সংস্কৃতি-বিনোদন

শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০১৮ (১৮:২১)

ভারতীয় অভিনেত্রী সুপ্রিয়া দেবী আর নেই

অভিনেত্রী সুপ্রিয়া দেবী

ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুপ্রিয়া দেবী আর নেই। ভোরে কলকাতার বালিগঞ্জের সার্কুলার রোডে নিজের বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন।

দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন ৮৩ বছরের এই অভিনেত্রী। সুপ্রিয়ার প্রথম ছবি 'বসু পরিবার'।ঋত্বিক ঘটক পরিচালিত মেঘে ঢাকা তারা ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। এছাড়া 'কোমল গান্ধার', 'লাল পাথর', 'চৌরঙ্গী' তার সাড়া জাগানো চলচ্চিত্রগুলোর অন্যতম।

১৯৩৫ সালের ৮ জানুয়ারি জন্ম সুপ্রয়ার। মাত্র ৭ বছর বয়সে অভিনয় শুরু করেন তিনি। দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেছেন সুপ্রিয়া দেবী।

মহানায়ক উত্তম কুমারের সঙ্গে তিনি সোনার হরিণ, শুন বরনারী, উত্তরায়ন, সূর্যশিখা, সবরমতি, মন নিয়েসহ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে নায়িকার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

উল্লেখ্য, বাংলা চলচ্চিত্রে সুপ্রিয়া দেবী ছিলেন অদ্বিতীয়া। মাত্র ৭ বছর বয়সে অভিনয় শুরু করে দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে ভারতীয় বাংলা সিনেমায় দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেন তিনি। মহানায়ক প্রয়াত উত্তম কুমার-সুপ্রিয়া জুটি এক সময় দারুণ জনপ্রিয় ছিল। উত্তম কুমার থেকে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়সহ বাংলার বিশিষ্ট অভিনেতাদের সঙ্গে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেছেন তিনি।

'বসু পরিবার','মেঘে ঢাকা তারা', 'কোমল গান্ধার', 'সোনার হরিণ', 'শুন বরনারী', 'উত্তরায়ন','লাল পাথর', 'চৌরঙ্গী' তার সাড়া জাগানো চলচ্চিত্রগুলোর অন্যতম।

ঘরে-বাইরে'র বিমলার চরিত্র করার ইচ্ছে ছিল তার, হয়ে ওঠেনি। কিন্তু এমন হাজারো অপূর্ণতাকে অতিক্রম করেই তো তার যাত্রা। ছিন্নমূল উদ্বাস্তু পরিবারের এক সাধারণ মেয়ে থেকে বাংলার যশস্বী অভিনেত্রী হয়ে ওঠা।

সুপ্রিয়ার জন্ম ১৯৩৫ সালের ৮ জানুয়ারি, বার্মায়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপান বার্মা আক্রমণ করার পর সেদেশের বাস উঠলো তার পরিবারের। শুরু হলো ছোট্ট সুপ্রিয়ার উদ্বাস্তু জীবন। নানা স্রোতে ভেসে ১৯৪৮ সালে কলকাতায় নতুন করে মাটি খুঁজে পাওয়া।

খুব ছোট থেকেই নাচে ও অভিনয়ে সুপ্রিয়ার দক্ষতা সবার নজর কাড়ে। বাবার পরিচালনায় সে সময় দুটি নাটকেও অভিনয় করেছিলেন তিনি। এই সহজাত দক্ষতা ও নৈপুণ্যই কলকাতায় নতুন জীবনের সন্ধান দিলো তাকে।

'বসু পরিবার' ছবিতে উত্তম কুমারের সঙ্গে অভিনয়ের পর থেকেই আর ফিরে তাকাতে হয়নি সুপ্রিয়াকে।

প্রার্থণা, শ্যামলী, শুন বরনারী, শুধু একটি বছর, কাল তুমি আলেয়া, চৌরঙ্গী, চিরদিনের বিলম্বিত লয়, বাগবন্দী খেলাসহ একের পর এক চলচ্চিত্রে তার অভিনয় দর্শকদের মুগ্ধতার শিখরে নিয়ে গেছে।

ঋত্বিক ঘটকের মেঘে ঢাকা তারা'র নীতা কিংবা দেবদাসের চন্দ্রমুখী, বা দুই পুরুষের বিমলা কিংবা বন পলাশীর পদাবলীর পদ্মা.প্রত্যেকটি ছবিতে তার উপস্থিতি উজ্জ্বল হয়ে রয়েছে বাঙালি দর্শক হৃদয়ে।

উত্তম-সুচিত্রার পাশাপাশি তৈরি হয়েছে উত্তম-সুপ্রিয়া জুটির। উত্তম কুমার থেকে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়সহ বাংলার বিশিষ্ট অভিনেতাদের সঙ্গে অভিনয় করেছেন তিনি।

এছাড়াও রয়েছে

নিলামে বব ডিলানের গিটারের দাম উঠেছে অর্ধ মিলিয়ন ডলার

না ফেরার দেশে তাজিন আহমেদ

প্রিন্স হ্যারি-গান মার্কেলের রাজকীয় বিয়ের প্রস্তুতি সম্পন্ন

বিয়ে করলেন রাজ-শুভশ্রী

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৭তম জন্মজয়ন্তী

কলকাতায় ‘নায়করাজ রাজ্জাক অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন আলমগীর

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে সাধারণ মানুষের অবদান উপেক্ষিত, মতামত বিশিষ্টজনদের

ফুলেল শ্রদ্ধায় সিক্ত হলেন কবি বেলাল চৌধুরী

ইন্টারনেটের গতি স্বাভাবিক হবে শনিবার থেকে

শেষ হলো ভাষা দক্ষতা যাচাই, বিজয়ীরা যাচ্ছেন চীনে

পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্রের সুড়ঙ্গ ধ্বংস করল উ. কোরিয়া

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১০