অর্থনীতি

শুক্রবার, ২১ মে, ২০২১ (১৬:১৮)

মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়ালো বাংলাদেশ

মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়ালো বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে মাথাপিছু আয় ভারতকে ছাড়িয়ে গেলো বাংলাদেশ। ভারতের মাথাপিছু আয় যেখানে ১ হাজার ৯৪৭ ডলার সেখানে বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২২৭ ডলারে।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সাময়িক হিসাবে ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় বেড়েছে। বাংলাদেশের মাথাপিছু আয়ের সঙ্গে ভারতের মাথাপিছু আয়ের বিষয়টি এক্সপ্রেস নিউজ সার্ভিসে তুলে ধরা হয়েছে।

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও ডলারের মূল্য স্থিতিশীল থাকায় মাথাপিছু আয় বেড়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) সাবেক গবেষণা পরিচালক ড. জায়েদ বখত।

ভারত সরকারের সাবেক প্রধান অর্থনৈতিক উপদেষ্টা অরবিন্দ সুব্রামানিয়ামের মতে, এক দেশের সঙ্গে অন্য দেশের পরিসংখ্যানগুলো সবসময় তুলনা করা যায় না। কারণ, বিনিময়হারের ভিত্তিতে কল্যাণের বিষয়টির তুলনা যথাযথ নয়। এটি অভ্যন্তরীণ মূল্যস্ফীতি ও উৎপাদনে প্রবৃদ্ধির তুলনামূলক চিত্র ঠিকভাবে তুলে আনতে পারে না। তবে স্থিরমূল্যে জিডিপি ও ক্রয়ক্ষমতার ভিত্তিতে এটি করা যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে ভারত এগিয়ে রয়েছে।

গত বছরের অক্টোবরে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক আউটলুকে আভাস দিয়েছিল ২০২০ সালে চলতি বাজারমূল্যে মাথাপিছু জিডিপিতে ভারতকে বাংলাদেশ ছাড়িয়ে যাবে। বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি এক হাজার ৮৮৮ ডলারে পৌঁছাবে। অন্যদিকে ভারতে এটি কমে হবে এক হাজার ৮৭৭ ডলার। প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর বাংলাদেশ ও ভারতে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়।

এর আগে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, দেশে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ২২৭ মার্কিন ডলার হয়েছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় তা বছরে ১ লাখ ৮৮ হাজার ৮৭৩ টাকা।

বার্ষিক তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, প্রবাসী বাংলাদেশিসহ বাংলাদেশের শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত প্রত্যেক মানুষ প্রতি মাসে আয় করে ১৫ হাজার ৭৩৯ টাকা।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) গত বছরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এত দিন মাথাপিছু আয় ছিল ২ হাজার ৬৪ মার্কিন ডলার। সে হিসাবে মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৬৩ ডলার, আগের বার থেকে যা ৯ শতাংশ বেশি।

গত বছরের আগস্টে বিবিএস প্রাথমিক হিসাব দিয়ে জানিয়েছিল, ২০১৯-২০ অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ। সাময়িক হিসাব এখনো সাময়িকই আছে। অথচ ২০২০-২১ অর্থবছরও শেষ হতে চলেছে।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) প্রাক্কলন করেছিল, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৩ দশমিক ৮ শতাংশে নেমে আসতে পারে। সংস্থাটির হিসাবে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরেও এর প্রভাব থাকবে। / আরটি

এছাড়াও রয়েছে

প্রবাসীদের বন্ড কিনতে জাতীয় পরিচয়পত্রের বাধ্যবাধকতা

বাংলাদেশের বিনিয়োগ সুবিধা লুফে নিতে বিদেশী বিনিয়োগকারিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

সোনামসজিদ স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকবে রোববার

মিথ্যা তথ্য দিয়ে সঞ্চয়পত্র কিনলে জেল-জরিমানা

রিটার্ন দেওয়ার শেষ দিন ৩০ নভেম্বর

দেয়াল ভেঙে ব্যাংকের টাকা লুটের চেষ্টা, আটক ৩

স্বর্ণের দাম ভরিতে বাড়ল ২৩৩৩ টাকা

আরও খবর

  • বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

    বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • আবরার খুনের মামলায় রায় আজ

    আবরার খুনের মামলায় রায় আজ

  • প্রেসক্লাবে স্বেচ্ছাসেবক দলের সমাবেশ চলছে

    প্রেসক্লাবে স্বেচ্ছাসেবক দলের সমাবেশ চলছে

  • বার্সার আরও একটি জয়

    বার্সার আরও একটি জয়

সর্বশেষ খবর

পেরুতে ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্প, আহত ১০

ম্যাসেজ ডিলিট করার সময়সীমা বাড়াতে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপ

৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু সোমবার

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় ক্ষুদ্ধ দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট