সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: বিএনপি-জামাত ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোই এমপি লিটনের কাল হয়েছিল, সংসদে প্রধানমন্ত্রী Desh TV Logo আগামীর বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো যোগ্য করে শিশুদের তৈরি করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর Desh TV Logo টঙ্গীর তুরাগ তীরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের বিশ্ব ইজতেমা; মোনাজাতে বিশ্বশান্তি, মুসলিম উম্মাহর ও বাংলাদেশের কল্যাণ কামনা Desh TV Logo বিএনপির মতো দলীয় লোকের নাম সার্চ কমিটিতে প্রস্তাব করেনি আওয়ামী লীগ, রাষ্ট্রপতি দল নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন: ওবায়দুল কাদের; Desh TV Logo ২০২০ সালের মধ্যে বাংলাদেশে শক্তশালী পুঁজিবাজার গড়ে উঠবে: অর্থমন্ত্রী Desh TV Logo তথ্যপ্রযুক্তি আইনে এক নারীর করা মামলায় ক্রিকেটার আরাফাত সানি একদিনের রিমান্ডে Desh TV Logo জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় সাবেক রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের তৎকালীন এপিএস ওমর ফারুক তালুকদারের ৫ বছর কারাদণ্ড Desh TV Logo মানবাতাবিরোধী অপরাধে বাগেরহাটের রাজাকার খান আশরাফ আলীসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত চূড়ান্ত Desh TV Logo নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় করা ডায়েরি মামলা হিসেবে গ্রহণ করে ঢাকার সিএমএম আদালতে পাঠানোর নির্দেশ হাইকোর্টের Desh TV Logo নারায়ণগঞ্জে ৭ খুন মামলায় মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত নূর হোসেনকে অন্য ৮ মামলায় আদালতে নেওয়া হয়েছে Desh TV Logo সাভার ও রাজবাড়ীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জনের মৃত্যু Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম কার্যদিবসে সিআইএ’র সদরদপ্তর পরিদর্শন করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প Desh TV Logo ওয়াশিংটন, নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে ট্রাম্প বিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত, রাজপথে নেমেছে ১০ লক্ষাধিক মানুষ; বিশ্বের ৬০টির বেশি দেশে চলছে এই বিক্ষোভ Desh TV Logo ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ৩২, আহত ৫৪ Desh TV Logo খেলা: ক্রিকেট: ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট: বৃষ্টির কারণে তৃতীয় দিনের খেলা পরিত্যক্ত, বৃষ্টি না থাকলে কাল ভোর সাড়ে ৩ টায় খেলা শুরু হবে, প্রথম ইনিংসে ২৯ রানে পিছিয়ে নিউজিল্যান্ড; স্কোর: বাংলাদেশ ২৮৯, নিউজিল্যান্ড ২৬০/৭ (সাকিব ৩/৩২, রাব্বি ২/৪৮) Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

জিয়া হত্যাকাণ্ড—এ নিয়ে রাজনীতি নয়

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়ার ৩৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ
সোমবার, ৩০ মে, ২০১৬ (১৪:০৩)
জিয়া-হত্যাকাণ্ড—এ-নিয়ে-রাজনীতি-নয়

জিয়াউর রহমান

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ- সোমবার।

ক্ষমতায় থাকার সময় জিয়া হত্যার বিচারে তৎপর না হলেও ৩৫ বছর পর এসে বিএনপি এখন ওই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করছে— তবে এনিয়ে দলটি কোনো রাজনীতি করতে চায় না।

বিগত ১৯৮১ সালের এ দিনে চট্টগ্রামে এক ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে নিহত হন জেনারেল জিয়া। যিনি একাত্তরের ২৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ করেন। মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন সেক্টর কমান্ডার হিসেবে। সামরিক শাসনের মধ্যে রাষ্ট্রপতির পদে বহাল থেকে ১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি।

জিয়া হত্যার পর বিচার হয়েছে সামরিক বিদ্রোহের, ৩৫ বছরেও বিচার হয়নি জিয়া হত্যার— এ বিষয়ে বিএনপির অবস্থানও রহস্যাবৃত। তবে ক্ষমতায় থাকাকালীন বিচারের উদ্যোগ না নিলেও এখন জিয়া হত্যার বিচার দাবি করছে বিএনপি।

জিয়াউর রহমানের জন্ম ১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বগুড়া জেলার বাগবাড়ী গ্রামে। পড়াশোনা করেছেন কলকাতার হেয়ার স্কুল আর করাচির ডি. জে কলেজে। পাকিস্তান মিলিটারি একাডেমিতে ক্যাডেট হিসেবে যোগদান ১৯৫৩ সালে, আর কমিশন প্রাপ্তি ৫৫-সালে। ১৯৭০-এ দায়িত্ব পান চট্টগ্রাম অষ্টম ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের সেকেন্ড ইন কমান্ডের। একাত্তরের ২৫ মার্চ নিরস্ত্র বাঙালির ওপর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী বর্বর হামলার পর ২৭ মার্চ চট্টগ্রাম বেতার কেন্দ্র থেকে বঙ্গবন্ধুর পক্ষে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ করেন মেজর জিয়া।

এর পর সেক্টর কমান্ডার হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে বীরত্বের জন্য পেয়েছেন বীর উত্তম খেতাব।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান হত্যার পর রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের সময়ে সেনাপ্রধান নিযুক্ত হন জেনালের জিয়া। ক্যু পাল্টা ক্যুর ঘটনার পরিক্রমায় একপর্যায়ে রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসেন তিনি। ১৯৭৭ সালের ২১ এপ্রিল শপথ নেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে।

১৯৭৮ এর শুরুতে জাগদল গঠন আর ওই বছরের সেপ্টেম্বরে প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। সামরিক জীবনে জেনারেল জিয়া ছোট বড় বেশকটি অভ্যুত্থান সামলাতে সক্ষম হলেও রাষ্ট্রপতি থাকাকালীন ১৯৮১ সালের ৩০ মে গভীর রাতে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে এক ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে নিহত হন জেনারেল জিয়াউর রহমান।

ওই ঘটনার পর ১ জুন কোতোয়ালি থানায় একটি মামলাও করা হয়। পরবর্তী সময়ে অভ্যুত্থানের অভিযোগে বেশ কয়েকজন সামরিক কর্মকর্তাকে সামরিক আইনে বিচার করে ফাঁসি দেয়া হয়। তবে ৩৫ বছরেও জিয়া হত্যার বিচার হয়নি। বরং অজ্ঞাত কারণে ওই হত্যাকাণ্ডের কোনো আলামত লাশের সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়নি। হত্যাকাণ্ডে বেসামরিক কারো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি এই মর্মে ২০০১ সালে ওই মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়ার পর মূলত অপমৃত্যু ঘটে জিয়া হত্যা মামলার।

পরে বিএনপি দুবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় এলেও রহস্যজনকভাবে এ হত্যা মামলার তদন্ত ও বিচারকাজ নিয়ে পুরোপুরি নীরব থাকে বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব।

তবে, জিয়া হত্যা মামলা হিমঘরে চলে গেলেও তা আবারো চালু করতে কোনো বাধা নেই বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

ক্ষমতায় থাকার সময় জিয়া হত্যার বিচারে তৎপর না হলেও ৩৫ বছর পর এসে বিএনপি এখন ওই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করছে— তবে এনিয়ে দলটি কোনো রাজনীতি করতে চায় না।

জিয়া হত্যার নেপথ্যে ওই সময়ের সেনাপ্রধান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ জড়িত বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছে বিএনপি।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
৩১