লাইফস্টাইল

আসল চামড়াজাত পণ্য যেভাবে চিনবেন

চামড়াজাত পণ্য
চামড়াজাত পণ্য

বাংলাদেশসহ যেকোনো দেশেই চামড়াজাত দ্রব্যের চাহিদা অনেক। বাংলাদেশে চামড়াজাত পণ্যের মধ্যে জুতা, স্যান্ডেল, ব্যাগ, জ্যাকেট, টুপি, বেল্ট, ডায়েরির কভার ইত্যাদি বেশি চোখে পড়ে। এসব পণ্যের বিশ্ব বাজারের আকার প্রায় ২২ হাজার কোটি ডলার।

তাই বাংলাদেশ সরকার চাইলে এই খাতটি হতে পারে গার্মেন্টসের মতো সম্ভাবনাময়। তবে হতাশার বিষয় গেল কয়েকটি বছর বাংলাদেশে কাঁচা চামড়ার বাজারে ঝস নেমেছে। কোরবানীর ঈদে দেশে প্রচুর চামড়া তৈরি হয়। আগে এ সব চামড়া অনেক দামে বিক্রি হত। তবে গেল কয়েক বছর চামড়া বিক্রি না করে অনেকেই তা ফেলে দিতে দেখা গেছে। এই খাতকে আরও গুরুত্ব দিলে বিশ্ব বাজারে ঢুকতে পারবে বাংলাদেশ।

চামড়ার দাম কম হলেও দেশে চামড়াজাত পণ্যের দাম কিন্তু কম নয়। অনেক চড়া দামের পণ্য এখানে বিক্রি হতে দেখা যায়। তবে দেশের কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বেশি লাভের আশায় চামড়াজাত পণ্যের সঙ্গে রেক্সিনও ব্যবহার করে থাকেন। এতে করে পণ্যের মান যেমন নষ্ট হয়। তেমনি এটি ব্যবহার স্বাস্থ্যসম্মত নয়। কেননা রেক্সিনের তৈরি পণ্য ব্যবহারের কারণে ত্বকে চর্মরোগসহ নানা সংক্রমণ দেখা দেয়।

তাই বাজারে বা বিভিন্ন দোকানে যে চামড়াজাত পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে, তা আসল না নকল তা জানা জরুরু।

আজ আমরা আসল চামড়া চিনবেন কীভাবে তা নিয়ে আলোচনা করবো। আসল চামড়াজাত পণ্য কিনতে আপনাকে মোটা দাগে কিছু বিষয় জানতে হবে।

প্রাকৃতিকভাবেই চামড়ায় ফাইবার থাকে। যে কারণে চামড়ার তৈরি পণ্যে আঁচড় দিলেই সেই ফাইবার চোখে পড়বে। কিন্তু রেক্সিনের তৈরি পণ্যে তেমনটি হবে না। রেক্সিনে কোনো-না-কোনো ফেব্রিক ব্যবহার করে তার ওপর পলিমার দিয়ে কোটিং করা হয়। এ জন্য রেক্সিনের তৈরি পণ্যটি ওল্টালেই কাপড় বা নেটের আস্তরণ পাওয়া যায়। কিন্তু চামড়ার তৈরি পণ্য, যেমন: জুতা বা ব্যাগে দেখবেন এমন কোনো কিছু নেই।

চামড়ার তৈরি পণ্যে চকচকে ভাবটা একেবারেই কম। প্রাকৃতিকভাবেই চামড়া কখনো মসৃণ হয় না। যে কারণে চামড়ার তৈরি পণ্যের উপরিভাগে ছোটখাটো ত্রুটি দেখা যায়। অন্যদিকে কৃত্রিম হওয়ার কারণে রেক্সিনের পণ্য হয় নিখুঁত।

চামড়ার পুরুত্ব অনেক বেশি। যে কারণে চামড়ার তৈরি পণ্য বেশ পুরু বা মোটা হয়। কিন্তু রেক্সিনের পুরুত্ব অনেক কম।

আবার লাইটার জ্বালিয়েও চামড়াজাত পণ্য পরীক্ষা করা যায়। এ ক্ষেত্রে খেয়াল করবেন, চামড়া সহজে পুড়ে যাবে না। পণ্যটি রেক্সিনের হলে তা কুঁচকে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

এ ছাড়া আসল চামড়া চেনার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হলো স্পর্শ। আসল চামড়াজাত পণ্যে স্পর্শ করলে বা হালকা চাপ প্রয়োগ করলে ভাঁজ পড়বে। সেই সঙ্গে আসল চামড়ায় মিলবে প্রাকৃতিক এবং ভারী অনুভূতি।

দেশটিভি/এমএস
দেশ-বিদেশের সকল তাৎক্ষণিক সংবাদ, দেশ টিভির জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখতে, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল:

এছাড়াও রয়েছে

শিশুদের স্মৃতিশক্তি বাড়বে যেসব খাবারে

সকালে দেরিতে নাশতা, বাড়তে পারে ডায়াবেটিস

শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে ‘গুড প্যারেন্টিং’ জোরদারের তাগিদ

যেসব সবজি রক্তে ইউরিক অ্যাসিড বাড়ায়

যে সব ভুলে গোসলের সময় হতে পারে হার্ট অ্যাটাক

যা করবেন শিশুর ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ দেখলে

রোজ যতটা হাঁটলে ঝুঁকি কমবে হার্ট অ্যাটাকের

কর্মীদের মনোবল কমিয়ে দেয় বসের যে কথাগুলো

সর্বশেষ খবর

শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন মোস্তাফিজুর রহমান

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ইউল্যাব’ শিক্ষার্থীদের ফটোওয়াক

ভান্ডারিয়া ও মঠবাড়িয়ায় পৌর প্রশাসক নিয়োগ

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত