ফিচার

মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬ (১৪:০৫)

আরেক ভাষা সংগ্রামী সিরাজুল ইসলাম

সিরাজুল ইসলাম

বাংলাকে রাষ্টভাষা করার দাবিতে সারাদেশে শুরু হয় আন্দোলন। ১৯৫২ সালে লালমনিরহাটের ছাত্রজনতাও সরব হয়ে উঠে ভাষার দাবিতে। বায়ান্নো'র ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় আন্দোলন শুরু হলে লালমনিরহাটেও মিছিল মিটিং করেন ছাত্র জনতা। আন্দোলনের কারণে ভোগ করতে হয় পুলিশের নির্যাতন।

তাঁদেরই একজন ভাষা সংগ্রামী সিরাজুল ইসলাম। পাকিস্তানী শাসক গোষ্টীর চাপিয়ে দেয়া সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন। সফলও হয়েছিলেন। তবে সেসময় আন্দোলনকারীদের অনেকেকেই ভোগ করতে হয়েছিলো পুলিশের নানা নির্যাতন। সর্বস্তরে বাংলা প্রচলনের দাবি এই ভাষা সংগ্রামীর।

সেদিনের সেই ভাষা সংগ্রামী সিরাজুল ইসলাম। লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী ইউনিয়নের বালাপুকুর গ্রামের জন্ম তার।

বর্তমানে তার বয়স ১০০ ছুঁই ছুঁই। সহায় সম্বল বলতে শুধু মাত্র ৫বিঘা জমি। আর বসত বাটি। বয়সের ভারে শরীরে নানা রোগ বাসা বেঁধেছে। কোন কাজ কর্ম করতে পারেননা। ফলে উপার্জন কমে গেছে। অর্থাভাবে থেমে আছে চিকিৎসা।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, ভাষা দিবসটি দেশে বিদেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলেও সেই সময়ের ভাষা সৈনিকেরা এখনও অবহেলিত।

সরকার যেন ভাষা শহীদদের নামে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা সড়কের নামকরণ করে এমনটাই দাবী এই ভাষা সৈনিকের।

এছাড়াও রয়েছে

মাদকের মতোই ক্ষতিকর স্মার্টফোনের আসক্তি

ফেসবুক এ্যাকাউন্ট মুছে ফেলতে কি কি করণীয়

মোঘল স্থাপত্য শৈলীর অন্যতম নিদর্শন মুন্সিগঞ্জে ইদ্রাকপুর দুর্গ

ভাষা আন্দোলনের সাহসী নারী লায়লা নূর

সাহসী এক নারী মুক্তিযোদ্ধা কনক মজুমদার

‘বাংলার টাইগ্রেস’ রিতা

শেরপুরের কাঁটাখালী গণহত্যা দিবস আজ

ঈদ বাজারে জায়গা করে নিচ্ছে ভিনদেশি পোশাক

কাদেরের মন্তব্যে, একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী

মিঠাপুকুরে নাইটকোচের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষ, নিহত ২ আহত ১০

মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে: কামাল

আরো একটি রূপকথার বিয়ের সাক্ষী হলো বিশ্ববাসী