সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় জাতিসংঘ মহাসচিব প্রশংসা করেছেন, তিনি বাংলাদেশের পাশেই আছেন, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে চাপ প্রয়োগে ওআইসি’র প্রতি আহ্বান, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ্ব সম্প্রদায় বাংলাদেশের প্রশংসা করেছে: নিউইয়র্কে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা Desh TV Logo রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানে জাতিসংঘে ৫ দফা প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর, দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান Desh TV Logo রাখাইনে রোহিঙ্গা গ্রামে বাড়িঘরে এখনো আগুন জ্বলছে: অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল Desh TV Logo রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ও পুনর্বাসনে সেনাবাহিনী কাজ শুরু করেছে Desh TV Logo জঙ্গি অর্থায়নে জড়িত থাকার অভিযোগে রাজধানী থেকে ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র্যা ব Desh TV Logo নওগাঁয় বাসের ধাক্কায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: জম্মু ও কাশ্মির সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর গুলিতে ৬ পাকিস্তানি নাগরিক নিহত, দাবি পাকিস্তান সেনাবাহিনীর Desh TV Logo মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং উত্তর কোরীয় নেতা উনের বাকযুদ্ধকে কিন্ডাগার্টেনের শিশুদের ঝগড়ার সঙ্গে তুলনা করেছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী Desh TV Logo জার্মানিতে কাল জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ, জনমত জরিপে প্রতিদ্বন্দ্বী মার্টিন শুলজের চেয়ে এগিয়ে চ্যান্সেলর মেরকেল Desh TV Logo ইন্দোনেশিয়ার বালিতে আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতের আশঙ্কা, সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি, ১০ হাজার লোককে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে Desh TV Logo খেলা: ক্রিকেট: বেনোনিতে প্রস্তুতি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যাট করছে বাংলাদেশ; স্কোর: বাংলাদেশ-৩০৬/৭ ডি. ও ৬/০ (ইমরুল ৪*, লিটন ২*), দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশ ৩১৩/৮ ডি. Desh TV Logo ই ডেন গার্ডেন্সে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়াকে ৫০ রানে হারিয়েছে ভারত Desh TV Logo ফুটবল: উলফসবুর্গের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ২-২ গোলে ড্র করেছে বায়ার্ন মিউনিখ Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকাল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

রাখাইনের প্রত্যেক নাগরিককে রক্ষার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার: সূ চি

বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ (১৮:১৫)
রাখাইনের-প্রত্যেক-নাগরিককে-রক্ষার-প্রচেষ্টা-চালিয়ে-যাচ্ছে-সরকার-সূ-চি

মৃত্যুর পাহাড়ে দাঁড়িয়ে সু চি যা বললেন

সরকার সংঘাতকবলিত রাখাইন রাজ্যের প্রত্যেক নাগরিককে রক্ষার জন্য সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সু চি।

বৃহস্পতিবার ‘এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল’-এর সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন সু চি।

তবে তিনি রাখাইন রাজ্যে নির্যাতনের শিকার সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিষয়ে কোনো কিছু বলেননি।

বার্তা সংস্থার খবরে বলা হচ্ছে, রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের শিকার হয়ে রাখাইন থেকে এ পর্যন্ত দেড় লাখেরও বেশি মুসলিম রোহিঙ্গা সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এ ছাড়া নাফ নদী পার হয়ে বাংলাদেশে আসতে গিয়ে এ পর্যন্ত নারী-শিশুসহ ৮৫ জনের করুণ মৃত্যু হয়েছে।

আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি বা আরসা নামে একটি গোষ্ঠী গত ২৪ আগস্ট রাতে রাখাইনের কয়েকটি পুলিশ চৌকিতে অতর্কিতে হামলা চালায়। এ ঘটনার পর সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা অধ্যুষিত মংডু, রাথেডাং, বোথেডাং এলাকায় অভিযান চালায়। সেনা অভিযানে এ পর্যন্ত চার শতাধিক বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন যার বেশির ভাগই রোহিঙ্গা।

মিয়ানমারে মোট ১১ লাখ রোহিঙ্গার বসবাস। যারা দীর্ঘদিন ধরে বৌদ্ধপ্রধান মিয়ানমারে জাতিগত নিপীড়নের শিকার।

রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনায় পশ্চিমা পর্যবেক্ষকদের অনেকেই ১৯৯১ সালে শান্তিতে নোবেলজয়ী অং সান সু চির কঠোর সমালোচনা করেছেন। এমনকি অনেকে তার নোবেল পুরস্কার কেড়ে নেয়ার কথাও বলেছেন।

তাদের কথা, সু চি রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার রক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন।

অং সান সু চি বলেন, আমাদের নাগরিকদের রক্ষা করতে হবে, আমাদের সবাইকে রক্ষা করতে হবে, যারা আমাদের দেশে আছে, এমনকি তারা আমাদের নাগরিক না হলেও।

এর আগে ইয়াঙ্গুনে ভারতের সফররত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে সু চি বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের সম্পদ যথাযথ নয় এবং পর্যাপ্তও নয়। কিন্তু আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আমাদের এটা নিশ্চিত করতে হবে, প্রত্যেকে আইনের সুরক্ষা পাওয়ার অধিকারী।’

মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি মঙ্গলবার ভুয়া তথ্যের অবাধপ্রবাহে মিয়ানমারের রাখাইনের পরিস্থিতি বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, এ ধরনের সংবাদ উগ্রপন্থীদের সাহায্য করছে। এটা ছিল রাখাইনে নতুন করে রোহিঙ্গা সংকট শুরু হওয়ার পর প্রথমবারের মতো দেয়া বক্তব্য। সূত্র: রয়টার্স।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০