বিশ্ব পর্যটন দিবস আজ

মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ (১৪:০৩)
বিশ্ব-পর্যটন-দিবস-আজ

বিশ্ব পর্যটন দিবস

বিশ্ব পর্যটন দিবস আজ (মঙ্গলবার)— বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পালন করা হচ্ছে দিনটিকে। এবারের দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘সকলের জন্য পর্যটন’। এ প্রতিপাদ্যকে যথার্থ করতে হলে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের জন্য পর্যটন ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে হবে বলে অভিমত বিশিষ্টজনদের।

সবুজ পাহাড় আর সেই পাহাড়ের গুহা ও উঁচু থেকে নেমে আসা ঝর্ণার শীতল পানি। বনের নিবিড় ছায়া, রয়েল বেঙ্গল টাইগারের হুঙ্কার, চিত্রা হরিণের অবাধ বিচরণ কিংবা বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকতের নীল জলরাশি। রয়েছে আদিবাসীদের বৈচিত্রময় জীবন-সংস্কৃতি। বিভিন্ন ধর্মের মিলনমেলার সঙ্গে ভিন্ন কৃষ্টি-কালচার, খাবারের ভিন্নতা, ভাতৃত্ববোধ, পারস্পরিক শ্রদ্ধার এক অপূর্ব মিশেল বাংলাদেশ।

বিশ্ব পর্যটন দিবসে বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক চেতনার রূপ তুলে ধরাই হবে অন্যতম উদ্দেশ্য বলে অভিমত বিশিষ্টজনদের। দিবসটি উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তারা। সবার জন্য পর্যটনকে উন্মুক্ত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আহবান জানান বক্তরা।

এ সময় পর্যটন শিল্পের বিকাশে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সিইও আখতারুজ্জামান খান কবির।

এর আগে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি সংগঠন র্যা লি বের করে।

এদিকে, সারাদেশের মতো নানা আয়োজনে খুলনায় উদযাপিত হচ্ছে বিশ্ব পর্যটন দিবস। তবে বিশ্বের ঐতিহ্য সুন্দরবনকে ঘিরে পর্যটন শিল্পের বিকাশের সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও কোনো পর্যটন অফিস এখনও গড়ে ওঠেনি এ বিভাগীয় শহরে। তবে সুন্দরবনকে ঘিরে ব্যক্তি ও বন বিভাগের উদ্যোগে চলছে পর্যটন ব্যবসা আর এ ব্যবসার মাধ্যমে আসছে রাজস্ব।

বাংলাদেশের পাঁচ জেলার ৬ হাজার ১৭ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে গড়ে উঠেছে প্রকৃতির অনন্য সৃষ্টি সুন্দরবন। সুন্দরীসহ ২৬২ প্রজাতির বৃক্ষের সমরোহে প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট এ বন।

রয়েল বেঙ্গল টাইগারসহ ১৫০ প্রজাতির বন্যপ্রাণীর আবাসস্থল এ সুন্দরবন। বনে রয়েছে ৩৫৫ প্রজাতির পাখিও। বিশ্বের এই ঐতিহ্যকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বেসরকারী উদ্যোগে গড়ে উঠেছে পর্যটন ব্যবসা।

অক্টোবর থেকে মার্চ পর্যন্ত নদী শান্ত থাকার সময়ে প্রকৃতিপ্রেমী পর্যটকরা এর সৌন্দর্য আর রহস্যের হাতছানিতে ছুটে আসেন এখানে।

তবে নানাবিধ সমস্যার কারণে পর্যটনের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকার পরও এর প্রসার ঘটছে না বলেও জানান সুন্দরবন ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি কচি জমাদ্দার।

তবে এ সমস্যা সমাধানে চেষ্টা করছে বলে জানিয়ে খুলনা বন বিভাগ মো. সাঈদ আলী বলেন, সুন্দরবনের সুরক্ষা যেমন নিশ্চিত করতে হবে তেমনি বনকে ঘিরে পর্যটন শিল্পের ব্যাপক সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে এর প্রসারও ঘটাতে হবে।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

বন্যপ্রানী চোরাচালানে বাংলাদেশকে ব্যবহার করা হচ্ছে

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ নিম্নচাপে পরিণত, অগ্রসর হচ্ছে উত্তরে উপকূলে

জলবায়ু পরিবর্তন: ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর তালিকায় বাংলাদেশ সেই ষষ্ঠতেই

জলবায়ু চুক্তিতে যোগ দিচ্ছে সিরিয়া

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ভূকম্পন অনুভূত

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে আকাশ মেঘলাসহ গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাত