আদালত

মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ (১৮:৩৮)

বঙ্গবন্ধুর ছবি না থাকায় ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ বইটি সরানোর নির্দেশ

বঙ্গবন্ধুর ছবি না থাকায় ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ বইটি সরানোর নির্দেশ

বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ বইয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি অন্তর্ভুক্ত না করে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে বইটির সম্পাদনা পরিষদের প্রধান ও সাবেক নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর সাহাকে তলব করেছে হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আগামী ১২ মার্চ তাকে আদালতে হাজিরের আদেশ দিয়েছে।

একইসঙ্গে ওই দিন আদালতে হাজির হয়ে বইটিতে বঙ্গবন্ধুর ছবি কেন খুঁজে পাওয়া যায়নি এবং কেন পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান ও পূর্ব পাকিস্তানের সাবেক গভর্নর মোনায়েম খানের ছবি সংযোজন করা হয়েছে তার ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া, বইটির কোনও সংখ্যা বাজারে থাকলে তা প্রত্যাহার করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার এ বি এম আলতাফ হোসেন। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আল আমিন সরকার।

গত ২ অক্টোবর বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ বইয়ে বিকৃতির অভিযোগের বিরুদ্ধে এক রিটের শুনানি নিয়ে অভিযোগ তদন্ত করে অর্থ সচিবকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে ওই বইয়ে ইতিহাস বিকৃতি করাকে কেন আইনত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়।

রুলে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, নির্বাহী ব্যবস্থাপক এবং প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগের আবুল কালাম আজাদকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

এরপর ওই নির্দেশনা অনুযায়ী অর্থ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (বাজেট সামষ্টিক অর্থনীতি) ড. মো. জাফর উদ্দীনকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় এবং একটি প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হয়।

ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, বইটি প্রণয়নে ব্যবহৃত সংশ্লিষ্ট নথিপত্র, তথ্য-উপাত্ত ও সংযোজিত ছবি ইত্যাদি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, সম্পাদনা কমিটির কাজের মধ্যে অসংগতি ছিল। এ কমিটির কাজে ধারাবাহিকতা ছিল না। নিয়মিত সভাও হতো না। এ ছাড়া, গবেষণা কমিটি ও সম্পাদনা কমিটির মধ্যে সমন্বয়ের অভাব ছিল মর্মে প্রতীয়মান হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, রাষ্ট্রপতির আদেশমূলে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি এই বইয়ে অন্তর্ভুক্ত করা অত্যাবশ্যক ছিল। বঙ্গবন্ধুর ঘোষিত স্বাধীনতায় সাড়া দিয়ে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ৩০ লাখ শহীদের রক্ত এবং দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে এদেশ স্বাধীন হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বইটির দ্বিতীয় অধ্যায়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস বর্ণনা করা হয়েছে। বিধায় স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তিযুদ্ধ সংশ্লিষ্ট অথবা বঙ্গবন্ধুর অন্য যেকোনও ছবি বইয়ে অন্তর্ভুক্ত করা যেতো। কাজেই বাংলাদেশ ব্যাংকের বইয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি খুঁজে না পাওয়ার যে যুক্তি উত্থাপন করা হয়েছে তা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আতিউর রহমান থাকাকালে ২০১৩ সালে এ বইয়ের পাণ্ডুলিপি তৈরি ও প্রকাশনার সিদ্ধান্ত হয়। এ বিষয়ে উপদেষ্টা কমিটি ও সম্পাদনা কমিটি নামে দুটি কমিটি করা হয়।

বইটি প্রকাশের আগে সম্পাদনার দায়িত্বে বেশ কয়েকবার রদবদল হয়। সর্বশেষ এ দায়িত্বে ছিলেন ব্যাংকের তখনকার নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা। তার আগে দায়িত্ব পালন করেন আরেক নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মাহাফুজুর রহমান। তারা দুজনই অবসরে।

পাণ্ডুলিপি চূড়ান্ত করার পর ২০১৭ সালে ডিসেম্বরে প্রকাশিত হয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস। ২০১৮ সালের ২৫ মার্চ অনুষ্ঠানিকভাবে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন বর্তমান গভর্নর ফজলে কবির।

এরপর সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে দৈনিক খোলা কাগজে ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস বইতে পাকিস্তানের ভূত- ঠাঁই পাননি বঙ্গবন্ধু, আছে স্বৈরাচার আইয়ুব খান’ এবং পত্রিকাটির অনলাইন সংস্করণে, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস বইয়ে পাকিস্তানের ভূত- দুরবিনেও মেলে না প্রধানমন্ত্রী ও আ. লীগের অবদান’ শীর্ষক দুটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বইটি নিয়ে সমালোচনা শুরু হলে গতবছর ১৫ সেপ্টেম্বর বইটির বিতরণ বন্ধের নির্দেশ দেন গভর্নর।

পাশাপাশি বইটি নতুন করে সম্পাদনা করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে একজন ডেপুটি গভর্নরের নেতৃত্বে একটি রিভিউ কমিটি গঠন করা হয়।

এরই মধ্যে পত্রিকায় প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন যুক্ত করে এফবিসিসিআই পরিচালক কাজী এরতেজা হাসান হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন।

প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গতবছর ২ অক্টোবর হাইকোর্ট ইতিহাস বিকৃতি অভিযোগ তদন্তের জন্য একটি অনুসন্ধান কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়। সেই সঙ্গে জারি করা হয় রুল।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

আদালতে ফখরুলসহ ৮ নেতার আত্মসমর্পণ

দুদকের মামলায় লতিফ সিদ্দিকীর জামিন নামঞ্জুর

মিন্নির জামিনের বিষয়ে আদেশ আজ

সব আদালত কক্ষে বঙ্গবন্ধুর ছবি টানানোর নির্দেশ

যুদ্ধাপরাধে আসামী ফিরোজ খাঁ’র মামলার রায় আজ

পুঠিয়ার মুসা রাজাকারের মৃত্যুদণ্ড

রেনুর পরিবারকে কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রুল

সর্বশেষ খবর

নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

আফগানিস্তানে গাড়ি বোমা হামলায় নিহত ১০

রবিবার থেকে দেশে বৃষ্টিপাত বাড়বে

দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৭ উইকেটে হারাল ভারত