রবিবার, ০১ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৮:২২)

সাংসদ লিটনের মরদেহ ঢাকায়

হত্যার প্রতিবাদে সুন্দরগঞ্জে হরতাল পালন
গাইবান্ধার-সাংসদ-লিটনকে-হত্যার-প্রতিবাদে-সুন্দরগঞ্জে-হরতাল-চলছে

মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের মরদেহ

গাইবান্ধার সাংসদ মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় রোববার হরতাল পালন করা হয়েছে।

বামনডাঙা স্টেশনে সান্তাহারগামী একটি ট্রেন সকাল সাড়ে আটটা থেকে আটকে রাখে সাংসদের সমর্থকেরা—সান্তাহার-লালমনিরহাট রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে। এ হত্যার প্রতিবাদে বামনডাঙ্গায় জামাত সমর্থকদের দুটি ওষুধের দোকান ভাঙচুর করেছে নিহতের সমর্থকরা। গাইবান্ধা সদরের বেশির ভাগ দোকানপাট বন্ধ ছিল, বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়।

এদিকে, সকালে রংপুরে যান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবীর নানক।

এ সময় তিনি বলেন, ঘটনাটি জামাত-শিবির কর্মীরা ঘটিয়েছে—অবিলম্বে হত্যাকারীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।

পুলিশ জানিয়েছে, এ হত্যা ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন হিসেবে ১০ জনকে আটক করা হয়েছে।

রোববার সকালে রংপুর পুলিশ লাইন স্কুল মাঠে সাংসদ লিটনের প্রথম নামাজে জানাযা শেষে মরদেহ হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে আনা হয়।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবীর নানক বলেন, সোমবার সকাল ১০টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় দ্বিতীয় নামাজে জানাযা শেষে মরদেহ আবার গাইবান্ধায় নেয়া হবে। পরে, সেখানে তৃতীয় নামাজে জানাযা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে জানান তিনি।

নানকের সঙ্গে আছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক ও জাতীয় সংসদের হুইপ মাহবুব আরা গিনি।

এদিকে, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে এমপি লিটন হত্যার প্রতিবাদে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলে। বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা বামনডাঙা রেলস্টেশনে বিক্ষোভ করে ও লালমনিরহাট থেকে সান্তাহারগামী বগুড়া মেইল ট্রেন অবরোধ করে রাখে।

শনিবার সন্ধ্যা পৌণে ৬টার দিকে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের সর্বানন্দ ইউনিয়নের শাহবাগ এলাকায় নিজ বাসভবনের নিচতলায় বসে কয়েকজন কর্মীর সঙ্গে সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করছিলেন সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। এসময় তিন জন যুবক একটি মোটরসাইকেলে করে তার বাসার সামনে আসে। তাদের মধ্যে দুজন সংসদ সদস্যের সঙ্গে দেখা করার কথা বলে ভেতরে ঢুকে তাকে লক্ষ্য করে তিন রাউন্ড গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় লিটনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয় পরে, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সাংসদ লিটনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে স্থানীয় জামাত-শিবিরকে দায়ী করা হচ্ছে।

সাংসদের এপিএস জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গতকাল রাতে সাংসদের ময়নাতদন্ত হয়েছে, ঢাকায় জাতীয় সংসদ ভবনে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন ১০ জনকে আটক করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তিনি তাদের নাম বলা হয়নি।

বামনডাঙা ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক নাদিম হোসেন বলেন, সাংসদের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত হরতাল চলবে।

প্রসঙ্গত: ২০১৫ সালের ২ আক্টোবর সকালে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে গোলাপচরণ গ্রামের রাস্তা দিয়ে গাড়ি চালানোর সময় শাহাদাত হোসেন সৌরভ নামের এক শিশুকে গুলি করে বিতর্কিত হয়ে ওঠেন এ সংসদ সদস্য। তিনি জামিনে ছিলেন।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

ফরিদপুরে গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে একজন নিহত

কুমিল্লায় বাসচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

গাজীপুরে নিরাপত্তা প্রহরীকে জবাই করে হত্যা

বিএনপি না আসলে নির্বাচন বন্ধ থাকবে না: কাদের

আরও খবর

কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্ব নিলেন রাহুল গান্ধী

শহীদ মুস্তাক একাদশের বিপক্ষে জিতেছে শহীদ জুয়েল একাদশ

দুবাইয়ে টি-টেন লিগের প্রথম ম্যাচেই ঝড় তামিমের

দুবাইয়ে জয় দিয়ে টি-টেন লিগ শুরু তামিম-সাকিবের

বিবিসি ওভারসীজ স্পোর্টস পারসোনালিটি অ্যাওয়ার্ড জিতলেন ফেদেরার

হুইলচেয়ার ক্রিকেট: ভারতকে হারালো বাংলাদেশ

শ্রবণ-বাক প্রতিবন্ধীদের জন্য আদালতে ইশারাভাষী নিয়োগের আহ্বান

সংসদ ভবনে ছায়েদুল হকের কফিনে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

উত্তর সিটি নির্বাচন: জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা

রংপুর সিটি নির্বাচন যদি প্রশ্নবিদ্ধ হয় তা হবে বিএনপির সদিচ্ছাতেই