অপরাধ

বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ (১৪:০৯)

ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডি শামীমসহ ৬ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

দুদক

ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডি একেএম শামীমসহ ব্যাংকের ছয় কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার রাজধানীর সেগুনাবাগিচায় দুদক কার্যালয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছে।

সাবেক এমডি ছাড়া অন্য পাঁচ কর্মকর্তা হলেন: ফারমার্স ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ অফিসার উম্মে সালমা সুলতানা, অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট শফিউদ্দিন আসকারী আহমেদ, সাবেক ম্যানেজার (অপারেশ) ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, সাবেক হেড অব বিজনেস ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট গাজী সালাউদ্দীন ও ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়।

গত ৬ মে টাঙ্গাইলের স্কুলশিক্ষক মো. শাহজাহান ও কৃষক নিরঞ্জন চন্দ্র সাহাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক।

এ দুজন দুই কোটি করে চার কোটি টাকা ঋণ নেন বেসরকারি ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখা থেকে। পরে দুটি ঋণ অ্যাকাউন্ট থেকে সেই টাকা পে-অর্ডারের মাধ্যমে পাঠানো হয় সোনালী ব্যাংকের হাইকোর্ট শাখায় থাকা ‘রাষ্ট্রের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি’র ব্যাংক অ্যাকাউন্টে।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শাহজাহান বলেন, আমি ফারমার্স ব্যাংক থেকে দুই কোটি টাকা করে ঋণ নিয়েছিলাম। সেজন্য আমাদের ডেকেছিল (দুদক)। আমরা ফারমার্স ব্যাংক গুলশান শাখা থেকে লোন নিয়ে রঞ্জিত বাবুকে দিয়েছি। রঞ্জিত বাবু আমার ফ্রেন্ড। রঞ্জিত বাবুকে আমি টাকা দিয়েছি। উনি এই টাকা কাকে দিয়েছেন, আমি জানি না। আমি রঞ্জিত বাবুর জমি মর্টগেজ রেখেছি।’

নিজেকে রঞ্জিত বাবুর ভাতিজা পরিচয় দিয়ে নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা বলেন, রঞ্জিত বাবু আমার চাচা। উনি আমাকে বলছেন, ‘আমি লোন তুলে দিয়েছি। আমি কৃষিকাজ করি।’ এর বেশি কিছু জানি না।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালে রাজধানীর উত্তরার একটি বাড়ি শান্তি রায় নামের এক নারীর কাছে বিক্রি করেন ‘রাষ্ট্রের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি’। শান্তি রায়ের স্বামী রঞ্জিত সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার ব্যক্তিগত সহকারী। ওই বাড়ি কেনার টাকা পরিশোধের জন্য রঞ্জিতের জমি মর্টগেজ রেখে শাহজাহান ও নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা চার কোটি টাকা ঋণ নেন। আর এই ঋণের টাকা দুটি পে-অর্ডারের মাধ্যমে ‘রাষ্ট্রের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি’র ব্যাংক হিসাবে জমা করা হয়।

তবে দুদক সূত্রে জানা গেছে, জমি মর্টগেজ রেখে ফারমার্স ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়া হলেও ঋণ দেয়ার প্রক্রিয়ায় অনিয়ম রয়েছে। যা খতিয়ে দেখছে তারা।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

এফআর টাওয়ারের মালিক ফারুক গ্রেফতার

চট্টগ্রামে বন্দুকযুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় আসামি নিহত

মোহাম্মদপুরের বছিলার "জঙ্গি আস্তানায়" অভিযান-বিস্ফোরণ, নিহত ২

নুসরাত হত্যা: নিজের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করল অভিযুক্ত অধ্যক্ষ সিরাজ

গাইবান্ধায় শিশুশিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্তার

নুসরাত হত্যা: খোঁজা হচ্ছে পাহারার দায়িত্বে থাকা শাকিলকে

নুসরাতের গায়ে আগুন দেয় তার দুই সহপাঠী মনি-জাবেদ

নুসরাত হত্যা: অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ

সর্বশেষ খবর

‘আলীগই গ্রেনেড হামলা মামলার তদন্তকে বাধাগ্রস্ত করেছিল’

মোদির সঙ্গে আর কোনো আলোচনা নয়: ইমরান খান

ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরম গ্রেপ্তার

সোনারগাঁওয়ে ইমামের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার