পরিবেশ

উপকূলে এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর-কক্সবাজারে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত

ঘূর্নিঝড় ‘মোরা’

উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’— চট্টগ্রাম বন্দর ও কক্সবাজার উপকূলকে ১০ নম্বর এবং মংলা ও পায়রা বন্দরকে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। ঘূর্ণিঝড়টি সোমবার বিকেল ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৪২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছিলো। এর প্রভাবে উপকূলীয় এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টিপাত হচ্ছে। উত্তাল রয়েছে সাগর।

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সারাদেশে সব ধরনের নৌচলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ ধেয়ে আসছে বাংলাদেশের দিকে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় মোরা আরও সামান্য উত্তরদিকে অগ্রসর হয়ে সোমবার দুপুরে উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছিলো।

এটি আরও ঘনীভুত ও উত্তরদিকে অগ্রসর হয়ে মঙ্গলবার সকাল নাগাদ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৬২ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সোমবার বিকেল থেকে উপকূলীয় জেলা ও সমুদ্রবন্দরসমুহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি ও বজ্রবৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের কারণে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে সাত নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমুহ সাত নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৫ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এ সংকেতের আওতায় থাকবে উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চর।

ঘূর্ণিঝড় মোরার প্রভাবে চট্টগ্রাম, কক্সবাজারসহ উপকূলীয় এলাকা স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট বেশি উচ্চতায় জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে শিগগিরই নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাদেরকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে, সোমবার বিকেলে ঘূর্ণিঝড় মোরার প্রভাবে দুর্যোগপূর্ন আবহাওয়ার কারণে সারাদেশে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ। এর আগেই বরিশাল, পটুয়াখালীসহ বিভিন্ন জায়গায় অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

তাপমাত্রা স্বাভাবিক, হালকা-মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে

সমুদ্রবন্দরসমূহে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

নদ-নদীর পানি ৬৮টি পয়েন্টে বৃদ্ধি

ভারী বৃষ্টিপাতে রাজধানীর অনেক এলাকা নিমজ্জিত

বৃষ্টি থাকতে পারে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত

রাজধানীসহ বিভিন্ন অঞ্চলে স্বস্তির বৃষ্টি

বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা

দেশে মৃদু তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে

সর্বশেষ খবর

কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ভারতীয় সেনা নিহত

২২ আগস্ট গ্রুপ চ্যাট বন্ধ করে দিচ্ছে ফেসবুক

ফিরতি হজ ফ্লাইট শুরু আজ

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর আসছেন মঙ্গলবার