বিশেষ প্রতিবেদন

বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ (১৫:৩৪)

সাফল্য আর বর্থ্যতার মধ্যে কেটে গেল আরো একটি বছর

কেটে গেল আরো একটি বছর

আগের সব বছরের মতোই নানা উত্থান-পতনের মধ্যদিয়ে শেষ হতে যাচ্ছে ২০১৫ সাল। আসছে নতুন বছর। স্বাগত ২০১৬। নতুন বছরকে বরণ করার আগে হিসেব-নিকেশ চলছে পুরনো বছরের ফেলে আসা দিনগুলোর— নানা আলোচিত ঘটনার। বিশ্লেষণ চলছে সাফল্য-ব্যর্থতার।

স্বপ্নের পদ্মাসেতু নির্মাণকাজ শুরু যেমন দেশকে উন্নয়নের আরেক ধাপে এগিয়ে নিয়েছে তেমনি মানবপাচার ঠেকানো নিয়ে সরকারের সমালোচনা ছিল বছর জুড়ে।

তিন যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের মধ্যদিয়ে একদিকে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ অন্যদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লাগাতার কর্মসূচি দেশজুড়ে সহিংসতা উত্তাপ ছড়িয়েছে রাজনীতিতে।

বিদেশি হত্যাকাণ্ড আর ব্লগার হত্যার ঘটনা বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি যতটা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে তার থেকে কম প্রশংসিত হয়নি এবার ক্রিকেট খেলায় আন্তর্জাতিক একদিনের সবকটি সিরিজে জয় লাভে। সব মিলিয়ে ব্যর্থতার থেকে সফলতার পাল্লাই ভারি ছিল ২০১৫ সালে।

বছরের এ শেষ সূর্যাস্ত আরো একটি নতুন ভোরকে আবাহনের প্রস্তুতিমাত্র।

দেশের এমন সবুজ শস্য শ্যামল ছবি ছিল সবার কাছে কাঙ্খিত। লক্ষ কোটি মানুষ বছর জুড়ে হাসবে প্রশান্তির হাসি কিন্তু এমন প্রত্যাশায় ২০১৪ সালের শুরুটাতেই আগুন জ্বেলে দেয় সহিংস রাজনীতি।

বিএনপি-জামাতের অবরোধ আর পেট্রোল বোমায় বছরের শুরুটা ছিল ভয় আতংক আর ভোগান্তির। সৃষ্টি হয় নিরাপত্তাহীনতার নতুন এক বলয়। কিন্তু কেন?

বিশিষ্টজন ড. আকবর আলি খান বলেন, গণতান্ত্রিক চর্চ্চার অনুপস্থিতিই এর কারণ।

দুই বছর আগে ঋণ দেয়া থেকে বিশ্বব্যাংক যখন মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল তখনো বাংলাদেশের মানুষের কাছে পদ্মাসেতু নির্মাণ ছিল স্বপ্নের মতো। কিন্তু গত ১২ ডিসেম্বর যখন এ বিশাল কর্মযজ্ঞের উদ্বোধন হলো তখন বিস্ময়-আনন্দে দেশ অভিভূত।

প্রায় ৫০ বছর আগের উদ্যোগ পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্যদিয়ে আন্তর্জাতিক বিশ্বকে বাংলাদেশ তার সক্ষমতা জানিয়ে দিল। এমন শুভক্ষণের রেশ নিয়েই হাঁটতে শুরু করলো ২০১৬।

তবে ভিন্ন মতাদর্শীদের ওপর হামলা বিদেশি হত্যাকাণ্ড আর ব্লগার হত্যাকাণ্ডের ঘটনা দেশের মানুষের নিরাপত্তা বোধকে শংকায় ফেলে দিয়েছে। খুনিদের সবাইকে আইনের আওতায় আনতে না পারাটাই সরকারের ব্যর্থতা হিসেবেই দেখছেন নাগরিকরা।

মানবপাচার রোধ আর বৈধপথে জনশক্তি রপ্তানিতে সরকারের ব্যর্থতা হিসেবে উঠে এসেছে বিশিষ্টজনদের মূল্যায়নে।

অন্যদিকে সিলেটে শিশু রাজনকে পিটিয়ে হত্যা খুলনায় শিশু রাকিব হত্যা দেশবাসীকে নাড়া দিয়েছিল। সবচেয়ে কম সময়ে পালিয়ে যাওয়া অপরাধীদের ধরে এনে বিচার শেষ করার ঘটনাও ছিল নজিরবিহীন।

আর এক সপ্তাহেরও কম ব্যবধানে দুই বিদেশি হত্যাকাণ্ডে আতংকের ছিল পবিত্র আশুরার দিনে পুরান ঢাকায় হোসনী দালানে অর্তকিত বোমা হামলা। আর এসব ঘটনায় আইএস এর দায় স্বীকার সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেছে।

এ বছরে যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামান, আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ ও সালাউদ্দীন কাদের চৌধুরীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের মধ্যদিয়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ।

তবে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৬ না ১৮ এ আলোচনাও ছিল বছর জুড়ে। শেষ পর্যন্ত বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের খসড়ায় ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের বিয়ে দেয়ার বিশেষ বিধানই বহাল রয়েছে।

তবুও এবছর যে সাফল্য সে অর্জনকে ভুলে যাওয়ার উপায় নেই। মিলেছে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বাংলাদেশের নীতি-কৌশলের স্বীকৃতি, উন্নতি ঘটছে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও তথ্য-প্রযুক্তি খাতে। বিশ্বসংস্থার সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশের সাফল্যের স্বীকৃতির পাশাপাশি মানুষের মাথাপিছু আয় আর গড় আয়ু বাড়ার সুখবরতো রয়েছেই।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

শ্রীলংকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নয়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট

অগ্নি-ঝুঁকি: রাজধানী ঘিরে যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পরামর্শ

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় পরিবহন মালিক-চালকদের দায়বদ্ধের তাগিদ

অপরিকল্পিত নগরায়ন, আইন না মানার প্রবণতা সব মিলিয়েই ঝুঁকিতে রাজধানীবাসী

পাট থেকে তৈরি হচ্ছে লেমিনেটেড ব্যাগ-স্লাইবার ক্যানশিট

পাইলটকে ফিরে দেয়া মানেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার শেষ নয়

সৌদির সঙ্গে সামরিক সমঝোতা স্মারক চুক্তি পররাষ্ট্রনীতির পরিপন্থি

শেখ হাসিনা বিকল্পহীন, বললেন বিশ্লেষকরা

সর্বশেষ খবর

এফআর টাওয়ারের মালিক ফারুক গ্রেফতার

খুলনার সঙ্গে সারা দেশের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

স্বামীকে মারধর করে স্ত্রীকে ৩ জন মিলে ধর্ষণ

রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনা সদস্য নিহত