আদালত

মঙ্গলবার, ২৪ জুন, ২০১৪ (১৬:০৯)

ট্রাইব্যুনালে রায় হওয়া না হওয়া মামলাগুলো

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল

মানবতাবিরোধী অপরাধে নিজামীর মামলার রায় হলে, এটি হতো আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দশম রায়। আর ট্রাইব্যুনালে অপেক্ষমাণ রয়েছে বিএনপি নেতা খোকন রাজাকার, জামাত নেতা মীর কাসেম আলি ও আওয়ামী লীগ নেতা মোবারক হোসেনের মামলার রায়। আপিল নিষ্পত্তির পর কার্যকর হয়েছে জামাত নেতা কাদের মোল্লার মামলার রায়। এখন আপিল বিভাগে রায়ের অপেক্ষায় দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মামলা।

এছাড়া, শুনানির জন্য অপেক্ষমাণ রাজাকার শিরোমনি গোলাম আযম, আলি আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, মোহাম্মদ কামারুজ্জামান, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আব্দুল আলিমের আপিল। আর ট্রাইব্যুনালে আরো ৩ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে।

বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্তদের বিচার করার জন্য ২০১০ সালে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ ও ২০১২ সালে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ গঠন করে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় খুন, হত্যা, ধর্ষণ, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগ, হত্যায় সহযোগিতা করা, ধর্মান্তরিত, দেশান্তরিত করাসহ বেশ কিছু অভিযোগ দায়ের করা হয়।

অভিযুক্তদের মধ্যে বাচ্চু রাজাকারের বিরুদ্ধে প্রথম রায় ২০১৩ সালের ২১ জানুয়ারি ঘোষণা করা হয়। এরপর একে একে জামাতের সাবেক আমির গোলাম আজম, নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, জামাতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, সহকারি সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামান, বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী, বিএনপির সাবেক মন্ত্রী আবদুল আলীম, একাত্তরে দুই বদর নেতা আশরুফাজ্জামান খান ও চৌধুরী মুঈনদ্দীনের রায় ঘোষণা করা হয়।

এদের মধ্যে গোলাম আজম ও আবদুল আলীমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ছাড়া বাকি সবার মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়া হয়। আর সহকারি সেক্রেটারি জেনারেল কাদের মোল্লাকে ট্রাইব্যুনাল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিলেও সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ তাকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়।

এ মুহূর্তে ট্রাইব্যুনাল-১ ও ২ এ রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রয়েছ বিএনপি নেতা জাহিদ হোসেন খোকন, জামাত নেতা মীর কাশেম আলী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা মোবারক হোসেনের মামলা। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে সাঈদীর মামলার রায় অপেক্ষমান রয়েছে।

এদিকে, ট্রাইব্যুনালে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত জামাতের সহকারি সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম, নায়েবে আমির আবদুস সুবহান ও জাতীয় পার্টির সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে। এছাড়াও দলগতভাবে জামাত ও ব্যক্তিগতভাবে ১১ জনের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগের তদন্ত চলছে।

এছাড়াও রয়েছে

সাহেদের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলার রায় আজ

অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন

আইনজীবী ইউনুস আলীকে তলব, দুই সপ্তাহের জন্য বরখাস্ত

রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি : সাহেদসহ স্বাস্থ্যের চারজনের বিরুদ্ধে মামলা

কারা ডিআইজি বজলুরের সম্পতি ক্রোক ও ব্যাংক হিসাব ফ্রিজের নির্দেশ

তিতাসের ৮ কর্মকর্তা-কর্মচারী সবাইকে জামিন

আবরারের বাবা অসুস্থ, পেছাল মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ

দ্বিতীয় দফায় রিমান্ড শেষে আদালতে রবিউল

আরও খবর

  • আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাতে ২৩ জনের মৃত্যু

    আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাতে ২৩ জনের মৃত্যু

  • নাইজেরিয়ায় গাড়িবহরে চোরাগোপ্তা হামলা, ১৮ জন নিহত

    নাইজেরিয়ায় গাড়িবহরে চোরাগোপ্তা হামলা, ১৮ জন নিহত

  • করোনায় আরও সহস্রাধিক ভারতীয়ের মৃত্যু

    করোনায় আরও সহস্রাধিক ভারতীয়ের মৃত্যু

  • ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছরই কর দেননি ট্রাম্প!

    ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছরই কর দেননি ট্রাম্প!

সর্বশেষ খবর

টিআইবির পুরস্কার পেলেন ৪ সাংবাদিক

শেখ হাসিনা এদেশের মানুষের হৃদয়ের স্পন্দন: ওবায়দুল কাদের

অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন

ঢাকায় ৭৬ শতাংশ মানুষ চাকরি হারিয়েছে: ওয়ার্ল্ড ব্যাংক