শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন

সোমবার, ১১ মার্চ, ২০১৯ (১৯:২৭)

রোকেয়া হল থেকে সিল দেয়া তিন ট্রাঙ্ক ব্যালট উদ্ধার

রোকেয়া হল

রোকেয়া হল থেকে তিন ট্রাঙ্ক ব্যালট উদ্ধারের পর ডাকসু নির্বাচনে ভোটগ্রহণ বন্ধের পর আবার নেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, হলের একটি রুম থেকে ব্যালটে সিল মারা ব্যালট উদ্ধার করা হয়।

প্রসাশনিক কর্মকর্তা জানান, শুরু থেকে জটিলতার কারণে নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পর রোকেয়া হলে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

এর আগে সোমবার সকালে কুয়েত মৈত্রী হল থেকে সিল মারা এক বস্তা ব্যালট পেপার উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ওই হলের প্রভোস্ট শবনব জাহানকে অপসারণ করা হয়।

কুয়েত হলের প্রার্থী ও ভোটাররা জানান, ভোট শুরুর আগে থেকে হলের অডিটোরিয়ামে একটি কক্ষ আগে বন্ধ ছিল। সকালে সেই কক্ষ থেকে প্রার্থী ও ভোটাররা এক বস্তা ব্যালট উদ্ধার করে। তাতে ছাত্রলীগের প্রার্থীদের নামে সিল মারা ছিল। পরে প্রার্থী ও শিক্ষার্থীদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচনি কর্মকর্তারা ভোট বন্ধ করে দেন।

তবে অনিয়মের অভিযোগ ও শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের পর অবশেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।

সোমবার সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করতে থাকলে তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দফা-রফা শেষে ১১টা ১০ মিনিটে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

সকালে হলের গেটের সামনে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেন।

এসময় তাদের হাতে আগে থেকে সিল মারা ব্যালট পেপার দেখা যায়। শিক্ষার্থীরা জানান, সকাল ৮টায় ভোটাররা ভোট দিতে লাইনে দাঁড়ান। প্রক্টর গিয়ে সেখানে কথা বলে সময় কাটানোর চেষ্টা করেন। পরে শিক্ষার্থীরা জোর করে ঢুকলে সিল মারা ব্যালট উদ্ধার করা হয়।

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামাদ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রব্বানীও। এরপর হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক শবনম জাহানকে অব্যাহতি দেয়া হয়। নতুন প্রভোস্ট হিসেবে ড. মাহবুবা নাসরীনকে নিয়োগ দেয়া হয়।

পুনরায় নির্বাচনের ঘোষণা দেন ডাকসুর সহকারী রিটার্নিং অফিসার ড. মাহফুজুর রহমান।

তিনি বলেন, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে হল প্রভোস্টকে অব্যাহতির সিদ্ধান্ত হয় এবং নতুন হল প্রভোস্ট নিয়োগ করা হয়েছেন। এ হলের নির্বাচন ১১টা ১০ মিনিট থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৫টা ১০ মিনিট পর্যন্ত চলবে।

শিক্ষার্থীরা এসময় অভিযোগ করেন, আগে থেকে যেসব ব্যালট পেপারে সিল মারা হয়েছে, সেখানে ছাত্রলীগের প্যানেলের প্রার্থীদেরই ভোট দেয়া হয়েছে। তাই তাদের বাদ দিয়ে নির্বাচন করার দাবি জানান তারা।

রিটার্নিং কর্মকর্তা এ দাবি মেনে না নিলে তখন ব্যালট পেপারে ছাত্রলীগের প্যানেল কেটে দিয়ে সিল মারা হবে বলে সিদ্ধান্তে উপনীত হয় দুই পক্ষ।

এসময় হলটির নবনিযুক্ত প্রভোস্ট ড. মাহবুবা নাসরীন বলেন, ভোট সুষ্ঠু হবে। সিল মারা সকল ব্যালট পেপার বের করে ফেলা হবে। সর্বোপরি সুষ্ঠু ভোট যে কোনো উপায়ে নিশ্চিত করা হবে।

এরপর হলের ভেতরে শিক্ষার্থীদের ভোট দেয়ার জন্য লাইন ধরে দাঁড়াতে দেখা যায় এবং ১১টা ১০ মিনিট থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

এসএসসিতে পাসের হার ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ আজ

এসএসসির ফল প্রকাশ সোমবার

৩৯তম বিশেষ বিসিএসের ফল প্রকাশ

যবিপ্রবিতে ৩ শিক্ষার্থীকে আজীবন-৫ জনকে একবছরের জন্য বহিষ্কার

মেডিকেলের মতো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার পক্ষে শিক্ষামন্ত্রী

চবিতে ছাত্রলীগের অবরোধ অব্যাহত

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে অচল ববি

সর্বশেষ খবর

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিদায় করে নিজেদের আশা বাঁচিয়ে রাখল পাকিস্তান

সুবর্ণচরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জলদস্যু বাহিনী প্রধান নিহত

কুলাউড়ায় ট্রেনের বগি খালে পড়ে নিহত ৪, আহত ২৫০