সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়: পালিয়ে যাওয়া জঙ্গিদের ধরতে সাভারের নামাগেন্ডা এলাকা ঘিরে রাখা ভবনে অভিযান সমাপ্ত করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী Desh TV Logo সুপ্রিম কোর্টের সামনে থেকে ভাস্কর্য সরিয়ে কোনো ভুল হয়নি, বরং ইসলামসহ অন্য ধর্মের প্রতি সম্মান জানানো হয়েছে: আইনমন্ত্রী Desh TV Logo মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত কোনো ভাস্কর্য অপসারণ করা হবে না: ওবায়দুল কাদের Desh TV Logo চলতি অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩৮ হাজার কোটি টাকা কম রাজস্ব আদায়: সিপিডি, ভ্যাটের হার ১২% করার প্রস্তাব Desh TV Logo গণভবনের সামনে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনের সময় গুলিবিদ্ধ এসপিবিএন সদস্য মারা গেছেন Desh TV Logo ময়মনসিংহ, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, নড়াইল ও পিরোজপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১, আহত ২০ Desh TV Logo নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মসজিদের ঈমাম কুপিয়ে হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ Desh TV Logo খুলনায় বিএনপি নেতা হত্যার প্রতিবাদে জেলায় আধাবেলা হরতাল পালিত Desh TV Logo রাতের আধারে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গন থেকে ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদে সারাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিক্ষোভ কর্মসূচি চলছে Desh TV Logo লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে গিয়ে ২ জনের মৃত্যু Desh TV Logo সড়ক দুর্ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিহতের প্রতিবাদে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ Desh TV Logo মৌলভীবাজারের রাজনগরে ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতের হামলায় ৮ জন আহত Desh TV Logo রোববার রোজা শুরু, আজ রাতে সাহরি Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: মিসরে বাসে হামলা চলিয়ে কপ্টিক খ্রিস্টানদের হত্যার পর দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী সন্ত্রাসী প্রশিক্ষণ ক্যাম্পগুলোতে বিমান হামলা চালিয়েছে Desh TV Logo শ্রীলঙ্কায় ভূমিধসে নিহত ৯১, নিখোঁজ ১১০ জন Desh TV Logo সৌদি আরবসহ আশেপাশের দেশগুলোতে শনিবার থেকে রোজা শুরু Desh TV Logo খেলা: ক্রিকেট: আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রস্তুতি ম্যাচে বার্মিংহামে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ (বিকেল সাড়ে ৩টা) Desh TV Logo দুই বছরের চুক্তিতে বিপিএল দল খুলনা টাইটান্সের কোচ হলেন শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনে Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

বটমূলে হামলা: আট আসামির ডেথ রেফারেন্সের আপিলের শুনানি শুরু

রবিবার, ০৮ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৩:০২)
বটমূলে-হামলা-আট-আসামির-ডেথ-রেফারেন্সের-আপিলের-শুনানি-শুরু

রাজধানীর রমনা বটমূলে পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা

রাজধানীর রমনা বটমূলে পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানে বোমা হামলার ঘটনায় করা হত্যা মামলায় মুফতি হান্নানসহ আট আসামির ডেথ রেফারেন্স এবং আসামিদের আপিলের ওপর শুনানি রোববার শুরু হয়েছে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে আসামিদের ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ও আপিল শুনানি শুরু হয়।

রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফরহাদ আহমেদ বলেন, পেপারবুক উপস্থাপনের মধ্যদিয়ে শুনানি শুরু হয়েছে।

পেপারবুকে মামলার এজাহার, অভিযোগপত্র, বিচারিক আদালতের রায়সহ পূর্ণাঙ্গ বৃত্তান্ত থাকে।

উল্লেখ, ২০০১ সালে রমনা বটমূলে পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানে বোমা মেরে হত্যা করা হয় ১০ জনকে। হুজির শীর্ষ নেতা মুফতি হান্নানসহ ১৪ জঙ্গিকে এ মামলার আসামি।

এ হত্যা মামলায় ২০১৪ সালের ২৩ জুন ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ রুহুল আমিন রায়ে মুফতি হান্নানসহ আট জনের মৃত্যুদণ্ড এবং ছয়জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।

অন্য হলো: আকবর হোসেন, আরিফ হাসান সুমন, সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুর ভাই মো. তাজউদ্দিন, হাফেজ জাহাঙ্গীর আলম বদর, আবু বকর ওরফে হাফেজ সেলিম হাওলাদার, আবদুল হাই ও শফিকুর রহমান।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলো: শাহাদাত উল্লাহ জুয়েল, সাব্বির, শেখ ফরিদ, আব্দুর রউফ, ইয়াহিয়া ও আবু তাহের।

রাষ্ট্রপক্ষের তথ্য: পেপারবুকের তথ্য অনুসারে ১৪ আসামির মধ্যে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া পাঁচ আসামি এখনো পলাতক।

তারা হলো: তাজউদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম, আবু বকর, শফিকুর ও আবদুল হাই।

আসামিদের ডেথ রেফারেন্সের সঙ্গে সাত জনের করা ছয়টি আপিলের শুনানি আজ শুরু হয়েছে। এরমধ্যে মুফতি হান্নান, আকবর হোসেন, সুমন, শাহদাত উল্লাহ ও আবু তাহের পৃথক আপিল করেছেন। তবে শেখ ফরিদ ও মো. ইয়াহিয়া দুজন মিলে করেছেন একটি আপিল। সঙ্গে রয়েছে মুফতি হান্নান, আকবর হোসেন ও সুমনের জেল আপিল।

মামলার বিবরণ:

বিগত ২০০১ সালের ১৪ এপ্রিল রমনা বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে বোমা হামলায় ঘটনাস্থলেই নয় জন মারা যান। পরে হাসপাতালে মারা যান একজন।

এ ঘটনায় নীলক্ষেত পুলিশ ফাঁড়ির তৎকালীন সার্জেন্ট অমল চন্দ্র চন্দ রমনা থানায় হত্যা ও বিস্ফোরকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দুটি মামলা করেন। হত্যা মামলায় রায় ঘোষণা হলেও অন্য মামলাটি এখনো বিচারাধীন রয়েছে।

এ ঘটনার প্রায় আট বছর পর দুই মামলায় ১৪ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। মামলার অষ্টম তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক আবু হেনা মো. ইউসুফ ২০০৮ সালের ৩০ নভেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

দুটি মামলারই অভিযোগপত্র একসঙ্গে দাখিল করা হয়। পরে বিচারের জন্য মামলা দুটি ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে পাঠানো হয়। ওই আদালতে একই বছরের ১৬ এপ্রিল পৃথকভাবে মামলা দুটিতে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং সেলের সিদ্ধান্তে হত্যা মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ৩-এ এবং বিস্ফোরকদ্রব্য আইনের মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এ পাঠানো হয়।

দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল আইন অনুযায়ী ১৩৫ কার্যদিবসের মধ্যে বিচার শেষ না হওয়ায় নিয়মানুযায়ী মামলা দায়রা আদালতে ফেরত যায়। ফলে হত্যা মামলাটি আবার দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা আদালতে স্থানান্তর হয়।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

Desh Television দেশটিভিতে আজকের অনুষ্ঠান

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
 
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
৩১