জাতীয়

রবিবার, ০৫ এপ্রিল, ২০২০ (১৮:১৫)

৪ কার্যক্রম নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে সংকটে বাংলাদেশের অর্থনীতির ওপর সম্ভাব্য নেতিবাচক প্রভাবগুলো তুলে ধরে এ থেকে উত্তরণে সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের আওতা বাড়ানোসহ চারটি কার্যক্রম নিয়ে কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সকালে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাৎক্ষণিক, স্বল্পমেয়াদী, মধ্যমেয়দী ও দীর্ঘমেয়াদী- এই চারভাগে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে চারটি কার্যক্রম নিয়ে সরকারের কর্মপরিকল্পনা সাজানো হয়েছে। এই চারটি কার্যক্রম হবে সরকারি ব্যয় বৃদ্ধি করা, আর্থিক সহায়তার প্যাকেজ, সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের আওতা বৃদ্ধি করা এবং বাজারে মুদ্রা সরবরাহ বৃদ্ধি করা।

প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ৪টি কার্যক্রম হলো:

১. সরকারি ব্যয় বৃদ্ধি করা: সরকরি ব্যয়ের ক্ষেত্রে ‘কর্মসৃজনকে’মূলত প্রাধান্য দেওয়া হবে। বিদেশ ভ্রমণ এবং বিলাসী ব্যয় নিরুৎসাহিত করা হবে। আমাদের ঋণের স্থিতি-জিডিপি’র অনুপাত অত্যন্ত কম (৩৪ শতাংশ) বিধায় অধিকতর সরকারি ব্যয় সামষ্টিক অর্থনীতির ওপর কোনো চাপ সৃষ্টি করবে না।

২. আর্থিক সহায়তার প্যাকেজ: ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে স্বল্প সুদে ঋণ সুবিধা প্রবর্তন করা হবে। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড পুনরুজ্জীবিত করা, শ্রমিক-কর্মচারীদের কাজে বহাল রাখা এবং উদ্যোক্তাদের প্রতিযোগিতার সক্ষমতা অক্ষুন্ন রাখাই হলো আর্থিক সহায়তা প্যাকেজের মূল উদ্দেশ্য।

৩. সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের আওতা বৃদ্ধি: দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী জনগণ, দিনমজুর এবং অপ্রাতিষ্ঠানিক কাজে নিয়োজিত জনসাধারণের মৌলিক চাহিদা পূরণে বিদ্যমান সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের আওতা বাড়ানো।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কার্যক্রমগুলো হলো: বিনামূল্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ, ১০ টাকা কেজি দরে চাউল বিক্রয়, লক্ষ্যভিত্তিক জনগোষ্ঠির মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ, ‘বয়স্ক ভাতা’এবং ‘বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলাদের জন্য ভাতা’ কর্মসূচির আওতা সর্বাধিক দারিদ্র্যপ্রবণ ১০০টি উপজেলায় শতভাগে উন্নীত করা এবং জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গৃহীত অন্যতম কার্যক্রম গৃহহীন মানুষদের জন্য গৃহ নির্মাণ কর্মসূচি দ্রুত বাস্তবায়ন করা ইত্যাদি।

৪. মুদ্রা সরবরাহ বৃদ্ধি করা: অর্থনীতির বিরূপ প্রভাব উত্তরণে মুদ্রা সরবরাহ বৃদ্ধি করা অত্যন্ত জরুরি। বাংলাদেশ ব্যাংক ইতোমধ্যে সিআরআর এবং রেপোর হার কমিয়ে মুদ্রা সরবরাহ বাড়ানোর ব্যবস্থা নেওয়া, যা আগামীতেও প্রয়োজন অনুযায়ী অব্যাহত থাকবে। তবে এ ক্ষেত্রে আমাদের লক্ষ্য থাকবে যেনো মুদ্রা সরবরাহজনিত কারণে মুদ্রাস্ফীতি না ঘটে।/সমকাল

এছাড়াও রয়েছে

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ২৬৯৫, মৃত্যু ৩৭

৩ বছরে একজন রোহিঙ্গাও ফেরত নেয়নি মিয়ানমার: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নাসিম আইসিইউতে,শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল

মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন আরও ১২৫৬ জন

চেয়ারম্যানসহ আরও ১১ জনপ্রতিনিধিকে বরখাস্ত

একনেকে ১৬ হাজার কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন

গ্লোবাল ভ্যাকসিন সামিটে যোগ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

দেশে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ২৯১১, মৃত্যু ৩৭

আরও খবর

  • মেয়র আরিফের স্ত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

    মেয়র আরিফের স্ত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

  • ভারতের লাদাখে ঢুকে পড়েছে চীনা বাহিনী!

    ভারতের লাদাখে ঢুকে পড়েছে চীনা বাহিনী!

  • ‘কৃষ ফোর’-এ দীপিকাই হচ্ছেন হৃতিকের নায়িকা?

    ‘কৃষ ফোর’-এ দীপিকাই হচ্ছেন হৃতিকের নায়িকা?

  • চট্টগ্রামে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ২০৬

    চট্টগ্রামে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ২০৬

সর্বশেষ খবর

সরকার মানুষ বাঁচানোর জন্য কাজ করেনি: রিজভী

ইউনাইটেডের করোনা ইউনিটে আগুনে পুড়ে ৫ রোগীর মৃত্যুতে মামলা

প্রধান বিচারপতি সিএমএইচে ভর্তি

বিক্ষোভের কারণে ওয়াশিংটনে ১৬০০ সেনা সদস্য পাঠিয়েছে পেন্টাগন