অপরাধ

ksrm

বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ, ২০১৯ (১৭:১৮)

অভিজিৎ হত্যা মামলা: ৬ জনকে আসামি করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল

অভিজিৎ হত্যা মামলা: ৬ জনকে আসামি করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল

বিজ্ঞানমনস্ক লেখক ও মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ রায় হত্যা মামলায় চাকুরিচ্যুত মেজর জিয়াসহ ৬ জনকে আসামি করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

বৃহস্পতিবার শাহবাগ থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক নিজাম উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের (সিটিটিসি) পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনসারীর আদালতে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ৩৪ জনকে— সাদেক আলী ওরফে মিঠুসহ ১৫ জনকে অব্যাহতির আবেদন জানানো হয়েছে বলেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ২৫ মার্চ দিন ঠিক করেছে আদালত বলে জানান তিনি।

এর আগে গত সোমবার ১৮ ফেব্রুয়ারি মামলার তদন্তকারী কমকর্তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুমতির জন্য নথি পাঠান।

মেজর জিয়া ছাড়া অপর আসামিরা হলো: মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (সাংগঠনিক নাম শাহরিয়ার), আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, আকরাম হোসেন ওরফে আবির, মো. মুকুল রানা ওরফে শরিফুল ইসলাম ওরফে হাদী, মো. আরাফাত রহমান, শফিউর রহমান ফারাবি। মেজর জিয়া ও আকরাম হোসেন পলাতক রয়েছে।

এর মধ্যে মেজর জিয়াকে হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী এবং ফারাবিকে উসকানি বা প্ররোচণাদানকারী হিসাবে শনাক্ত করা হয়েছে।

এ হত্যাকাণ্ডে ১১ জন জড়িত ছিল বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন কিন্তু সঠিক নাম ঠিকানা না থাকায় তাদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কমকর্তা।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের মধ্যে ৭ জন জামিনে আছে।

তারা হলো—জাফরান হাসান, সাদেক আলী মিঠু, জুলহাস বিশ্বাস, আমিনুল মল্লিক, তহিদুল রহমান সামা, সিফাত ওরফে ইফরান ও আবুল বাসার।

আবুল বাসার গত ২০১৬ সালের ২৭ নভেন্বর মারা গেছেন। কারাগারে আছে—আবুল সবুর সাদ ওরফে রাজু, অমিনুল হাসান শামীম, শফিউর রহমান ফারাজী, আবু সিদ্দিকি সোহেল, মোজাম্মেল হোসেন নাইমুল, শামীম তারেক ও মান্না ইয়াহিয়া। কারাগারে থাকা অবস্থায় গত ২০১৭ সালের ২ নভেন্বর মান্না ইয়াহিয়া মারা যান।

এদের মধ্যে থেকে আদালতে দোষ স্বীকার করে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে তিনজন। তারা হলো—মোজ্জামেল হোসেন সায়মুন, আবু সিদ্দিক সোহেল ও আরাফাত হোসেন শামস।

৪৫ বারের মতো প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য সময় পান তদন্ত কর্মকর্তা।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকার মেট্রোপলিট্রন ম্যাজিস্ট্রেট সরাফুজ্জামান আনসারী প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৫ মার্চ দিন ধার্য করেছিলেন। তবে তার আগেই ১৩ মার্চ প্রতিবেদন জমা দিলেন মামলার তদন্তকারী কমকর্তা।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বইমেলা থেকে বের হওয়ার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন এলাকায় ব্লগার অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায় গুরুতর আহত হন তার স্ত্রী রাফিদা আহমেদ।

অভিজিৎ রায়ের বাবা অধ্যাপক ড. অজয় রায় ২০১৫ সালে ২৭ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় এ হত্যা মামলা দায়ের করেন। অভিজিৎ রায় হত্যার সময় ঘটনাস্থলের আশপাশে থাকা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ। এরপর ডিএমপির ফেসবুক পেজে অভিযুক্ত সোহেলসহ ছয়জনের ছবি দিয়ে তাদের ধরিয়ে দিতে বলা হয়।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

চট্টগ্রামে বন্দুকযুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় আসামি নিহত

মোহাম্মদপুরের বছিলার "জঙ্গি আস্তানায়" অভিযান-বিস্ফোরণ, নিহত ২

নুসরাত হত্যা: নিজের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করল অভিযুক্ত অধ্যক্ষ সিরাজ

গাইবান্ধায় শিশুশিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্তার

নুসরাত হত্যা: খোঁজা হচ্ছে পাহারার দায়িত্বে থাকা শাকিলকে

নুসরাতের গায়ে আগুন দেয় তার দুই সহপাঠী মনি-জাবেদ

নুসরাত হত্যা: অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ

পপিই নুসরাতকে ছাদে ডেকে নেয়

সর্বশেষ খবর

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র পদত্যাগ

মির্জা ফখরুল দেশে ফিরছেন সন্ধ্যায়

মেক্সিকোতে অপরাধী চক্রের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১০

ফের ওয়ানডে অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে সাকিব