আদালত

বুধবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৮ (১০:১৯)

তারেকের সম্পৃক্ততার প্রমাণ মিলেছে ২য় তদন্ত প্রতিবেদনে

তারেক রহমান

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সম্পৃক্ততা দ্বিতীয় প্রতিবেদনে জড়িত থাকার বিষয়টির সুস্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

তবে প্রথম তদন্ত প্রতিবেদনে এ হামলার সঙ্গে তার নাম আসেনি।

তারেকের নির্দেশনায় হরকাতুল জিহাদ এ হামলা চালিয়েছিল বলে উঠে আসে মামলার অন্যতম আসামি হুজি নেতা মুফতি হান্নানের জবানবন্দিতে।

শুনানি চলার সময় আদালতের কাছে রাষ্ট্রপক্ষ বার বার এ বিষয়গুলো তুলে ধরে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমান বলেন, তারেক রহমানসহ অন্যান্য মূল আসামিদের বাঁচাতে মামলাটিতে জজ মিয়াসহ নানা নাটক সাজানো হয়েছিলো।

২০০৪ সালের ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলার পরদিনই ২২ আগস্ট রাজধানীর মতিঝিল থানায় মামলা করা হয়। ওই সময় বিএনপি-জামাত জোট সরকার বোঝাতে চেয়েছিলো যে এ ঘটনার তদন্ত ও বিচারে তারা তৎপর। মামলাটির তদন্ত শুরুতেই চলে যায় ভিন্নখাতে। ধুয়ে মুছে ফেলে চেষ্টা করা হয় সব আলমত নষ্টের। জানা যায় না কারা হামলাকারী, তাদের সামনে-পেছনের কাউকেই। অবতারনা ঘটে 'জজ মিয়া' নাটকের।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে ২১ আগস্টের হামলার দুটি মামলার তদন্ত হয় তিন দফায়। সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে শুরু হয় ২য় পর্যায়ের তদন্ত। ২০০৮ সালের ১১ জুন জঙ্গি নেতা মুফতি হান্নানসহ ২২ জনের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগপত্র দেয় সিআইডি। একটি হত্যা এবং অপরটি বিস্ফোরক আইনে।

কিন্তু ওই তদন্তেও আর্জেস গ্রেনেডের উৎস ও হামলার পরিকল্পনায় থাকা হোতাদের বিষয়ে কিছু উদঘাটন না হওয়ায় আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের আমলে তৃতীয় দফা তদন্ত হয়।

২০১১ সালের ৩ জুলাই তদন্ত শেষে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, জামাত নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ এবং মামলাটিরই সাবেক তিন তদন্ত কর্মকর্তাসহ ৩০ জনকে নতুন করে অভিযুক্ত করে দুটি অভিযোগপত্র দাখিল করে সিআইডি। এভাবে অভিযোগ গঠন চূড়ান্ত করতেই লেগে যায় আট বছর।

রাষ্ট্রপক্ষ জানিয়েছে, হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নানের জবানবন্দি থেকেই বোঝা যায় কিভাবে তারেক রহমান এই পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত ছিল।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমান বলেন, তার মতো একজন প্রভাবশালী ব্যক্তির প্রত্যক্ষ মদদ না থাকলে এতো বড় ষড়যন্ত্রকে রূপ দেয়া যেত না।

মামলার প্রধান আসামি তারেক রহমান বর্তমানে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে রয়েছেন।

মানিলন্ডারিংয়ের এক মামলায় ৭ বছরের কারাদণ্ডের সাজা মাথায় নিয়ে সেখানে অবস্থান করছেন তিনি।

 

ইউটিউবে দেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় সব নাটক ও অনুষ্ঠান দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Desh TV YouTube Channel

এছাড়াও রয়েছে

সম্পদের হিসাব না দেয়ায় বিএনপির রফিকুলের ৩ বছরের কারাদণ্ড

নয়াপল্টন সংঘর্ষ: হেলমেটধারীরা আটক-তোলা হবে আদালতে

সাজা বাতিল চেয়ে খালেদার আবেদন

খালেদার যথাযত চিকিৎসার ব্যবস্থার নির্দেশ: হাইকোর্ট

মির্জা আব্বাস-আফরোজা আব্বাসকে ৮ সপ্তাহের আগাম

খালেদার চিকিৎসার রিটের আদেশ সোমবার

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা: সাজা বাতিল চেয়ে খালেদার আবেদন

হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে খালেদার রিটের আদেশ রোববার

জোট শরীকদের সঙ্গে আসন বণ্টনের সমঝোতা শেষ আ.লীগের

প্রতীক বরাদ্দের আগেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হবে: ইসি সচিব

প্রীতি ফুটবল ম্যাচে জয় পেয়েছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

ঝিনাইদহে 'জঙ্গি আস্তানায়' অভিযান, আটক ১