শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন

রবিবার, ০৮ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৮:৪৪)

নতুন পাঠ্যপুস্তকে ভুল পর্যালোচনায় দুটি কমিটি গঠন

নতুন পাঠ্যপুস্তকে ভুল পর্যালোচনায় দুটি কমিটি গঠন

নতুন পাঠ্যপুস্তকে ভুল বিতর্কের মধ্যেই মাধ্যমিক পর্যায়ে পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক পর্যালোচনায় দুটি কমিটি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

রোববার বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা এক আদেশে কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটি দুটি ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠ্যক্রম পর্যালোচনা করে পাঠ্যপুস্তক আরো সুখপাঠ্য, আর্কষণীয় ও সহজীকরণে কাজ করবে।

সম্প্রতি দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এক কর্মশালায় মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার মান বাড়াতে অভিন্ন প্রশ্নে পরীক্ষা দেয়া, প্রশ্ন ব্যাংক তৈরি, পাঠ্যবই পরিমার্জনসহ ১৫ দফা সুপারিশ উঠে আসে ওই কর্মশালায়।

শিক্ষাবিদদের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে মাধ্যমিক স্তরের পাঠ্যক্রম পর্যালোচনা করে পাঠ্যপুস্তক আরো সুখপাঠ্য, আকর্ষণীয় ও সহজ করতে রোববার আলাদা দুটি কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটির একটি ২০১২ সালের পাঠ্যক্রম পর্যালোচনা করে পাঠ্যবই আরো পাঠযোগ্য করতে সুপারিশ দেবে।

আরেকটি নবম ও দশম শ্রেণির কয়েকটি বই পরিমার্জন করে সুখপাঠ্য, আকর্ষণীয় ও সহজ করার দায়িত্ব পালন করবেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা আদেশে কমিটি দুটিকে আগামী দুই মাসের মধ্যে বিদ্যমান পাঠ্যক্রমের পরিবর্তন পরিমার্জনের বিষয়ে সুপারিশ করতে বলা হয়েছে।

প্রায় দেড় যুগ পর ২০১২ সালে নতুন পাঠ্যক্রম প্রণয়ন করে সরকার— ওই পাঠ্যক্রমের আলোকে ২০১৩ সালের প্রথম দিন নতুন বই হাতে পায় শিক্ষার্থীরা।

২০১২ সালের ওই পাঠ্যক্রম পর্যালোচনা করে বিভিন্ন শ্রেণির পাঠ্যবই অধিকতর পাঠযোগ্য করতে সুপারিশ দিতে নতুন একটি কমিটিতে সদস্য হিসেবে আছেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রর প্রতিষ্ঠাতা আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মনজুর আহমদ।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক কোষাধ্যক্ষ কাজী ফারুক আহমেদ, মতিঝিল সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক তানজীল আশ্রাফ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা অনুষদের পরিচালক অধ্যাপক হোসনে আরা বেগম, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহাও এ কমিটির সদস্য।

এনসিটিবির সদস্য (পাঠ্যক্রম) অধ্যাপক মো. মশিউজ্জামান সদস্য সচিব এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব চৌধুরী মুফাদ আহমদে কমিটির সমন্বয়কের দায়িত্ব পেয়েছেন।

এইকমিটিকে আগামী ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে বিদ্যমান পাঠ্যক্রমের পরিবর্তন ও পরিমার্জনের বিষয়ে সুপারিশ দিতে বলা হয়েছে।

নবম-দশম শ্রেণির নির্বাচিত কয়েকটি পাঠ্যপুস্তক পরিমার্জন করে সুখপাঠ্য, আকর্ষণীয় ও সহজ করার লক্ষ্যে আরেক কটিমির সদস্য করা হয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান ও অধ্যাপক এম এম আকাশ এবং বুয়েটের অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক তাসলিমা বেগম, উদ্দীপন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক এস এম ওয়াহিদুজ্জামান, এনসিটিবি চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহাকেও এই কমিটির সদস্য করা হয়েছে।

এনসিটিবির সদস্য (পাঠ্যপুস্তক) অধ্যাপক ইনামুল হক সিদ্দিকীকে এই কমিটির সদস্য সচিব এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব চৌধুরী মুফাদ আহমদকে সমন্বয়কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কমিটিকে নবম-দশম শ্রেণির কয়েকটি পাঠ্যবই নির্বাচন করে সেগুলোকে পরিমার্জনের জন্য একটি ‘টাইম বাউন্ড অ্যাকশন প্ল্যান’ তৈরি করতে বলা হয়েছে; যাতে ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারির আগেই সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিমার্জিত পাঠ্যপুস্তক পৌঁছানো যায়।

নির্বাচিত পাঠ্যপুস্তকগুলো পরিমার্জনের মাধ্যমে সুখপাঠ্য, আকর্ষণীয় ও সহজ করে তোলার জন্য এই কমিটি সার্বিক সিদ্ধান্ত নিলেও জাতীয় কারিকুলাম কো-অর্ডিনেটর কমিটি (এনসিসিসি) পরিমার্জিত পাঠ্যপুস্তক অনুমোদন করবে।

উভয় কমিটি প্রয়োজনে সদস্য অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে জানিয় আদেশে বলা হয়েছে, কমিটির সভায় বিষয় বিশেষজ্ঞদের আমন্ত্রণ জানানো যাবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, প্রথমে নবম-দশম শ্রেণির বিজ্ঞানের চারটি এবং মানবিকের একটি বই সুখপাঠ্য ও সহজ করা হবে। প্রয়োজনে এসব বই রঙিন করে ছাপানো হবে।

এছাড়াও রয়েছে

অনলাইনে আবেদনে বিপাকে শিক্ষার্থীরা

পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি স্থগিত আন্দোলনকারীদের

প্রজ্ঞাপনের দাবিতে চলছে আন্দোলন, শাহবাগ অবরোধ

প্রজ্ঞাপন চায় আন্দোলনকারীরা

কোটা সংস্কার: প্রজ্ঞাপন জারি না হলে রোববার থেকে আন্দোলন

প্রজ্ঞাপন না হওয়া পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চলবে

পাসের হারে মেয়েরা, জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে ছেলেরা

এসএসসি-সমমানের পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৭৭.৭৭%

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম নারী কৃষ্ণাঙ্গ গভর্নর হওয়ার পথে অনেকটা এগুলেন স্টেসি

রোহিঙ্গাদের দায়িত্ব ভাগাভাগিতে জোরালো উদ্যোগ নেয়া আহ্বান যুক্তরাজ্যের

শেখ হাসিনার ভারত সফর শেষে ছাত্রলীগের কমিটি

ঈদে ফিটনেস বিহীন গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি