আন্তর্জাতিক

মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮ (১১:২০)

ক্ষেপনাস্ত্র মোতায়েনের জেড়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় বিক্ষোভ-সংঘর্ষ

ক্ষেপনাস্ত্র মোতায়েনের জেড়ে বিক্ষোভ

মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘থাড’ মোতায়েনের বিরোধিতা করে সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন শত শত গ্রামবাসী। সেদেশে অবস্থিত একটি মার্কিন সেনাঘাঁটির সামনে আমেরিকা বিরোধী বিক্ষোভ দেখানোর সময় পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। দক্ষিণ কোরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর শিয়ংজু’র ওই মার্কিন ঘাঁটিতে ‘হাই অ্যালটিচুড এরিয়া ডিফেন্স’ বা থাড ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করার কথা রয়েছে।

ঐ দিন ঘাঁটিটিতে ওই ব্যবস্থার বিভিন্ন অংশ প্রবেশের সময় আগে থেকে ঘাঁটিটি অবরোধ করে রাখা শত শত গ্রামবাসী তাতে বাধা সৃষ্টি করে। তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে হাজার হাজার দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করতে হয়। এ সময় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হয়।

পরে বিক্ষোভকারীরা এক বিবৃতিতে বলেন, “উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার সম্পর্কে উত্তেজনা অনেকাংশে কমে এসেছে। শিগগিরই দুই কোরিয়ার শীর্ষ নেতাদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। কাজেই উত্তর কোরিয়াকে প্রতিহত করার অজুহাতে থাড মোতায়েন করার কোনো প্রয়োজন নেই।”

দক্ষিণ কোরিয়ার জনগণ ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময় থেকে ওই মার্কিন সেনাঘাঁটিকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। একারণে সেনাঘাঁটিটির খাদ্য ও জ্বালানীসহ অন্যান্য সরবরাহ হেলিকপ্টারে করে করতে হচ্ছে।

২০১৬ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন-হাই উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য ক্ষেপণাস্ত্র হামলা প্রতিহত করার জন্য তার দেশে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থাড মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেন। পরবর্তীতে দেশটিতে সরকার পরিবর্তন হলেও থাড মোতায়েনের সিদ্ধান্তে অটল থাকে সিউল।

এছাড়াও রয়েছে

কিউবায় বিমান বিধ্বস্ত: মৃতদেহ বেড়ে ১১০ জনে

আফগানিস্তানে ক্রিকেট টুর্নামেন্টে বোমা হামলায় নিহত ৮

কিউবায় বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ১০০

মালয়েশিয়ার দুর্নীতিবিরোধী সংস্থায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিবকে তলব

হ্যারি-মেগানের বিয়ে অনুষ্ঠিত

টেক্সাসে একটি হাইস্কুলে গুলিবর্ষণের ঘটনায় ১০ জন নিহত

হেলিকপ্টার থেকে গোলাবারুদের বাক্স পড়ল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপর!

মিয়ানমারের সামরিক কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইন পাস

কাদেরের মন্তব্যে, একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী

মিঠাপুকুরে নাইটকোচের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষ, নিহত ২ আহত ১০

মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে: কামাল

আরো একটি রূপকথার বিয়ের সাক্ষী হলো বিশ্ববাসী