স্বাস্থ্য

ভালো আছে তোফা-তহুরা

ভালো আছে তোফা-তহুরা
ভালো আছে তোফা-তহুরা

তোফা ও তহুরা ভালো আছে— তাদের শরীরে সংক্রমণ দেখা দেয়নি। স্যালাইন দেয়া হচ্ছে না মুখে বুকের দুধসহ অন্যান্য খাবার খাওয়ানো হচ্ছ।

শনিবার সকালে এ কথা জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক আশরাফ উল হক।

তিনি আরো বলেন, তহুরার চেয়ে তোফা তুলনামূলকভাবে বেশি ভালো আছে, তহুরার ড্রেসিংয়ের জায়গা ভিজে যাচ্ছে বলে বারবার ড্রেসিং করতে হচ্ছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো সংক্রমণ দেখা দেয়নি। তারা স্বাভাবিকভাবেই খাওয়াদাওয়া করছে।

সংযুক্ত শরীর নিয়ে জন্ম নেয়া শিশু তোফা-তহুরা অস্ত্রোপচারের পর ভালো আছে তবে শঙ্কামুক্ত হতে অন্তত ১০ দিন সময় লাগবে।

চিকিৎসকরা জানান, শিশু দুটির পায়খানার জন্য পেটের মধ্যে বিকল্প একটি রাস্তা করে দেয়া হয়েছে। ৬ মাস পর পায়ুপথ ও মাসিকের রাস্তার জন্য অপারেশনের পর এটি বন্ধ করে দেয়া হবে। অপারেশনের পর দুই শিশুর সুন্দরভাবে জ্ঞান ফিরেছে উল্লেখ করে তারা বলেন, তারা খাবার খেয়েছে। তবে এখনো ঝুঁকিমুক্ত নয়।

গতকাল-মঙ্গলবার জোড়া লাগা যমজ শিশু তোফা ও তহুরাকে আলাদা করা হয়—ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অস্ত্রোপচার চলে।

সকাল ৯টা ৪০ মিনিটের দিকে তাদের অস্ত্রোপচার শুরু হয়েছে সময় লাগে প্রায় পারে ছয় ঘণ্টা।

শিশু সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক কানিজ হাসিনা শিউলি বলেন, ওরা দুজন এখন আলাদা।

বিভিন্ন বিভাগের প্রায় ত্রিশজন চিকিৎসক দুটি দলে ভাগ হয়ে দীর্ঘ এ অস্ত্রোপচারে অংশ নেন। অচেতন করাসহ প্রাথমিক পর্যায়ের কাজ শেষে একদল চিকিৎসক শিশু দুটির দেহ আলাদা করার কাজ শুরু করেন।

দুপুরে অপারেশন থিয়েটার থেকে বেরিয়ে এসে শিশু সার্জারি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক আশরাফুল হক কাজল সাংবাদিকদের বলেন, তোফা ও তহুরার স্পাইনাল কর্ড ও মেরুদণ্ড আলাদা করতে পেরেছেন তারা। শিশু দুটি ভালো আছে।

দুই শিশুকে আলাদা করার পর দুপুরে চিকিৎসকদের অন্য দলটি শুরু করেন দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ।

এর আগে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের প্রধান আশরাফ উল হক শিশু দুটির অস্ত্রোপচারের বিষয়টি জানান।

জন্মের পর থেকে ১০ মাস তোফা ও তহুরা একসঙ্গে বড় হয়েছে। পিঠের কাছ থেকে কোমরের নিচ পর্যন্ত তারা পরস্পরের সঙ্গে সংযুক্ত। দুজনের পায়খানার রাস্তা একটি। তবে জোড়া লাগা এই যমজের মাথা-হাত-পা আলাদা। এখন তারা আলাদা হবে।

তোফা-তহুরা যেভাবে জোড়া লাগানো, চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় একে বলা হয় ‘পাইগোপেগাস’।

শিশু দুটোর অস্ত্রোপচারে বিভিন্ন বিভাগের প্রায় ১৬ জন সার্জন যুক্ত থাকবেন। তাদের আলাদা করার পর দুটো অপারেশন থিয়েটারে দুই দলে ভাগ হয়ে কাজ করবেন সার্জনরা। অস্ত্রোপচারে আনুমানিক সময় লাগতে পারে ছয় ঘণ্টা।

শিশু সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকেরা জানান, বাংলাদেশের ইতিহাসে ‘পাইগোপেগাস’ শিশু আলাদা করার ঘটনা এটি প্রথম হবে। এর আগে অন্যান্য হাসপাতালে তিন জোড়া শিশুকে অস্ত্রোপচার করে আলাদা করা হয়েছিল তাদের ধরন ছিল আলাদা।

তোফা-তহুরার মায়ের নাম শাহিদা এবং বাবার নাম রাজু মিয়া। তাদের বাড়ি গাইবান্ধায়।

গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন ইউনিয়নের কৃষক রাজু মিয়া ও তার স্ত্রী শাহিদা বেগমের যমজ সন্তানের জন্ম হয় জোড়া লাগানো শরীর নিয়ে।

দেশটিভি/আরসি
দেশ-বিদেশের সকল তাৎক্ষণিক সংবাদ, দেশ টিভির জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখতে, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল:

এছাড়াও রয়েছে

অ্যান্টিবায়োটিকের অপব্যবহার শিগগিরই বন্ধে নতুন আইন : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ডেঙ্গুতে আরও দুইজনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৫৬৮

করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪৮০

একদিনে সর্বোচ্চ ৬৩৫ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

আরও ৭০৮ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১

করোনায় দুইজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৭৯

ডেঙ্গুতে একজনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫২৪

দেশে করোনা শনাক্তের হার ১৫% ছাড়িয়েছে

সর্বশেষ খবর

পদার্থের নোবেল পেলেন তিন বিজ্ঞানী

মধ্য আফ্রিকায় বিস্ফোরণে তিন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত

কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়া যাবে না: প্রধানমন্ত্রী

বিদ্যুৎ বিপর্যয় : টেলিযোগাযোগ সেবা বিঘ্নের আশংকা