জাতীয়

বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ (১৫:৩১)

রানা প্লাজা ট্র্যাজেডি: মামলার নেই কোনো অগ্রগতি

রানা প্লাজা ট্র্যাজেডি: মামলার নেই কোনো অগ্রগতি

সাভারের রানা প্লাজা ট্র্যাজেডির ছয় বছর আজ-বুধবার, এখনো সেই বিভীষিকাময় দুর্ঘটনার ক্ষত বয়ে বেড়াচ্ছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

ভয়াবহ সেই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান হাজারো শ্রমিক। অঙ্গহানি আর দুঃসহ যন্ত্রণা নিয়ে বেঁচে আছেন প্রায় দুই হাজার শ্রমিক। তাদের অধিকাংশই এখনো অসহায় জীবন যাপন করছেন। ভবন ধসের ঘটনায় দায়ের করা হত্যা, নকশা জালিয়াতি ও দুর্নীতির তিনটি মামলার নেই কোনো অগ্রগতি।

রানা প্লাজার ভবন ধস। ছয় বছর পেড়িয়ে গেলেও সবুজ ঘাস আর কচুরিপানায় আবৃত শ্রমিকদের হাহাকার যেন আজও কথা বলে। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিলের হাজারো শ্রমিককের প্রাণ ও আহত শ্রমিককের আহাজারি ভুলে কেউ কেউ স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন। বাঁচার তাগিদে শুরু করেছেন বিভিন্ন কাজ। তবে এখনো অধিকাংশ শ্রমিক শারীরিক অক্ষমতা নিয়ে আজও অনিশ্চিত জীবন কাটাচ্ছেন। সে সময় নানা দাবির মুখে হতাহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণসহ নানা আশ্বাস দেয়া হলেও তা এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। রানা প্লাজা ধসের জায়গায় শ্রমিক কল্যাণে বহুতল ভবনও নির্মাণ হয়নি। কোনো উদ্যোগই দৃশ্যমান নেই।

পুনর্বাসন ও সঠিক চিকিৎসার যে আশ্বাস দেয়া হয়েছিল তাও বাস্তবায়ন হয়নি।

এজন্য তাদের দাবি বাস্তবায়নের তাগিদ দিয়েছেন বাংলাদেশ পোশাক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশনের সভাপতি তুহিন খাঁন।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ট্র্যাজেডির ঘটনায় বেশ কয়েকটি মামলার মধ্যে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে পুলিশের মামলা, রাজউকের করা ইমারত আইন লঙ্ঘন ও নিহত এক শ্রমিকের স্ত্রীর দায়ের করা খুনের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ মামলার একটিরও নিষ্পত্তি হয়নি। এসব মামলায় ৩৯ আসামির মধ্যে রানা ছাড়া অন্যসব আসামি আছেন জামিনে। এসব মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির পাশাপাশি এ ধরণের দুর্ঘটনা প্রতিরোধে সরকারের আন্তরিকতা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে, সাভারে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে রানা প্লাজা ধসে নিহত শ্রমিকদের স্মরণ করছেন নিহতের স্বজন ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন। দিনটিকে স্মরণ করে রাত ১২টার পর জুরাইন কবরস্থানে নিহতদের কবর জিয়ারত ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন বিজিএমইএয়ের সভাপতি রুবানা হক।

বুধবার সকালে রানা প্লাজার দুর্ঘটনাস্থলে শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে নিহত শ্রমিকদের স্মরণ করে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন। নিহতদের পরিবারের সদস্য ও আহত শ্রমিকরাও সেখানে শ্রদ্ধা জানান। পরে রানা প্লাজার সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার ফাঁসির দাবি জানান শ্রমিকরা।

এদিকে, ১১ দফা দাবিতে মঙ্গলবার থেকে রানা প্লাজার সামনে আমরন অনশন কর্মসূচি পালন করছেন বেশ কয়েকজন শ্রমিক। অনশনে কয়েকজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

‘আলীগই গ্রেনেড হামলা মামলার তদন্তকে বাধাগ্রস্ত করেছিল’

প্রধানমন্ত্রী বিমানের‘গাংচিল’ উদ্বোধন করবেন আজ

কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়: বাংলাদেশ

ভয়াল একুশে আগস্ট আজ

শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ মোদীর

একুশ আগস্টের মাস্টারমাইন্ড তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তি হওয়া উচিত : ওবায়দুল কাদের

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর ঢাকায়

সর্বশেষ খবর

‘আলীগই গ্রেনেড হামলা মামলার তদন্তকে বাধাগ্রস্ত করেছিল’

মোদির সঙ্গে আর কোনো আলোচনা নয়: ইমরান খান

ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরম গ্রেপ্তার

সোনারগাঁওয়ে ইমামের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার