জেলার খবর

কক্সবাজারে বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

কক্সবাজারে পেকুয়া ও কুতুবদিয়ায় বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো দুইজন।

রোববার (১৯ জুন) দুপুর ১২টার দিকে কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরং ইউনিয়নে চোল্লা পাড়ায় এবং দুপুর ১টার দিকে পেকুয়ার মগনামা ইউপির শরৎঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মগনামার স্থানীয় চেয়ারম্যান এবং কুতুবদিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. শাহীন আব্দুর রহমান গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন পেকুয়ার রমজান আলী (৪৫)। তিনি একই এলাকার মোহাম্মদ হোছাইনের ছেলে। কুতুবদিয়ায় মারা যাওয়ারা হলেন জেলে ইমতিয়াজ হোসেন (২৫) ও মো. করিম (৩৫)। তারা উপজেলার উত্তর ধুরং ইউনিয়নের বাসিন্দা ছিলেন।

বজ্রপাতে আক্কাস ও রমিজ নামে আরো দুই জেলে আহত হয়েছেন।

আহতদের বরাত দিয়ে উত্তর ধুরংয়ের স্থানীয়রা বলেন, ‘সাগরে মাছ আহরণ বন্ধ থাকায় ট্রলার সংস্কারের কাজ করছিলেন জেলেরা। দুপুর ১২টার দিকে বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হলে ট্রলারে থাকা চার মাঝি আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে কুতুবদিয়া হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক ইমতিয়াজ ও করিমকে মৃত ঘোষণা করেন।’

হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. শাহীন আব্দুর রহমান বলেন, ‘বজ্রপাতে গুরুতর আহত চারজনকে হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে করিম ও ইমতিয়াজ নামে দুইজন মারা গেছেন।’

পেকুয়ার মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুছ চৌধুরী বলেন, 'রমজান আলী দুপুরে মাছ ধরতে বিলে যান। এ সময় বজ্রপাত হলে রমজান আলী ঘটনাস্থলেই মারা যান।'

দেশটিভি/এসএফএইচ
দেশ-বিদেশের সকল তাৎক্ষণিক সংবাদ, দেশ টিভির জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখতে, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল:

এছাড়াও রয়েছে

করতোয়ায় নৌকাডুবি: আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার, মৃত বেড়ে ৬৯

লিনডে বাংলাদেশের এমডি সুজিত পাইয়ের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৮

ভৈরবে বাসচাপায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত

ফের ঝুমন দাসের জামিন নামঞ্জুর

একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক রণেশ মৈত্র আর নেই

'মাকে চিনতে কোনো কিছুর প্রয়োজন হয় না'

উখিয়ার গভীর বন থেকে অস্ত্র ও ড্রেজার মেশিন উদ্ধার

সর্বশেষ খবর

দেশ একধরনের নষ্ট রাজনীতির দুষ্টচর্চা ছিল, এখনো আছে: বেনজীর

ফেসবুককে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে: অ্যামনেস্টি

অং সান সুচির আরও ৩ বছরের কারাদণ্ড

র‍্যাবের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান পরিবর্তন হয়নি