সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: ঈদের শুভেচ্ছা, রমজানে দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর ঈদ, উচ্ছ্বাস-আনন্দ আর অনাবিল খুশির এক উৎসব Desh TV Logo দেশবাসীকে ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা Desh TV Logo শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

মাঝরাতের কুয়াশাসিক্ত আঁধার ছাপিয়ে শুরু হলো খ্রিস্টীয় নববর্ষ ২০১৭

রবিবার, ০১ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৪:১৩)
মাঝরাতের-কুয়াশাসিক্ত-আঁধার-ছাপিয়ে-শুরু-হলো-খ্রিস্টীয়-নববর্ষ-২০১৭

মাঝরাতের কুয়াশাসিক্ত আঁধার ছাপিয়ে শুরু হলো খ্রিস্টীয় নববর্ষ ২০১৭

বিদায় ২০১৬। ঘড়ির কাঁটা রাত ১১টা ঊনষাট মিনিট পেরুনো মাত্রই শুরু হলো নতুন বছর— স্বাগত খ্রিস্টীয় নববর্ষ ২০১৭।

মাঝরাতের কুয়াশাসিক্ত আঁধার ছাপিয়ে ১ জানুয়ারির প্রথম প্রহরে নিয়ন্ত্রিত পরিবেশের মধ্যেও রাতের আকাশকে উজ্জ্বল করা আতশবাজিতে, উচ্ছ্বাস-আনন্দে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছেন মানুষ।

রাজধানী ঢাকার মতো এ উচ্ছ্বাস ছিলো সারাদেশেই। দেশবাসীকে খ্রিস্টীয় নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জমকালো আতশবাজি, নাচ-গান-উচ্ছাসের মধ্যদিয়ে পুরনো বছরকে বিদায় এবং নতুন বছরকে বরণ করে নিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মানুষের ঢল নামে। করতালি-কোলাহল, গান আর গাড়ির হর্নে প্রাণচঞ্চল পৌষের রাত। ঘড়ির কাটা ১১টা ৫৯ পেরোতেই বাধ ভাঙ্গা উল্লাসে ফেটে পড়ে সবাই। এমন উচ্ছাসের সঙ্গে যোগ হয়েছে নতুন বছরের প্রত্যাশা।

রাজধানীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও, পাড়া মহল্লা ও অভিজাত হোটেলগুলোতেও ছিলো বিশেষ আয়োজন আর আলোকসজ্জা।

রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশান, বনানী, বারিধারা, উত্তরা ও ধানমন্ডি এলাকায় নেয়া হয় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

বিগত বছরের চাওয়া পাওয়ার ব্যবধান থাকলেও নতুন বছরে সাফল্য আর সমৃদ্ধির প্রত্যাশায় সবাই মাতোয়ারা বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস-আনন্দে।

এদিকে, বর্ণিল আলোকচ্ছটা আর উৎসবের আমেজে খ্রিস্টীয় ২০১৭ সালকে বরণ করে নিয়েছে বিশ্ববাসী। স্থানীয় সময় অনুযায়ী ঘড়ির কাঁটা রাত ১২টা ছুঁতেই দেশে দেশে মানুষ স্বাগত জানায় নতুন বছরকে।

বিভিন্ন দেশের সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার ভেতরেই নানা অনুষ্ঠান আর আতশবাজির আলোকছটায় রাত ১২টায় নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছে সারাবিশ্ব। অন্যান্য বারের মতো এবারও সবার আগে খ্রিস্টীয় নববর্ষকে করে নেয় নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়াবাসী।

নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডের স্কাই টাওয়ারে লেজার প্রদর্শনী ও আতশবাজি পোড়ানোর মধ্য দিয়ে বর্ষবরণ করেন হাজার হাজার মানুষ।

অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত আতশবাজির প্রদর্শনী দেখতে সিডনির হার্বারে জড়ো হন বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা ১০ লাখের বেশি মানুষ।

প্রতিবছরের মতো কাউন্ট ডাউন ও টাইমস স্কয়ারে বল পড়ার মধ্য দিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছেন নিউইয়র্কবাসী। নিরাপত্তা শঙ্কার মধ্যেই বর্ষবরণ আনন্দে মেতে ওঠেন লাখ লাখ মানুষ।

লন্ডনে টেমস নদীর তীরে আতশবাজির প্রদর্শনী দেখতে জড়ো হন এক লাখেরও বেশি মানুষ। হামলার আশঙ্কায় সেখানেও মোতায়েন ছিল অতিরিক্ত পুলিশ।

সম্প্রতি বার্লিনের ক্রিসমাস মার্কেটে হামলার পর নিরাপত্তা শঙ্কার মধ্যেই বার্লিনের ব্রান্ডেনবুর্গ গেইটে কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষ বর্ষবরেণ উৎসবে অংশ নেন। নিরাপত্তা সতর্কতার মধ্যেই ফ্রান্সের প্যারিসে বিখ্যাত শজেলিজেতেও বর্ষবরণ উদযাপিত হয়েছে।

কড়া নিরাপত্তা ও সর্বোচ্চ সতর্কতার মধ্যে রাশিয়ার মস্কোর রেড স্কায়ার ও ক্রেমলিনের আকাশ নতুন বছরের প্রথম প্রহরে আতশবাজির ছটায় রঙিন হয়ে ওঠে।

উপসাগরীয় দেশ আরব আমিরাতের দুবাইয়ে রাত ১২ টা ১ মিনিটে আলোয় ঝলমল করে ওঠে বিশ্বের সর্বোচ্চভবন বুর্জ খলিফা।

এছাড়া তুরস্ক, হংকং, সিঙ্গাপুর, বেইজিং, ভারতসহ বিশ্বের বড় বড় শহরগুলোতেও বর্ষবরণ উৎসবে মেতে উঠেন লাখ লাখ মানুষ।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
 
 
 
 
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০