সংস্কৃতি-বিনোদন

বুধবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৯ (১১:২০)

‘জননী সাহসিকা’র আজ মৃত্যুবার্ষিকী

‘জননী সাহসিকা’র আজ মৃত্যুবার্ষিকী

বায়ান্ন’র ভাষা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যূত্থান, একাত্তরের অসহযোগ আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীন বাংলাদেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক সংগ্রামসহ শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে তাঁর প্রত্যক্ষ উপস্থিতি ছিল। এজন্য তিনি ‘জননী সাহসিকা’ উপাধিতে অভিষিক্ত হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা হোস্টেলকে রোকেয়া হল নামকরণের প্রস্তাবক ছিলেন তিনি।

বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক, প্রগতিশীল এবং নারীমুক্তি আন্দোলনের অন্যতম অগ্রদূত কবি বেগম সুফিয়া কামালের ২০তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বুধবার (২০ নভেম্বর)। বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচির মধ্যদিয়ে তাঁর মৃত্যুবার্ষিকী পালন করছে।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি বলেছেন, কবি সুফিয়া কামালের জীবনাদর্শ ও সাহিত্যকর্ম বৈষম্যহীন ও অসাম্প্রদায়িক সমাজ বিনির্মাণে তরুণ প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ ও অনুপ্রাণিত করবে। মহীয়সী এ নারী তাঁর কাব্য প্রতিভা ও কর্মের গুণে জাতির মাঝে চিরকাল বেঁচে থাকবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কবি বেগম সুফিয়া কামালের আদর্শ ও দৃষ্টান্ত যুগে যুগে বাঙালি নারীদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে। বাংলা সাহিত্যের অন্যতম কবি বেগম সুফিয়া কামালের সাহিত্যে সৃজনশীলতা ছিল অবিস্মরণীয়। শিশুতোষ রচনা ছাড়াও দেশ, প্রকৃতি, গণতন্ত্র, সমাজ সংস্কার এবং নারীমুক্তিসহ বিভিন্ন বিষয়ে তার লেখনী আজও পাঠককে আলোড়িত ও অনুপ্রাণিত করে।

কবি সুফিয়া কামালের প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থগুলো হচ্ছে- সাঁঝের মায়া, মায়া কাজল, মন ও জীবন, শান্তি ও প্রার্থনা, উদাত্ত পৃথিবী, দিওয়ান, মোর জাদুদের সমাধি পরে প্রভৃতি। গল্পগ্রন্থ ‘কেয়ার কাঁটা’। ভ্রমণ কাহিনি ‘সোভিয়েত দিনগুলি’, স্মৃতিকথা ‘একাত্তুরের ডায়েরি’।

সুফিয়া কামাল ৫০টিরও অধিক পুরস্কার লাভ করেছেন। এর মধ্যে বাংলা একাডেমি, একুশে পদক, বেগম রোকেয়া পদক, জাতীয় কবিতা পুরস্কার, স্বাধীনতা দিবস পদক উল্লেখযোগ্য।

সুফিয়া কামাল যখন জন্মগ্রহণ করেন তখন নারীশিক্ষা অনেকটা নিষিদ্ধ ছিল। তিনি নিজ উদ্যোগে নিজেকে শিক্ষিত করেই ক্ষান্ত হননি, পিছিয়ে পড়া নারী সমাজকে শিক্ষিত করে তোলার দায়িত্বও কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন। নারীর অধিকার আদায়ের আন্দোলনকে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে গড়ে তোলেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। কবি সুফিয়া কামাল ছিলেন ছায়ানটের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।

সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকীতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ স্মরণসভার আয়োজন করেছে। সেগুনবাগিচায় সুফিয়া কামাল ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত স্মরণসভায় কবি সুফিয়া কামালের জীবন দর্শন বিষয়ে মূল আলোচক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ভাষা শিক্ষা বিভাগের গবেষক তনুশ্রী মল্লিক। এ ছাড়া সকালে পরিবারের পক্ষ থেকে কবির সমাধিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

লোকসঙ্গীত উৎসবের পর্দা নামছে আজ

দ্বিতীয় বিয়ে করলেন গুলতেকিন

কথার জাদুকর হুমায়ূন আহমেদের শুভ জন্মদিন আজ

লতা মঙ্গেশকরের শারীরিক অবস্থার উন্নতি

সাহিত্যে ২ বছরের নোবেল তোকারতুক ও হান্ডকের

এন্ড্রু কিশোরের শরীরে ক্যান্সার ধরা পড়েছে

বাংলাদেশে গাইতে আসবেন রানু!

প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ের অনুষ্ঠানে কি ঘটেছিল!

সর্বশেষ খবর

আইপিএল নিলামে রয়েছেন বাংলাদেশের যে ৬ ক্রিকেটার

মৌরিতানিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৫৮ শরণার্থীর মৃত্যু

লুটেরা ও আগুন সন্ত্রাসীরা যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে সে ব্যাপারে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বাংলাদেশের জন্য ১০ হাজার হজ কোটা বাড়াল সৌদি আরব