বিজ্ঞান-প্রযুক্তি

শনিবার, ০৮ মে, ২০২১ (১৪:০০)

নভোযানের ধ্বংসাবশেষ পতনে খুব ক্ষতি হবে না, আশা চীনের

নভোযানের ধ্বংসাবশেষ পতনে খুব ক্ষতি হবে না, আশা চীনের

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে চীনের নভোযান লংমার্চ ফাইভ বির বেশ বড় একটি বাতিল অংশ। এর জেরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উদ্বেগ তৈরি হলেও চীনের সরকার আশা করছে, ধ্বংসাবশেষটি যেখানে পড়বে, সেখানে খুব বেশি ক্ষয়ক্ষতি হবে না।

শুক্রবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াঙ ওয়েনবিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘ বিষয়টি উদ্বেগজনক, কোনো সন্দেহ নেই। তবে বিজ্ঞানীরা বলছেন, ধ্বংসাবশেষটি যে জায়গায় পড়বে, সেখানে ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা খুবই কম।’

পরে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য সমর্থন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সদর দফতর পেন্টাগনও। সেখানকার মুখপাত্র মাইক হাওয়ার্ড যুক্তরাষ্ট্রের সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা আশা করছি, নভোযানের বাতিল অংশটির পতনের ফলে তেমন ক্ষয়ক্ষতি হবে না।’

নভোযানটির ধ্বংসাবশেষ জনবহুল অঞ্চলে বিধ্বস্ত হতে পারে বলে গত কয়েকদিন ধরে শঙ্কা প্রকাশ করে আসছে চীনের অন্যতম রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস। দেশটির মহাকাশ বিশেষজ্ঞ সং ঝংপিংয়ের বরাত দিয়ে গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, চীনের স্পেস মনিটরিং নেটওয়ার্ক এ বিষয়ে নিবিড়ভাবে নজর রাখবে এবং কোথাও কোন ক্ষতি হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

পৃথিবীর কক্ষপথে নিজেদের মহাকাশ স্টেশন স্থাপণের উদ্যোগ নিয়েছে চীন। সেই মহাকাশ স্টেশনের নামও ইতোমধ্যে ঠিক করা হয়েছে- তিয়ানহে মহাকাশ স্টেশন। সেই মহাকাশ স্টেশনের একটি মডিউল (অংশ) পরীক্ষামূলকভাবে পৃথিবীর কক্ষপথে স্থাপন করতে গত ২৮ এপ্রিল ওয়েনচ্যাং স্পেস সেন্টার থেকে ‘লংমার্চ ৫ বি’ নভোযানটি উৎক্ষেপণ করেছিল চীনের মহাকাশ সংস্থা।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংক্রান্ত সংবাদমাধ্যম স্পেসনিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, নভোযানটি সফলভাবে মহাকাশ গবেষনা স্টেশনের মডিউলটিকে স্থাপনে সক্ষম হলেও নিজেকে আর গ্রাউন্ড স্টেশনের নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেনি; ঘুরে চলেছে পৃথিবীর কক্ষপথে।

তবে সেটির অভ্যন্তরের ১০০ ফুট লম্বা অভ্যন্তরীণ একটি অংশ, যার ওজন প্রায় এক টন, মূল নভোযান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে দিন কয়েকের মধ্যেই পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে ঢুকে পড়তে চলেছে। রাডারে তা ধরাও পড়েছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নভোযানের ধবংসাবশেষটি এখন পৃথিবী প্রদক্ষিণ করছে এবং এটি বায়ুমণ্ডলের নিম্ন স্তরে ঢুকছে। যার মানে হল, এটি পৃথিবীর চারিদিকে বৃত্তাকারে ঘুরতে ঘুরতে নীচের দিকে নেমে আসছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে আরো বলা হয়েছে, ধ্বংসাবশেষের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তবে সেটিকে গোলা ছুড়ে নীচে নামিয়ে আনার কোন পরিকল্পনা আপাতত যুক্তরাষ্ট্রের নেই।

মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন বৃহস্পতিবার বিবিসিকে বলেছিলেন, ‘আমরা আশা করছি যে এটি এমন জায়গায় ধসে পড়বে যেখানে কারও কোন ক্ষতি হবে না। আমাদের ধারণা, ধ্বংসাবশেষটি সমুদ্র বা এমন কোনো এক জায়গায় পড়বে।’

পাশাপাশি চীনকে কটাক্ষ করে অস্টিন বলেছিলেন, ‘ যেকোন পরিকল্পনা এবং অভিযান পরিচালনার সময় এই ব্যাপারগুলো বিবেচনায় আনা ও সতর্কতা মেনে চলা উচিত।’

একই কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞান (অ্যাস্ট্রোফিজিক্স) বিভাগের অধ্যাপক জোনথন ম্যাগডুয়েল। ফ্রান্সের বার্তাসংস্থা এএফপিকে তিনি বলেন, ‘ঘণ্টায় একশ কিলোমিটার বেগে এক টন ওজনের কোনো বস্তু পৃথিবীর ওপর আছড়ে পড়া মোটেও ভালো কোনো ব্যাপার নয়। চীনের উচিত প্রচলিত নকশা ও প্রযুক্তি বাদ দিয়ে আধুনিক ও সুরক্ষিত প্রযুক্তিতে নভোযান প্রস্তুত করা।’

২০২০ সালের মে মাসে চীনের আর একটি নভোযানে একই ঘটনা ঘটেছিল। সেবার পশ্চিম আফ্রিকার আইভরি কোস্টে গ্রামীন এলাকায় আছড়ে পড়েছিল ওই নভোযানটির ধ্বংসাবশেষ। বাতিল ওই ধ্বংসাবশেষের মধ্যে মধ্যে ১২ মিটার (৩৯ ফুট) দীর্ঘ একটি ধাতব পাইপও ছিল। তবে ওই ঘটনায় কেউ নিহত বা আহত হননি।

এছাড়াও রয়েছে

গুগল স্ট্রিট ভিউ ফুটেজে মৃত ব্যক্তির ছবি!

বন্ধ হবে না পুরাতন অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

জিমেইলে পেইড আপগ্রেডের তাগাদা

নতুন ৫ বিলে যুক্তরাষ্ট্রে টেক জায়ান্টদের প্রভাব খর্ব

চিপ সংকটে ফোন উৎপাদন স্থগিত করল স্যামসাং

মাইক্রোসফট টিমে স্বয়ংক্রিয় শব্দ সম্পাদনা সুবিধা

স্মার্টফোনে সময় নষ্ট? নিয়ন্ত্রণ যেভাবে

ভারতীয় বাজারে সেরা দশ ফোনের ছয়টিই শাওমির

আরও খবর

  • রামেক করোনা ইউনিটে আরও ১০ জনের মৃত্যু

    রামেক করোনা ইউনিটে আরও ১০ জনের মৃত্যু

  • সফল অস্ত্রোপচারের পর হাসপাতাল ছাড়লেন এরিকসেন

    সফল অস্ত্রোপচারের পর হাসপাতাল ছাড়লেন এরিকসেন

  • রাজধানীতে বাসচাপায় মা নিহত, মেয়ে আহত

    রাজধানীতে বাসচাপায় মা নিহত, মেয়ে আহত

  • বগুড়ায় বাস-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ৩, আহত ১৫

    বগুড়ায় বাস-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ৩, আহত ১৫

সর্বশেষ খবর

ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে ‘কটূক্তি’, নোবিপ্রবির কর্মকর্তা আটক

দেড় মাসের মধ্যে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০৫৭

বিচারপতি ইব্রাহিম রাইসি ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত

সাইবেরিয়ায় বিমান বিধ্বস্ত: নিহত ৭