অর্থনীতি

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুন, ২০১৮ (১৬:৩৮)

বাজেটে বাড়ছে সরকারের ব্যয়ের চাপ—বাড়ছে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যও

বাজেটে বাড়ছে সরকারের ব্যয়ের চাপ—বাড়ছে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যও

আগামী বাজেটে বাড়ছে সরকারের ব্যয়ের চাপ— বাড়ছে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যও।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আগেই জানিয়েছেন, হাতেগোনা কয়েকটি ক্ষেত্রে ছাড়া বাজেটে কোথাও বাড়তি করের বোঝা চাপানো হচ্ছে না।

করের আওতা বৃদ্ধি এবং কর কাঠামো পুনর্বিন্যাস করে বাড়তি রাজস্বের লক্ষ্য পূরণের দিকে মনোযোগ দিচ্ছে সরকার।

তবে এ অল্প কিছু পরিবর্তনের ফলেই কিছু পরিবর্তন আসবে জিনিসপত্রের দামে।

৪ লাখ ৬৪ হাজার কোটি টাকার বাজেটে রাজস্ব আদায়ের টার্গেট প্রায় ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকা। এ রাজস্বের পুরো চাপই জনগণের ওপর। এরজন্য কয়েকটি ক্ষেত্রে কর ও কর কাঠামোর কিছু হেরফের করা হচ্ছে। কয়েকটি নির্দিষ্ট খাতকে দেয়া হচ্ছে বিশেষ সুবিধাও।

বর্তমানে ১ থেকে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত ৯টি ভ্যাটের হার আছে। আগামী বাজেটে এক, দেড়, আড়াই, সাড়ে চার এই কয়েকটি হার উঠিয়ে দেয়া হচ্ছে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই কিছু ক্ষেত্রে ভ্যাটের হার বাড়ছে। যা সংশ্লিষ্ট পণ্যমূল্যও বাড়াবে। তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সাধারণ সেবার ওপর ভ্যাট সাড়ে চার থেকে বাড়িয়ে ৫ শতাংশ করা হচ্ছে।

ফেসবুক, গুগল, ইউটিউবসহ অনলাইনে পণ্য কেনাবেচা এবং বিজ্ঞাপনের ওপর বাজেটে শুল্ক বসানো হচ্ছে।

রিকন্ডশনড বা পুরোনো গাড়ির অবচয় সুবিধা কমবে। ফলে, পুরোনো গাড়ির দামও কিছুটা বাড়তে পারে। তবে শুল্ক সুবিধা অব্যাহত থাকছে হাইব্রিড গাড়ির।

কমদামী সিগারেট ও বিড়ির পেপারের ওপর সম্পূরক শুল্ক ২০ থেকে বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করা হচ্ছে।

ফলে, কম দামের সিগারেটের দাম বাড়ছে। তবে বেনসন, মার্লবরোসহ বেশি দামের সিগারেটে শুল্ক কাঠামোর কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না।

স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় এনার্জি ড্রিংকসের ওপর সম্পূরক শুল্ক ২৫ থেকে বাড়িয়ে ৩৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রীর।

প্লাস্টিক ও পলিথিন নিরুৎসাহিত করতে পলিথিনের ব্যাগ ও মোড়ক সামগ্রীর ওপর ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করা হচ্ছে।

হেলিকপ্টার সেবায় ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বসানো হচ্ছে বাজেটে।

দেশে মোটর সাইকেল, কম্পিউটার ও মোবাইল ফোন উৎপাদনে ভ্যাট অব্যাহতি দেয়ার পাশাপাশি কিছু যন্ত্রাংশ আমদানিতেও শুল্ক ছাড় থাকতে পারে। ওষুধ ও স্টিলের কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক ছাড় হচ্ছে।

বাজেটে ছোট ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে ভ্যাটের হার বাড়ছে। কমছে মাঝারি ফ্ল্যাটে। ১১০০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে বর্তমান ভ্যাট রেট দেড় শতাংশ। আগামী বাজেটে তা হচ্ছে ২ শতাংশ। ১৬০০বর্গফুট পর্যন্ত ফ্ল্যাটের রেজিস্ট্রেশনে ভ্যাট আড়াই থেকে ২ শতাংশে নামানো হচ্ছে। ১৬০০ বর্গফুটের ওপর ফ্ল্যাটের ভ্যাট আগের মতই সাড়ে ৪ শতাংশ থাকছে।

বাজেটে আসবাবপত্রের ওপর ভ্যাট বাড়ছে। বর্তমানে আসবাবপত্র উৎপাদনে ভ্যাট আছে ৬ শতাংশ। এটি ৭ শতাংশ করা হচ্ছে। আর বিপণন পর্যায়ে ভ্যাট ৪ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করতে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী।

 

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

কবে শুরু হচ্ছে ওয়ানস্টপ সার্ভিস? জানতে চান ব্যবসায়ীরা

শুরু হলো জাতীয় আয়কর মেলা-২০১৮

বৈশ্বিক সূচকে অবস্থানের অবনমন ঘটেছে বাংলাদেশের

খালেদা জিয়া ক্ষমতায় আসলে সমৃদ্ধি থমকে যাবে: অর্থমন্ত্রী

বাংলাদেশের অর্থনীতি ৭.১% হারে বাড়বে: আইএমএফ

গ্যাসের দাম বাড়ছে শিল্প-কারখানা ও যানবাহনে

জিডিপি হবে ৭.৫% পূর্বাভাস দিল এডিবি

৫% সুদে ঋণ সুবিধা পাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা

‘নিরপেক্ষতার সঙ্গে’ দায়িত্ব পালনের আহ্বান সিইসি

ইউরোপের নিরাপত্তা বিপন্ন করছে আমেরিকা: রাশিয়া

রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া স্থগিতের আহ্বান জাতিসংঘের

আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে না iPhone XR এর