আদালত

মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ (১৬:২৫)

নাইকো দুর্নীতি: অভিযোগ গঠনের শুনানি ফের ২০ ফেব্রুয়ারি

খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য ২০ ফেব্রুয়ারি ফের দিন ঠিক করেছে বিশেষ জজ আদালত।

মঙ্গলবার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি শুরু হয়।

পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে অস্থায়ীভাবে স্থাপিত ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে বিচারক শেখ হাফিজুর রহমানের এজলাসে এ শুনানি শুরু হয়েছে।

এর আগে, গত ৪ ফেব্রুয়ারি মামলার অন্যতম আসামি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের আংশিক অভিযোগ গঠন শুনানি হয়।

ওই দিন মুওদুদ আহমদ নিজেই শুনানিতে অংশ নেন।

ওইদিন শেষ না হওয়ায় বিচারক ১২ ফেব্রুয়ারি দিন ঠিক করেন।

এর আগে গত ৩, ১৩ ও ২১শে জানুয়ারি এ মামলার শুনানি হয়।

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে খালেদা জিয়াসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম তেজগাঁও থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

এরপর, ২০০৮ সালের ৫ মে এ মামলায় খালেদাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের সহকারী পরিচালক এসএম সাহেদুর রহমান।

নাইকো দুর্নীতি মামলার আসামিরা হলেন— বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, ঢাকা ক্লাবের সাবেক সভাপতি সেলিম ভূঁইয়া, ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন এবং জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি এম ইউছুফ হোসাইন।

এ মামলায় পলাতক তিন আসামি হলেন— সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, বাপেক্সের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মীর ময়নুল হক ও নাইকোর দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ।

নাইকো দুর্নীতি মামলা নথি থেকে জানা যায়, কানাডীয় প্রতিষ্ঠান নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের আর্থিক ক্ষতিসাধন ও দুর্নীতির অভিযোগে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ৯ই ডিসেম্বর তেজগাঁও থানায় মামলাটি করেন। মামলার পরের বছর ৫ মে খালেদাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। পরে আসামিদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় যথাক্রমে দশ ও সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন খালেদা জিয়া। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর থেকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন খালেদা জিয়া।

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

বঙ্গবন্ধুর ছবি না থাকায় ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ বইটি সরানোর নির্দেশ

এমপিদের শপথের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

নির্বাচিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে মামলা করে সফলতার নজির নেই

রাস্তায় বৈদ্যুতিক খুঁটি ৬০ দিনের মধ্যে অপসারণের নির্দেশ

দুধ-দুগ্ধজাত খাদ্য কতটুকু সিসা রয়েছে তা নিরূপণে হাইকোর্টের নির্দেশ

কোচিং বাণিজ্য অবৈধ ঘোষণা: হাইকোর্ট

খালেদা জিয়াসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দাখিল ১২ মার্চ

বিএনপির ১৪ শীর্ষ নেতার জামিন বিষয়ে আদেশ ২৪ ফেব্রুয়ারি

সর্বশেষ খবর

টাঙ্গাইল-চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

চকবাজার ট্র্যাজেডি নিয়ে ফখরুলের বক্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন: হাছান

এদিনেই পেয়েছিলেন ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধি

দেশে শান্তি বিরাজ করলে উন্নয়ন সম্ভব: সাবের চৌধুরী