শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন

বুধবার, ১১ এপ্রিল, ২০১৮ (১৮:০৭)

কোটা সংস্কার বাতিলে আনন্দ মিছিল

কোটা সংস্কারের দাবিতে ফের আন্দোলন

কোটা সংস্কার বাতিলের পর আনন্দ মিছিল করে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বুধবার সকাল থেকেই তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে জড়ো হতে শুরু করেন। এ সময় ছাত্রীরা একটি মিছিল বের করে।

মঙ্গলবার রাত ৮টায় বুধবারের কর্মসূচির ঘোষণা দেয় আন্দোলনকারীরা—সে অনুযায়ী, বুধবার সকাল ১০টা থেকে সারাদেশে আবারো ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন এবং সড়ক অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

এ ঘোষণা দিয়ে পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজে সুনির্দিষ্ট ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থীরা জানায়, মঙ্গলবারের মতো বুধবারও সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সড়কে নেমে আন্দোলন করা হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেই কর্মসূচি পালন করছে তারা।

এদিক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাস এবং পরীক্ষা বর্জন করেছেন।

একই দাবিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শাটল ট্রেন অবরোধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা। শত শত শিক্ষার্থী রেললাইনের ওপর দাঁড়িয়ে কোটা সংস্কারের স্লোগান দিচ্ছেন।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার শাটল বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার পর বাধা দেন আান্দোলনকারীরা। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শাটলটি ফিরে না আাসায় নগরী থেকে কোনো ট্রেন বিশ্ববিদ্যালয় অভিমুখে যেতে পারছে না।

ষোলশহর রেল স্টেশনের মাস্টার সাহাব উদ্দিন বলেন, 'সাড়ে ৮টার শাটল ট্রেন যাওয়ার পর সেটি আর ফিরে আসেনি। আান্দোলনকারীরা আটকে দিয়েছে। তাই পৌনে ১০টা ও সাড়ে ১০টার শাটল ট্রেন বিশ্ববিদ্যালয় অভিমুখে ছেড়ে যেতে পারছে না।

এদিকে, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস বর্জন করেছেন শিক্ষার্থীরা। বিভিন্ন বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে আান্দেলন করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয়ক মো.আরজু বলেন, 'কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস বর্জন করছি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলতে থাকবে।’

এছাড়া কোটা সংস্কারের দাবিতে রাজধানীতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ শুরু করেছেন। রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটি, ও ফার্মগেটের এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন।

সকাল সাড়ে ৯টা থেকে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন তারা। রাজধানীর পান্থপথ, তেজগাঁও, ফার্মগেট, মিরপুর রোড অবরোধ করেছেন তারা।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি)

একই দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) শিক্ষার্থীরা।

সকাল ১০টা থেকে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক অবরোধ এ বিক্ষোভ-সমাবেশ শুরু করেন তারা।

এতে বরিশালের সঙ্গে বরগুনা, পটুয়াখালী ও ভোলায় সড়কপথে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ভোগান্তি পড়েছেন এ রুটে চলাচলকারী সাধারণ লোকজন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, সকাল ১০ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনের সড়কে (বরিশাল-পটুয়াখালী) অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ-সমাবেশ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এতে সড়কের উভয় পাশের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জহিরুল ইসলাম, আলামিনসহ একাধিক শিক্ষার্থী জানান, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছে তারা।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে কোটা পদ্ধতির সংস্কারসহ পাঁচ দফা দাবিতে দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও জেলা পর্যায়ে আন্দোলন কর্মসূচি পালন করে আসছেন সাধারণ শিক্ষার্থীসহ চাকরিপ্রত্যাশিরা।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়- শাবিপ্রবি:

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনে অচল হয়ে পড়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে শাবির প্রধান ফটকে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা অবস্থান নিলে বন্ধ হয়ে যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহনব্যবস্থা।

সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নিতে শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ৭টার দিকে শাবির মূল ফটকে কোটা সংস্কারের দাবিতে অবস্থান নেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

প্রথমে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের দুই পাশে দাঁড়িয়ে শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। পরে সকাল ৯টার দিকে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ বাড়লে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। এতে করে বন্ধ হয়ে যায় শিক্ষক ও শিক্ষার্থী পরিবহনকারী বাস চলাচল।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শাবি প্রক্টর জহীর উদ্দিন আহমেদ আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তিনি আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্যে আন্দোলনকে যৌক্তিক বলে সমর্থন করেন। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সবসময় পাশে ছিল এবং আগামীতেও থাকবে মন্তব্য করে তিনি শিক্ষার্থীদের কাছে আন্দোলন অহিংস রাখার আহ্বান জানান।

এর আগে দেশজুড়ে চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সমর্থন জানান শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। সেই সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনে ভাঙচুর ও শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলায় ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

উচ্চ মাধ্যমিকে পাসের হার ৭৩.৯৩%

এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল কাল

এইচএসসির ফল প্রকাশ ১৭ জুলাই

চলতি সপ্তাহে ৩৮তম বিসিএসের ফল প্রকাশ

এসএসসিতে পাসের হার ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ আজ

এসএসসির ফল প্রকাশ সোমবার

সর্বশেষ খবর

এনআইডি যাচাইয়ের গেটওয়ে ‘পরিচয়’ উদ্বোধন করলেন সজীব ওয়াজেদ

ভারতে ৯ জনকে গুলি করে হত্যা

জিপি ও রবি'র ব্যান্ডউইথ সীমিতের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের নির্দেশ

১১ অক্টোবরের মধ্যে এরশাদের আসনে উপনির্বাচন