অর্থনীতি

মাটির টেকসই ব্যবহার নিশ্চিতে বৈশ্বিক উদ্যোগ জরুরি: কৃষিমন্ত্রী

মাটির টেকসই ব্যবহার নিশ্চিতে বৈশ্বিক উদ্যোগ জরুরি: কৃষিমন্ত্রী
মাটির টেকসই ব্যবহার নিশ্চিতে বৈশ্বিক উদ্যোগ জরুরি: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, মাটির টেকসই ব্যবহার নিশ্চিত করতে এখন সম্মিলিত বৈশ্বিক উদ্যোগ জরুরি। এ ব্যাপারে উন্নত দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহকে সমন্বিত কর্মসূচি গ্রহণ এবং উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশে সহযোগিতা বৃদ্ধির আহ্বান জানান তিনি। শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় ‘বার্লিন কৃষিমন্ত্রীদের সম্মেলনে’ ভার্চুয়ালি যোগদান করে এসব কথা বলেন কৃষিমন্ত্রী।

জার্মান ফেডারেল মিনিস্ট্রি অব ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রিকালচারের (বিএমইএল) আয়োজনে ৫ দিনব্যাপী (২৪-২৮ জানুয়ারি) ১৪তম ‘গ্লোবাল ফোরাম ফর ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রিকালচার (জিএফএফএ)’ এর শেষ দিনে এ সম্মেলন হয়।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এবার ভার্চুয়ালি কনফারেন্সটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘ভূমির টেকসই ব্যবহার: মৃত্তিকা থেকেই খাদ্য নিরাপত্তার শুরু’ এই শিরোনামে কৃষি-খাদ্যবিষয়ক বিশ্বের বৃহৎ এ সম্মেলনে ৭০টিরও বেশি দেশের কৃষিমন্ত্রী ও ১০টি আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেছেন।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের মতো জনবহুল দেশে মাটির স্বাস্থ্য রক্ষা ও টেকসই ব্যবহার অনেক চ্যালেঞ্জিং। ক্রমবর্ধমান খাদ্য চাহিদা মেটাতে মাটির অতিরিক্ত ব্যবহার, অবক্ষয়, দূষণ, লবণাক্ততা, জলবায়ু পরিবর্তনসহ প্রভৃতি সমস্যা রয়েছে। তাছাড়া শিল্পায়নসহ নানা কারণে বছরে কৃষি জমি ০.৪৩ শতাংশ হারে কমছে। সরকার মাটির টেকসই ব্যবহারের জন্য গুরুত্ব দিয়ে দীর্ঘমেয়াদি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে।

ড. আবদুর রাজ্জাক আরও বলেন, মাটির স্বাস্থ্য রক্ষা, বর্তমান ও ভবিষ্যতে মাটির টেকসই ব্যবহার নিশ্চিত রক্ষা করতে উন্নত দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাকে সমন্বিত ও জোরালো কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে। পাশাপাশি তাদেরকে উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশের পাশে দাঁড়াতে হবে; সহযোগিতা বৃদ্ধিতে এগিয়ে আসতে হবে।

সম্মেলনে জার্মান ফেডারেল মিনিস্টার অব ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রিকালচার অজদেমির, কৃষি ও গ্রামীণ উন্নয়নবিষয়ক ইইউ কমিশনার জানুস্জ উজসিচোস্কি, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার উপমহাপরিচালক জ্যাঁ মেরি পগাম ও বিভিন্ন দেশের কৃষিমন্ত্রীরা বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে জানানো হয়, বৈশ্বিক খাদ্য উৎপাদনের ৭০ শতাংশ মাটির ওপর নির্ভরশীল। বিশ্বের মাটিই আজ হুমকির সম্মুখীন। এটি হচ্ছে শিল্পায়ন, অবকাঠামো নির্মাণ, জমির উৎপাদনশীলতা হ্রাস, দূষণ, লবণাক্ততা, মরুকরণসহ নানা কারণে। কিন্তু ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার খাদ্য চাহিদা মেটাতে বেশি জমি প্রয়োজন; কারণ খাদ্য চাহিদা বাড়ছে।

এ বিষয়কে সামনে রেখে গত পাঁচ দিনে বিভিন্ন দেশের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিরা একটি ‘যৌথ ইশতেহার’ প্রস্তুত করেছেন। মাটির টেকসই ব্যবহার ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে যৌথ ইশতেহারে চারটি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে ২৯টি বিষয়ে (কল ফর অ্যাকশন) একসাথে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।

সম্মেলনে ৪টা বিষয়ে গুরুত্বারোপ করে আলোচনা ও করণীয় নির্ধারিত হয়। প্রথমত, মাটির অবক্ষয়রোধ করণীয়। মৃত্তিকার গুণাগুণকে কীভাবে রক্ষা করা যায়? দ্বিতীয়ত, অবক্ষয়সাধিত মাটির উন্নয়ন। এফএওর হিসাবে ইতোমধ্যে বিশ্বের ৩৩ শতাংশ মাটি অবক্ষয় সাধিত হয়েছে। কারণ মাটির অবক্ষয়ের কারণে আগামী ২৫ বছরে খাদ্যের দাম ৩০ বৃদ্ধির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তৃতীয়ত, সীমিত জমির টেকসই ব্যবহার ও কৃষি জমিকে কীভাবে রক্ষা করা যায়? চতুর্থত, কৃষকেরা কীভাবে জমির মালিকানা পেতে পারে? প্রকৃত কৃষকের নিকট জমির মালিকানা থাকলেই খাদ্যনিরাপত্তা অর্জন করা সম্ভব হবে। অথচ ধারণা করা হচ্ছে, আগামী ৫ বছরে বিশ্বব্যাপী ১ বিলিয়ন মানুষ তাদের নিজস্ব জমি থেকে মালিকানা হারাবে।

দেশটিভি/এসকেএস
দেশ-বিদেশের সকল তাৎক্ষণিক সংবাদ, দেশ টিভির জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখতে, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল:

এছাড়াও রয়েছে

ক্রেডিট কার্ডে ডলার সীমা লঙ্ঘন করায় ২৭ ব্যাংককে শোকজ

এসএমসির ভারপ্রাপ্ত এমডি-সিইও তসলিম উদ্দিন খান

নগদকে লাইসেন্স দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক

জ্বালানির দাম কমেছে, দ্রব্যমূল্যও কমানো উচিত: এফবিসিসিআই

সোনা চোরাচালান প্রতিরোধে এনবিআরের সঙ্গে কাজ করতে বাজুসের চিঠি

নতুন চেয়ারম্যান পেলো ব্যাংক এশিয়া ও এবি ব্যাংক

জ্বালানি তেলের আমদানি শুল্ক কমানোর প্রভাব জানতে ২-৩ দিন লাগবে: বিপিসি চেয়ারম্যান

২৫ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬ হাজার ৪২৯ কোটি টাকা

সর্বশেষ খবর

পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ৫৯, মামলা ৩৯

রাজধানীতে বাসচাপায় প্রাণ গেল যুবলীগ নেতার

নীতি সুদহার ফের বাড়ালো কেন্দ্রীয় ব্যাংক

আলোচনায় থাকতে যে কাণ্ড ঘটালেন পূজা চেরী