আন্তর্জাতিক

রবিবার, ২২ মার্চ, ২০২০ (১০:৫০)

করোনা ঠেকাতে স্মার্টফোনে ট্র্যাকিং করছে ৯ দেশ

করোনা ঠেকাতে স্মার্টফোনে ট্র্যাকিং করছে ৯ দেশ

স্মার্টফোন থেকে ডেটা নিয়ে জনগণের উপর নজরদারি করছে কয়েকটি দেশ। এর মাধ্যমে ভাইরাস কোথায় কোথায় ছড়াচ্ছে তা শনাক্ত করা হচ্ছে।

যেসব দেশ তাদের নাগরিকদের ফোন থেকে ডেটা নিচ্ছে তার একটি তালিকা তৈরি করেছে ডিজিটাল রাইটস গ্রুপ টপ১০ভিপিএন। এ তালিকায় রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান, ইসরাইল, সিঙ্গাপুর, তাইওয়ান, জার্মানি, ইতালি, বেলজিয়াম ও অস্ট্রিয়া।

দক্ষিণ কোরিয়া

দেশটির সরকার প্রতিটি বাসিন্দার ফোন ট্র্যাক করছে এবং ম্যাপ তৈরি করছে। এই ম্যাপ সবার জন্যই উন্মুক্ত। তাই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি কাদের কাদের সংস্পর্শে এসেছিলেন তা সবাই দেখতে পারছে।

এছাড়াও, ক্রেডিট কার্ডের রেকর্ড ও জিজ্ঞাসাবাদ করে বের করা হচ্ছে রোগী কোথায় কোথায় গিয়েছিলো। এসব তথ্যও মাপে সংযুক্ত করা হচ্ছে। এছাড়াও, সম্ভাব্য ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিদের কাছে সরকারের পক্ষ থেকে টেক্সট ম্যাসেজ পাঠিয়ে সতর্ক করা হচ্ছে।

ইরান

ব্যবহারকারীদের রিয়েল টাইম লোকেশন ডেটা সংগ্রহ করতে এসি১৯ নামের একটি অ্যাপ তৈরি করেছিল দেশটির সরকার। গত ৩ মার্চ সব নাগরিককে এই অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলা হয়।

করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত কিনা তা শনাক্তে অ্যাপটির মাধ্যমে কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর নেওয়ার ব্যবস্থা করেছিল ইরান সরকার। তবে পরিকল্পনা অনুযায়ী বাস্তবায়নে ব্যর্থ হয়ে প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় তারা।

ইসরাইল

প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ১৭ মার্চ জনগণের ফোন থেকে ডেটা নিতে একটি আইন পাস করেন। এতে করে কারো ফোন ট্র্যাক করতে আর কোর্ট অর্ডারের প্রয়োজন হবে না। তবে সংগৃহীত ডেটা ৩০ দিনের মধ্যে ডিলিট করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

সিঙ্গাপুর

কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং শনাক্তে ২০ মার্চ ট্রেস অলটুগেদার নামের একটি অ্যাপ উন্মোচন করে দেশটি। রোগীর ২ মিটার থেকে ৫ মিটার দূরত্বে থাকা ব্যক্তিদের অ্যাপটি শনাক্ত করবে। অ্যাপটি কাজ করবে ব্লুটুথের সহায়তায়।

তাইওয়ান

হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা কোনো ব্যক্তি ঘর ছেড়ে পালালেন কিনা তা শনাক্ত করতে তাইওয়ান চালু করেছে ইলেক্ট্রনিক ফেন্স নামের একটি অ্যাপ। কেউ ঘর ছেড়ে বের হলে সঙ্গে সঙ্গেই কর্তৃপক্ষ সতর্কবার্তা পেয়ে যাবে।

জার্মানি

কোন নাগরিক কোথায় যাচ্ছেন তা পর্যবেক্ষণ করতে সরকারি ইন্সটিটিউটকে তথ্য দেবে দেশটির প্রধান একটি টেলিকম কোম্পানি।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর ফোন ট্র্যাক করে যারা এই রোগীর সংস্পর্শে এসেছিলেন (কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং) তাদের শনাক্ত করা হচ্ছে।

ইতালি

করোনার আঘাতে সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত দেশ ইতালি। লোকেশন ডেটা নিতে তারা একটি টেলিকম কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করেছে।

পরিচয়হীনভাবে ফোনের ডেটা ট্র্যাক করছে বেলজিয়াম ও অস্ট্রিয়া। এখনো লোকেশন ডেটা না নিলেও বিষয়টি নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছে যুক্তরাজ্য।

এ ব্যাপারে ডিজিটাল রাইটস গ্রুপ টপ১০ভিপিএন এর প্রধান স্যামুয়েল উডহামস সতর্ক করে বলেছেন, এখন জরুরি অবস্থার কারণে বিভিন্ন দেশের সরকার এই ফোন ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যম নজরদারি করছে। ভবিষ্যতেও তারা এটা অব্যাহত রাখতে পারে।/ইন্টারনেট

এছাড়াও রয়েছে

চীনে বন্যায় ১৪১ প্রাণহানির শঙ্কা, সতর্কতা জারি

হঠাৎ ৭২ হাজার অত্যাধুনিক রাইফেল কিনছে ভারত

করোনাকালে প্রথম প্রকাশ্যে মাস্ক পরলেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রে একদিনেই ৬৬ হাজারের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত

দক্ষিণ আফ্রিকায় গির্জার নেতৃত্ব নিয়ে হামলা, নিহত ৫

যুক্তরাষ্ট্রে আবারও সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড

সিঙ্গাপুরে ক্ষমতাসীন দলের নিরঙ্কুশ জয়

করোনায় ব্রাজিলে মৃত্যু ৭০ হাজার ছাড়াল

আরও খবর

  • ছেলের সঙ্গে ভ্রমণে গিয়ে নিখোঁজ অভিনেত্রী

    ছেলের সঙ্গে ভ্রমণে গিয়ে নিখোঁজ অভিনেত্রী

  • রেকর্ড গড়েও অতৃপ্ত হোল্ডার

    রেকর্ড গড়েও অতৃপ্ত হোল্ডার

  • দেশের ১৯ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে আজ

    দেশের ১৯ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে আজ

  • বিশ্বখ্যাত জাদুঘর সোফিয়াকে মসজিদে রূপান্তরের ঘোষণা

    বিশ্বখ্যাত জাদুঘর সোফিয়াকে মসজিদে রূপান্তরের ঘোষণা

সর্বশেষ খবর

রিজেন্ট মামলার প্রধান আসামি সাহেদ অস্ত্রসহ গ্রেফতার

দেশে করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩১৬৩

দুই সংসদীয় আসনে চলছে ভোটগ্রহণ

তিনদিনই থাকবে ঈদুল আজহার ছুটি