সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: হাওরে হাহাকার, ফসল হারিয়ে সর্বস্বান্ত কৃষক, অনেক জায়গায় ত্রাণ না পৌঁছানোর অভিযোগ হাওরবাসীর; পরবর্তী ফসল না উঠা পর্যন্ত সহায়তা দেবে সরকার: ত্রাণমন্ত্রী Desh TV Logo রাজশাহী শহরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ‘ব্লক রেইড’ চলছে Desh TV Logo সিলেটের শাহী ঈদগাহ এলাকায় একটি স্কুলে বোমা সদৃশ বস্তুর সন্ধান, উদ্ধারে কাজ করছে র‌্যাব Desh TV Logo ভাস্কর্য ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্ট যেন কলুষিত না হয়, ভাস্কর্য সরানোর সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধান বিচারপতি: আইনমন্ত্রী Desh TV Logo রাজধানীর পানি নিষ্কাশনে ব্যর্থ ওয়াসা: সাঈদ খোকন Desh TV Logo রাজ্যের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে তিস্তার পানি দেওয়া হবে না, আবারো বললেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় Desh TV Logo গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে গাড়ি ভাঙচুরের মামলায় বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের ২৫ নেতাকর্মীর ৫ বছর করে কারাদণ্ড Desh TV Logo বরগুনার বেতাগী উপজেলার বামনা খেয়াঘাটে র‌্যাবের অভিযানে অপহৃত এক শিশু উদ্ধার, ২ জন অপহরণকারী গ্রেপ্তার Desh TV Logo চট্টগ্রামের বাঁশখালীর ফাথরিয়া ইউনিয়নের একটি ভোট কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৩ Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: উত্তর কোরিয়াকে ঘিরে উত্তেজনার প্রেক্ষাপটে দক্ষিণ কোরিয়া পৌঁছেছে মার্কিন সাবমেরিন Desh TV Logo কেনিয়ায় বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২৪ Desh TV Logo ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন: দ্বিতীয় পর্বে পৌঁছানোর একদিন পরই উগ্র-ডানপন্থী পার্টি ‘এফএন’ প্রধানের পদ ছাড়ার ঘোষণা দিলেন মারি লো পেন Desh TV Logo খেলা: ক্রিকেট: চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি আমাদের জন্য কঠিন হবে, তবে মানসিক শক্তি আমাদের এগিয়ে রাখতে পারে, ত্রিদেশীয় সিরিজে ভালো করতে পারলে আত্মবিশ্বাস বাড়বে: মাশরাফি Desh TV Logo ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ হলেন সাউথ আফ্রিকার সাবেক বোলার লনওয়াবো সোতসোবে Desh TV Logo ফুটবল: ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ: চেলসি-সাউদাম্পটন (রাত পৌনে ১টা) Desh TV Logo স্প্যানিশ লা লিগা: অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ-ভিয়ারিয়াল (রাত দেড়টা) Desh TV Logo জার্মান কাপ (সেমিফাইনাল): মুনশেনগ্ল্যাডবাখ-ফ্রাঙ্কফুর্ট (রাত পৌনে ১টা) Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

সেন্ট্রাল আফ্রিকায় দুর্বৃত্তের গুলিতে বাংলাদেশি সৈনিক নিহত

শনিবার, ০৭ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৩:৩৪)
সেন্ট্রাল-আফ্রিকায়-দুর্বৃত্তের-গুলিতে-বাংলাদেশি-সৈনিক-নিহত

সেন্ট্রাল আফ্রিকায় দুর্বৃত্তের গুলিতে বাংলাদেশি সৈনিক নিহত

দেশের জন্য কাজ করার স্বপ্ন পূরণ হলো না বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিপাহী আব্দুর রহিমের। পারলেন না পরিবারের দারিদ্র্য দূর করে সবার মুখে হাসি ফোটাতেও।

সেন্ট্রাল আফ্রিকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হলেন জাতিসংঘ মিশনে নিয়োজিত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিপাহী আবদুর রহিম। তার বাড়ি সাতক্ষীরার হাজিরপুরে চলছে এখন শোকের মাতম। এই অকাল মৃত্যুতে দিশেহারা তার পরিবার।

গত বৃহস্পতিবার সকালে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকে ব্যানব্যাট-৩ এর টহল দলে সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। এসময় স্থানীয় একদল সন্ত্রাসীর সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয় ব্যানবেট-৩। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ব্যানব্যাট-৩ টহল দলের সৈনিক আব্দুর রহিম মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের পাল্টা আক্রমণে ওই সন্ত্রাসী দল দ্রুত ঘটনাস্থল ছেড়ে পালিয়ে যায়। রহিমের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে এনে যথাযোগ্য মর্যাদায় সমাহিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। গতকাল আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর-আইএসপিআর এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে। তবে মিশনে বাংলাদেশি অন্যান্য শান্তিরক্ষীগণ নিরাপদে রয়েছেন।

২০১৪ সাল থেকে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকে জাতিসংঘ পরিচালিত শান্তিরক্ষা মিশনে (মিনুসকা) বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা নিয়োজিত আছেন।

রহিমের মৃত্যুতে শোকের মাতম চলছে সাতক্ষীরা সদরের হাজিপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে। কৃষক আব্দুল মাজেদ ও গৃহিনী রওশন আরার তিন সন্তানের মধ্যে সবার বড় আব্দুর রহিম। তার স্বপ্ন ছিলো দেশের জন্য কাজ করা ও পরিবারের দারিদ্রতা দূরে করে সবার মুখে হাসি ফোটানো। এই অকাল মৃত্যুতে পূরণ হলো না তার স্বপ্ন। প্রিয়জনকে হারানোর বেদনায় আহাজারি করছেন বাবা, মা, স্ত্রী, ভাই, বোন। আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছেন তাদের সান্তনা দিতে আসা প্রতিবেশি আর স্বজনরাও।

রহিমের পাঁচ মাসের সন্তান বাবাকে চেনার আগেই হারিয়ে ফেলেছে। ৪ বছর আগে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার রাজবাড়িয়া গ্রামের রুবাইয়া সুলতানা রানুকে বিয়ে করেন তিনি।

১৯৮৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর হাজিরপুর গ্রামে দরিদ্র পরিবারে জন্ম নেন রহিম। স্থানীয় ঝাউডাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয় ও হাইস্কুল থেকে লেখা পড়া শেষ করে কলারোয়া উপজেলার সরকারি মহাবিদ্যালয়ে ভর্তি হন। কিন্তু অভাবের সংসার পড়াশোনা আর শেষ করতে পারেননি রহিম। পরে ২০০৫ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সিপাহী পদে নিয়োগ পান আবদুর রহিম। সেই থেকেই সংসারের দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

Desh Television দেশটিভিতে আজকের অনুষ্ঠান
  • সোজা কথা

    সোজা কথা

    সরাসরি সম্প্রচার

    রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১১.৪৫

  • দূরপাঠ

    দূরপাঠ

    সরাসরি সম্প্রচার

    রবিবার থেকে বৃহস্পতি বিকেল ৫টায়

  • টোটাল স্পোর্টস

    টোটাল স্পোর্টস

    অনুষ্ঠান

    প্রতিদিন রাত ১২.৩০

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০