতনে আমার নামটি লিখ তোমার মনেরও মন্দিরে।

চিরায়ত এ বাংলার বুকে আজ আর কবির পদচিহ্ন পড়ে না, কিন্তু ৮০ বছরের জীবন আর ৬৪ বছরের কর্মে যে চিহ্ন তিনি রেখে গেছেন সমৃদ্ধ করেছেন বাংলা সাহিত্যকে বিপুল সৃষ্টিসম্ভারে বদলে দিয়েছেন বাঙালির মানসজগতের দিগ্বলয়কে বাংলাকে দিয়েছেন বিশ্ব পরিচিতি তা কি সহজেই মোচনীয়?

আজি হতে শত বর্ষ পরে কে তুমি পড়িছ বসি আমার কবিতাখানি কৌতুহলভরে।

কী কবিতায়, কী গল্পে, উপন্যাস, সঙ্গীত, নাটক, এমনকি চিত্রকলায়ও - রয়েছে তার অসামান্য অবদান। সোনার বাংলাতেই রবীন্দ্রনাথ ছিলেন সবচেয়ে সাবলীল। মিশে গেছেন বাংলার রূপ-রস-গন্ধে। সময় বদলেছে কিন্তু রবির কিরণ কি হারিয়ে গেছে.? নাকি আজো প্রাসঙ্গিক বাংলা সাহিত্যের এই প্রাণপুরুষ.?

হে নূতন দেখা দিক আর বার.জন্মের প্রথম শুভক্ষণ।

২৫ বৈশাখ। ১২৬৮ বঙ্গাব্দের এ দিনে কলকাতার জোড়াসাঁকোর বিখ্যাত ঠাকুর পরিবারে তার জন্ম। এরই মধ্যে পেরিয়ে গেছে দেড়শো বছরেরও বেশি সময়। কিন্তু আজো বাঙালির শিল্প-সাহিত্য-চেতনায় উজ্জ্বল নক্ষত্র রবীন্দ্রনাথ।

বধূ মিছে রাগ করো না করো না।

প্রেম, বিরহ, সুখ, ভালবাসা, প্রকৃতি সবকিছুই যেন পরিপূর্ণতা পেয়েছে তার হাতের ছোঁয়ায়। তাঁর হাতেই স্বার্থকতা পেয়েছে বাংলা ভাষার ছোটগল্প। উপন্যাস পেয়েছে আধুনিক রূপ।

১৯১৩ সালে প্রথম বাঙালি এবং এশীয় হিসেবে সাহিত্যে নোবেল পুরষ্কার। বাঙালিকে আরো একবার বিশ্ব দরবারে সম্মানের আসনে আসীন করেন এ মহাকবি।

তার লেখা আমার সোনার বাংলা বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত। ভারতের জাতীয় সঙ্গীতও তারই লেখা। বিশ্বে তিনিই একমাত্র কবি যিনি দুটি দেশের জাতীয় সঙ্গীতের রচয়িতা।

আমার এ পথ চাওয়াতেই আনন্দ।

শুধু প্রকৃতি, প্রেম আর বিরহেই সীমাবদ্ধ থাকেননি রবীন্দ্রনাথ। তাই মনের মানুষ ও অচিন পাখির খোঁজে নিমগ্ন হয়েছিলেন সৃষ্টিতে। প্রেরণা খুঁজেছেন ফকির আর বাউলের কাছেও।

জগতে আনন্দ যজ্ঞে আমার নিমন্ত্রণও, ধন্য হলো মানব জীবনও

২২ শ্রাবণ জীবনাবসান হলেও কবি ছিলেন, আছেন, থাকবেন। তিনি চিরদিনের, চিরপথের রবি ! কালের খেয়ায় ভেসে চলেছেন, কালজয়ী এই মহাপুরুষ। অনাগত শত-সহস্র বছর ছুটে চলবেন মহাকালের পথে।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

শ্রীলংকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নয়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট

অগ্নি-ঝুঁকি: রাজধানী ঘিরে যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পরামর্শ

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় পরিবহন মালিক-চালকদের দায়বদ্ধের তাগিদ

অপরিকল্পিত নগরায়ন, আইন না মানার প্রবণতা সব মিলিয়েই ঝুঁকিতে রাজধানীবাসী

পাট থেকে তৈরি হচ্ছে লেমিনেটেড ব্যাগ-স্লাইবার ক্যানশিট

পাইলটকে ফিরে দেয়া মানেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার শেষ নয়

সৌদির সঙ্গে সামরিক সমঝোতা স্মারক চুক্তি পররাষ্ট্রনীতির পরিপন্থি

শেখ হাসিনা বিকল্পহীন, বললেন বিশ্লেষকরা

সর্বশেষ খবর

আইপিএল নিলামে রয়েছেন বাংলাদেশের যে ৬ ক্রিকেটার

মৌরিতানিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৫৮ শরণার্থীর মৃত্যু

লুটেরা ও আগুন সন্ত্রাসীরা যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে সে ব্যাপারে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বাংলাদেশের জন্য ১০ হাজার হজ কোটা বাড়াল সৌদি আরব