সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সংলাপ, সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য ইভিএমের ব্যবহার চায় দলটি; ইসির যেসব আইন বিধি-বিধান রয়েছে তার অধিকাংশই আওয়ামী লীগ শাসনামলেই তৈরি: সিইসি Desh TV Logo রোহিঙ্গা ইস্যুতে রাশিয়া বাংলাদেশের পাশে আছে, এবার চীনও বাংলাদেশের বিপক্ষে নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী Desh TV Logo রাখাইনে রোহিঙ্গা নিধনের নিন্দা জানিয়ে আইপিইউ অধিবেশনে প্রস্তাব পাস, মিয়ানমারে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠার সুপারিশ Desh TV Logo টানা তিন মাস যুক্তরাজ্যে অবস্থানের পর বিকেলে দেশে ফিরেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, তাকে স্বাগত জানাতে দলীয় নেতাকর্মীদের ব্যাপক প্রস্তুতি ছিল, ছিল রাজধানীতে তীব্র যানজট Desh TV Logo খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তারের পরিকল্পনা সরকারের নেই: ওবায়দুল কাদের Desh TV Logo বিশেষ অভিযানে গাজীপুর শহর থেকে বিএনপির ৭ নেতাকর্মী আটক Desh TV Logo ভোলায় সড়ক দুর্ঘটনায় একজনের মৃত্যু Desh TV Logo চুয়াডাঙ্গায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু Desh TV Logo বঙ্গবন্ধুর ছোট ছেলে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৩তম জন্মদিন আজ Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: বেইজিংয়ে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির ১৯তম কংগ্রেস শুরু; চীনা বৈশিষ্ট্যম-িত সমাজতন্ত্র এক নতুন যুগে প্রবেশ করেছে, চীনা জনগণের প্রয়োজনকে অগ্রাধিকার দেবে রাষ্ট্র; উদ্বোধনী ভাষণে বললেন প্রেসিডেন্ট শি চিনপিং Desh TV Logo আইএসের কথিত রাজধানী রাক্কার পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ার বিদ্রোহীরা Desh TV Logo ৭ খেলা: ফুটবল: চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: রিয়াল মাদ্রিদ ১-১ টটেনহাম, ম্যান সিটি ২-১ নাপোলি, মারিবর ০-৭ লিভারপুল, স্পার্তাক ৫-১ সেভিয়া Desh TV Logo বিশ্বরেকর্ডের পথে লাইফবয়: বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস ২০১৭ উপলক্ষে ১১ হাজারের বেশি স্কুল ছাত্র-ছাত্রীর অংশগ্রহণে ‘লার্জেস্ট হিউম্যান ইমেজ অফ এ হ্যান্ড’ তৈরির মাধ্যমে জিনিয়াস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস টাইটেল অর্জনের উদ্যোগ নিয়েছে লাইফবয় Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকাল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়
মানবতাবিরোধী অপরাধ

আজহারুল-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর

রবিবার, ১৩ আগস্ট, ২০১৭ (১৪:৩৫)
আজহারুল-কায়সারের-আপিল-শুনানি-১০-অক্টোবর

আজহারুল-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর

মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামাতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল শুনানি আগামী ১০ অক্টোবর দিন করেছে আপিল বিভাগ।

রোববার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বেঞ্চে মামলা দুটির এ দিন ঠিক করে দেয়।

এ বেঞ্চের অপর দুই বিচারক হলেন: বিচারপতি মো. সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার।

রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর আজহারের পক্ষে জয়নুল আবেদীন এবং কায়সারের এস এম শাজাহান অ্যাডভোকেড অন রেকর্ড হিসেবে ছিলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল দুই মামলায় আলাদা শুনানির আবেদন করেন।

প্রধান বিচাপরতি বলেন, আপনারা অনেক সময় নিয়ে নিয়েছেন লিখিত আর্গুমেন্ট জমা দেবেন, শুনানি হবে।

আদেশে বলা হয়, মামলার পক্ষগুলোকে ২৪ আগস্টের মধ্যে আপিলের সার সংক্ষেপ জমা দিতে হবে আর ১০ অক্টোবর থেকে বিরতিহীনভাবে শুনানি চলবে।

গত বছরের ৮ মার্চ মীর কাসেম আলীর আপিলের রায় ঘোষণা করা হয়।

এ বছরের ১৫ মে জামাত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর রিভিউ নিষ্পত্তি করেছে আপিল বিভাগ।

যুদ্ধাপরাধ মামলায় এখন পর্যন্ত সাতটি আপিলের রায় ঘোষণা হয়েছে আপিল বিভাগে।

আজহারএর মামলার বিবরণী:

প্রায় তিন বছর আগে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অপরধ ট্রাইব্যুনাল-১ একাত্তরে রংপুর জেলা আলবদর বাহিনীর কমান্ডার আজহারকে মৃত্যুদণ্ড দেয়।

প্রসিকিউশনের আনা নয় ধরনের ছয়টি মানবতাবিরোধী অপরাধের মধ্যে পাঁচটি এবং পরিকল্পনা-ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে সুপিরিয়র রেসপনসিবিলিটি (উর্ধ্বতন নেতৃত্বের দায়) প্রমাণিত হয় তার বিরুদ্ধে।

এরমধ্যে মৃত্যুদণ্ডের রায় আসে রংপুর অঞ্চলে গণহত্যা চালিয়ে কমপক্ষে ১৪০০ লোককে হত্যা এবং ১৪ জনকে খুনের অপরাধে।

এছাড়া ওই অঞ্চলের বহু নারীকে রংপুর টাউন হলে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নির্যাতন কেন্দ্রে ধর্ষণের জন্য তুলে দেয়ার অভিযোগে এ বদর কমান্ডারকে ২৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং অপহরণ ও আটকে রেখে নির্যাতনের আরেকটি ঘটনায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

ট্রাইব্যুনালের এ রায়ের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি খালাস চেয়ে আপিল করে এ জামাত নেতা।

সৈয়দ কায়সার:

মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জে হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণের মতো যুদ্ধাপরাধের দায়ে সৈয়দ কায়সারকে ২০১৫ সলের ২৩ ডিসেম্বর মৃত্যুদণ্ড দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২।

১৯৭১ সালে দখলদার পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় ‘কায়সার বাহিনী’ গঠন করে ওই দুই জেলায় যুদ্ধাপরাধে নেতৃত্ব দেয় মুসলিম লীগ নেতা। জিয়াউর রহমানের আমলে তিনি হয়ে যান বিএনপির লোক, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সময় জাতীয় পার্টির।

সৈয়দ কায়সারের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের আনা ১৬টি অভিযোগের মধ্যে ১৪টি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়।

ফাঁসি দেয়া হয় ৩, ৫, ৬, ৮, ১০, ১২ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে, যার মধ্যে দুই নারীকে ধর্ষণের ঘটনাও রয়েছে। এ দুই নারী বীরাঙ্গনার মধ্যে একজন এবং তার গর্ভে জন্ম নেয়া এক যুদ্ধশিশু এ মামলায় সাক্ষ্য দেন। ২০১৫ সালের ১৯ জানুয়ারি আপিল করে সৈয়দ কায়সার।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

Desh Television দেশটিভিতে আজকের অনুষ্ঠান

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
৩১