বিশেষ প্রতিবেদন

রবিবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০১৫ (১৯:১৩)

দেশজুড়ে সহিংসতা, রাজধানীর বাইরে সাড়ে ৫০০ বেশি মামলা

সহিংসতা

অবরোধে গাড়িতে পেট্রোলবোমা ও বিভিন্ন নাশকতায় জড়িতদের ধরতে দেশজুড়ে বিশেষ অভিযান শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর মাসজুড়ে চলা সহিংসতায় রাজধানীর বাইরে মামলা হয়েছে সাড়ে ৫০০ বেশি। এসব মামলায় আসামির সংখ্যা ৩০ হাজারেরও বেশি। আর গ্রেপ্তার হওয়া ৭ হাজারেরও বেশি আসামির মধ্যে অধিকাংশই বিএনপি জামাতের নেতাকর্মী।

পুরো জানুয়ারি মাস জুড়ে দেশজুড়ে সহিংসতায় রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন থানায় মামলা হয়েছে সাড়ে পাঁচশো।

এরমধ্যে রাজধানী ছাড়া ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন জেলায় মামলা হয়েছে ৫৭ টি। এসব মামলায় আসামির সংখ্যা ১ হাজার ২শ ৩৬ জন। গ্রেপ্তার হয়েছে ২৬৯ জন। যাদের মধ্যে বিএনপি জামাতের নেতাকর্মীর সংখ্যাই বেশি।

এরমধ্যে গ্রেপ্তার হওয়া উল্লেখযোগ্য আসামিরা হলেন:

০১. নারায়ণগঞ্জ নগর বিএনপির সভাপতি এ টি এম কামাল, সহ-সভাপতি সুরুজ জামাল,

০২. নরসিংদী জেলা জামাতের আমীর আব্দুস ছাত্তার।

খুলনা বিভাগে ৫৭ টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা সাহারুজ্জামান মোর্তজাসহ আসামির সংখ্যা আড়াইহাজারেরও বেশি। এদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি বিএনপি জামাত নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিএনপি জামাত নেতাকর্মীরা হলেন:

০১. বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুব, যশোর জেলা বিএনপির সহ সভাপতি রফিকুর রহমান।

০২. নড়াইল জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র জুলফিকার আলী।

০৩. ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এনামুল কবির মুকুল।

০৪. মাগুড়া জেলা ছাত্রদলের সভাপতি কবির হোসেন ও যুবদলের সভাপতি ওয়াসিকুর রহমান।

জানুয়ারি মাসজুড়ে সহিংসতায় রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে নয় হাজারেরও বেশি জনকে আসামি করে ৮১ টি মামলা হয়েছে। আর এসব মামলায় প্রায় ১৪০০ বিএনপি জামাত নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিএনপি জামাত নেতারা হলেন, রাজশাহী জেলা বিএনপির সভাপতি নাদিম মোস্তফা ও জামাতের বোমা বিশেষজ্ঞ কালু। সিরাজগঞ্জ জেলা শিবিরের সভাপতি মো. সোলায়মান।

গাইবান্ধা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গাউসুল আজম ডলার।

বরিশাল বিভাগে নাশকতার অভিযোগে করা ৪৩ টি মামলায় আসামির সংখ্যা প্রায় দুই হাজার। এদের মধ্যে গ্রেপ্তার হয়েছে ২১৯ জন বিএনপি জামাত নেতাকর্মী। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিএনপি জামাত নেতা হলেন, ছাত্রশিবিরের বরিশাল মহানগর সভাপতি রহমতুল্লাহ শিহাব। সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র শরীফ তাসলিমা কালাম।

চট্টগ্রাম বিভাগে মামলা হয়েছে ২৪৬ টি। এসব মামলায় আসামির সংখ্যা দশ হাজারেরও বেশি। যাদের বেশিরভাগেরই নাম উল্লেখ করা হয় নি। আর এসব মামলায় ২৩৫০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে যারমধ্যে ১০৬৬ জনই বিএনপি জামাতের নেতাকর্মী।

এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য বিএনপি জামাত নেতারা হলেন,

০১. বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও নোয়াখালী জেলা বিএনপির সভাপতি মো. শাহজাহান।

০২. চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির আহবায়ক লায়ন আসলাম চৌধুরী।

০৩. ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম, জেলা জামাতের সেক্রেটারি ইয়াকুব আলী।

সিলেট বিভাগে প্রায় আড়াইহাজার জনকে আসামি করে ৪৮টি মামলা হয়েছে। এরমধ্যে গ্রেপ্তার হয়েছে ৬৮০ জন। এদের মধ্যে বিএনপি জামাতের নেতাকর্মীই বেশি। গ্রেপ্তার হওয়া উল্লেখযোগ্য আসামিরা হলেন,

০১. সিলেট মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডক্টর শাহরিয়ার হোসেন।

০২. মহানগর জামাতের আমীর এহসানুল মাহবুব জুবায়ের।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

শ্রীলংকায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নয়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট

অগ্নি-ঝুঁকি: রাজধানী ঘিরে যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পরামর্শ

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় পরিবহন মালিক-চালকদের দায়বদ্ধের তাগিদ

অপরিকল্পিত নগরায়ন, আইন না মানার প্রবণতা সব মিলিয়েই ঝুঁকিতে রাজধানীবাসী

পাট থেকে তৈরি হচ্ছে লেমিনেটেড ব্যাগ-স্লাইবার ক্যানশিট

পাইলটকে ফিরে দেয়া মানেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার শেষ নয়

সৌদির সঙ্গে সামরিক সমঝোতা স্মারক চুক্তি পররাষ্ট্রনীতির পরিপন্থি

শেখ হাসিনা বিকল্পহীন, বললেন বিশ্লেষকরা

সর্বশেষ খবর

রাজবাড়ীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৮ মামলার আসামি নিহত

শোভন-রাব্বানীর বহিষ্কার প্রমাণ করে দুর্নীতি কি ভয়াবহ আকারে চলছে: ফখরুল

বাড়ির ওপর প্লেন বিধ্বস্ত; কলম্বিয়ায় ৭ জনের প্রাণহানি

পাঁচ ক্যামেরায় চমক লাগানো Huawei Nova 5T