রাজনীতি

মঙ্গলবার, ০১ জুলাই, ২০১৪ (২০:৪৬)

অমীমাংসিত বিষয়গুলো নিষ্পত্তিতে ব্যর্থ ভারত নয়, আ’লীগই দায়ী

খালেদা জিয়া

বাংলাদেশের জনগণ আন্তরিকভাবেই ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায়— জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের ঢাকা সফরের পরপরই ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

অমীমাংসিত বিষয়গুলোর নিষ্পত্তিতে ব্যর্থতার জন্য ভারত নয়, আওয়ামী লীগকে দায়ী বলে এ সময় মন্তব্য করেন তিনি।

ভারতের নতুন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দুই দফায় চিঠি দিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়েছে বলেও জানান সাবেক বিরোধীদলীয় এ নেতা।

তিনি বলেন, ভারতের বিগত কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকারকে আওয়ামী লীগ নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করেছে। কোনো রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তির স্বার্থকে গুরুত্ব দিয়ে নয়, দুই দেশের জনগণের স্বার্থের ভিত্তিতে এ সম্পর্ক হওয়া উচিত। এরজন্য আমি কাউকে দায়ী করছি না, তবে আওয়ামী লীগ এটা করতে তাদের বাধ্য করেছে এবং ভারত সরকার তাদের সমর্থন দিয়েছে।

নির্বাচনের আগে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিংয়ের ঢাকা সফরের কথাও তুলে ধরে খালেদা জিয়া বলেন, আমরা কেন নির্বাচনে অংশ নিতে পারছিলাম না তা আমরা তাকে বলেছিলাম। আমরা একটি রাজনৈতিক দল, কোনো গোপন সংগঠন নই। নির্বাচন স্বচ্ছ না হলে তাতে অংশ নেয়ার কোনো কারণ নেই।

সাক্ষাতকারে খালেদা জিয়া বলেন, এরশাদ এখনো বলছেন যে, তিনি নির্বাচনে যাননি। তাকে জোর করে নির্বাচনে রাখা হয়েছে। তিনি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেছিলেন, যা গ্রহণ করা হয়নি। তাই জনমনে ধারনা রয়েছে যে, ভারত সরকারের একটি ভূমিকা ছিল (৫ জানুয়ারির নির্বাচনে)।

তিনি এইচএম এরশাদকে নির্বাচনে অংশ নিতে আহ্বান জানিয়ে বলেছিলেন, অন্যথায় নির্বাচন হবে না এবং মৌলবাদীরা ক্ষমতায় আসবে, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন খালেদা।

ভারতের বিগত কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকারের সঙ্গে নতুন বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের নীতিতে কোনো তফাৎ আছে কি না- সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো সিদ্ধান্তে আসার মতো সময় এখনো হয়নি বলে মনে করেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

অবশ্য, কিছুটা পরিবর্তনই ভালো কিছুর আশার সঞ্চার করেছে। আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ হলো-আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ক্ষেত্রে কী ঘটলো এবং সর্বোপরি এ অঞ্চলে কী হল?’ তার (মোদি) সরকার কোনো বিশেষ রাজনৈতিক দল নয়, প্রতিবেশী দেশের জনগণের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরির ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে, এটা একটা উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন বলেন খালেদা জিয়া।

কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকার আমলে বাংলাদেশের স্বার্থ সুরক্ষায় আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার ‘ব্যর্থ’ হয়েছে এবং এর জন্য সরকারের ‘সদিচ্ছার অভাব’ দায়ী বলে মনে করেন খালেদা জিয়া।

এটাই বাংলাদেশের জনগণের ধারণা। প্রকৃতপক্ষে অমীমাংসিত বিষয়গুলোর নিষ্পত্তির মাধ্যমে বাংলাদেশের জনগণের স্বার্থরক্ষায় আমাদের সরকারের ব্যর্থতা বা সদিচ্ছার অভাব দায়ী, যা বড় সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে।

দুই দফায় প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে ভারতের সাবেক তিন প্রধানমন্ত্রী পি ভি নরসিমা রাও, অটল বিহারি বাজপাই ও মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে কাজ করেছেন খালেদা জিয়া।

কিন্তু অমীমাংসিত বিভিন্ন বিষয় বিশেষত ১৯৭৪ সালে স্বাক্ষরিত স্থল সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নে কোনো অগ্রগতি সে সময় দেখা যায়নি।

অবশ্য খালেদা জিয়া মনে করেন, পার্লামেন্টে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় মোদি সরকার সেটা পারবে, যা আগের সরকার পারেনি।

বিএনপি ক্ষমতায় আসলে ভারতবিরোধী সন্ত্রাসী তৎপরতা বাড়বে বলে যে আশঙ্কা রয়েছে তাকে ‘ভ্রান্ত ধারণা’ বলে উড়িয়ে দেন খালেদা।

বিএনপি সম্পর্কে নেতিবাচক ভাবমূর্তি তৈরি করতে এটা পরিকল্পিত অপপ্রচার। ভারত বা অন্য কোনো প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সীমান্ত ব্যবহার না করতে দেয়ার ব্যাপারে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

ভারতে নির্বাচনী প্রচারে ‘অবৈধ অভিবাসী’ নিয়ে কথা হয়েছে বলে শুনলেও তার সঙ্গে সুষমা স্বরাজের বৈঠকে এ বিষয়ে কোনো কথা হয়নি বলে জানান খালেদা জিয়া।

তিনি বলেন, ভোটে জিততে নির্বাচনের সময় মানুষ অনেক কথা বলেন-আমরাও অনেক কিছু বলি-কিন্তু তার অর্থ এই নয় যে, সব কিছুই বাস্তবায়িত হবে।

আমি মনে করি না, অনেক বাংলাদেশি ভারতে গেছেন, বরং তারা সেখানে বেশ ভালোই আছেন। জোটসঙ্গী জামাতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক নিয়েও কথা বলেন দলটির চেয়ারপারসন।

তাদের সঙ্গে আদর্শিক কোনো ঐক্য নেই। এটা নির্বাচনী জোট। তারা কিছু এলাকা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে, আমরা কিছু এলাকা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করি। এর বাইরে কিছু নেই। তারা তাদের আদর্শ অনুযায়ী চলে, আমরা আমাদের আদর্শ অনুযায়ী চলি।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভা রাত ৮টায়

খালেদা জিয়ার প্যারোলের সিদ্ধান্ত তার পরিবারের: মির্জা ফখরুল

নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করায় মানুষ ভোটবিমুখ : মঈন খান

ঢাকা-১০ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শফিউল

বিএনপি থেকে সিনহার পদত্যাগ

সিটি নির্বাচনে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আ’লীগ সমর্থিত কর্মকর্তাদের: ফখরুল

রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

আ’লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে সাঈদ খোকন

সর্বশেষ খবর

বিকেলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক

করোনাভাইরাস: পুলিশ তুলে নিয়ে গেলে আর খোঁজ মিলছে না

ভারতকে গুঁড়িয়ে দাপটে ছুটছে নিউজিল্যান্ড

গুগল ডকে এলো 'প্রিডেক্টিভ টাইপিং' ফিচার