ডাকসু নির্বাচনের বিকল্প নেই

রবিবার, ০৫ মার্চ, ২০১৭ (১৮:৩৩)
ডাকসু-নির্বাচনের-বিকল্প-নেই

ডাকসু নির্বাচনের বিকল্প নেই

ডাকসু নির্বাচন না হলে নেতৃত্বের শূন্যতা সৃষ্টি হবে নির্বাচন হতেই হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের এমন বক্তব্যের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও মনে করছে নির্বাচন হওয়া উচিত।

তারা এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের ছাত্রনেতারা আশংকার কথা জানিয়ে বলেছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনেকবার প্রতিশ্রুতি দিয়েও তা আর বাস্তবায়ন করেনি।

তাদের অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের একমুখী কর্তৃত্ব বন্ধ হয়ে যাবে বলে দীর্ঘ দিন ধরে ডাকসু নির্বাচন আলোর মুখ দেখছে না।

সাধারণ শিক্ষার্থীরা বলছেন, ডাকসু নির্বাচন হলে শিক্ষার্থীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার একটি প্লাটফর্ম তৈরি হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ-ডাকসুর নির্বাচন হয় না প্রায় দীর্ঘ ২৭ বছর। শিক্ষার্থীদের দাবি নব্বইয়ের পর সব উপাচার্যই প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ডাকসু নির্বাচনের কিন্তু নির্বাচন আর হয়নি। কেন হয়নি বা হচ্ছে না এ নিয়ে রয়েছে ছাত্র-শিক্ষকদের ভিন্নমত।

শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০তম সমাবর্তনে আচার্য হিসেবে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বক্তব্যে বর্তমান ছাত্র রাজনীতির প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বলেন, আদর্শের চেয়ে ব্যক্তি বা গোষ্ঠী স্বার্থের প্রাধান্য বেশি ছাত্র সংগঠনগুলোতে।

তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব সৃষ্টির জন্য ডাকসু নির্বাচন হওয়া জরুরি।

রাষ্ট্রপতির এমন বক্তব্যে সাধারণ শিক্ষার্থীরা উচ্ছসিত প্রকৃত অর্থেই শিক্ষার্থীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় অবিলম্বে ডাকসু নির্বাচনের দাবি তাদের।

বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের একমুখী কর্তৃত্ব কমে যাওয়ার শঙ্কা থেকেই ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।

একই সঙ্গে রাষ্ট্রপতির বক্তব্যের পর ডাকসু নির্বাচনের ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

ছাত্র রাজনীতিকে গুরুত্ব দেন বলেই ডাকসু নির্বাচনের ব্যাপারে গুরুত্ব দেখিয়েছেন রাষ্ট্রপতি এটা উল্লেখ করে সহ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান জানান তিনিও ব্যক্তিগতভাবে মনে করেন ডাকসু নির্বাচন অবশ্যই হতে হবে।

এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ উদ্যোগ গ্রহণ করবে বলে জানান তিনি।

এদিকে, ডাকসু নির্বাচন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য, রাষ্ট্রপতির মন্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছেন ডাকসুর সাবেক নেতারা।

তাদের মতে, অতি রাজনীতিকরণ ও বিরাজনীতির হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হলে ছাত্র সংসদ নির্বাচন অপরিহার্য।

ডাকসুর সাবেক ভিপি, সিপিবি প্রধান মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে তুলতেও এর বিকল্প নেই।

তাই রাষ্ট্রপতির আহ্বান দ্রুত ডাকসু নির্বাচনের তাগিদ দিলেন তারা।। রাষ্ট্রপতির এই আহবান বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন তারা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ, ডাকসু। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, উনসত্তরের অভ্যুত্থান, ৭০ এর নির্বাচন, ৭১ এ মহান মুক্তিযুদ্ধ। পরবর্তীতে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনসহ দেশের যে কোনো ক্রান্তিলগ্নে ডাকসু নেতাদের ভূমিকা ছিল অপরিসীম। সেই ডাকসু এখন প্রায় ৩ দশক ধরে অকার্যকর।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০তম সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতির ভাষণে উঠে আসে ডাকসু নির্বাচন নিয়ে হতাশার কথা। যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে তুলতে ডাকসু নির্বাচনের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন তিনি।

রাষ্ট্রপতির এমন ভাষণকে যর্থাথ মনে করেন ডাকসু ডাকসুর সাবেক ভিপি, সিপিবি প্রধান মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও মাহফুজা খানম।

তাদের অভিযোগ, শিক্ষার্থীদের রাজনীতি থেকে দূরে রাখতেই ডাকসুকে অকার্যকর করে রাখা হয়েছে।

নেতৃত্ব না থাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন নেতিবাচক কাজেও জড়িয়ে পড়ছে বলেও তারা মনে করেন।

শিক্ষা ও জ্ঞানার্জনের পাশাপাশি ছাত্র রাজনীতিরও গুরুত্ব তুলে ধরেন তারা বলেন, আগামীতে দেশের রাজনীতিতে সুশিক্ষিত নেতৃত্ব আনতে ডাকসু নির্বাচনের বিকল্প নেই।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

শুরু হলো প্রাথমিক-ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা

সরকার না চাইলে এ পরীক্ষা বন্ধের সুযোগ নেই: মোস্তাফিজুর

নকলের অভিযোগে ৭ পরীক্ষার্থীকে ২০ দিনের কারাদণ্ড

১৯ নভেম্বর থেকে প্রাথমিক-ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা শুরু

৩৭তমর মৌখিক ২৯ নভেম্বর ও ৩৮তমর প্রিলি. ২৯ ডিসেম্বর

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু